চট্টগ্রাম শনিবার, ১৩ আগস্ট, ২০২২

সর্বশেষ:

৬ আগস্ট, ২০২২ | ৯:৩০ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

রাঙামাটি ঘুরতে গিয়ে লেকে ডুবে প্রাবাসীর মৃত্যু

রাঙামাটিতে বেড়াতে গিয়ে কাপ্তাই হ্রদে গোসল করতে নেমে তলিয়ে যাওয়ার তিন ঘণ্টা পর রুবায়েত রশিদ (২৮) নামক এক পর্যটকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

শনিবার (৬ আগস্ট) বিকেল সাড়ে পাঁচটায় তার মরদেহ নিয়ে আসা হয় রাঙামাটির ঝুলন্ত ব্রিজের ঘাটে।

নিহত রুবায়েত চট্টগ্রাম নগরীর কর্ণেল হাটের বাসিন্দা দুবাই প্রবাসী হারুনুর রশিদের ছেলে। বন্ধুর পরিবারের সাথে চট্টগ্রাম থেকে রাঙামাটিতে বেড়াতে এসেছিলেন তিনি।

রুবায়েতের দীর্ঘদিনের বন্ধু ও সফরসঙ্গী রিয়াজুল ইসলাম জানিয়েছেন, শুক্রবার বিকেলে তিনি ও তার পরিবার রুবায়েতসহ পাঁচজন ঝুলন্ত ব্রিজের ঘাট থেকে একটি ফাইভার বোট ভাড়া করে কাপ্তাই হ্রদে ঘুরতে বের হন।

‘হ্রদের ওপারে একটি রেস্টুরেন্টে দুপুরের খাবার খেতে যাওয়ার সময় হ্রদের মাঝে অবস্থিত দারোগার টিলায় বোট থামিয়ে গোসল করতে নেমে যান রুবায়েত রশিদ। এসময় বোট চালক বারবার নিষেধ করেছে’, জানান নিহত রুবায়েতের বন্ধু রিয়াজুল।

তিনি বলেন, হ্রদের পানিতে ডুব দিয়ে ৫ মিনিট অতিবাহিত হওয়ার পরেও রুবায়েতের দেখা না পেয়ে বোট চালকসহ সকলেই মিলে পানিতে খুঁজতে থাকি। পরবর্তীতে বিষয়টি পর্যটনঘাটে বোট মালিক সমিতিকে অবহিত করলে তারা কোতয়ালী থানা ও রাঙামাটি ফায়ার সার্ভিস কর্তৃপক্ষকে উদ্ধারের আবেদন জানায়।

পর্যটন ঘাটের ৪৪ নম্বর বোটমালিক টিংকু মনি চাকমা ও বোটচালক আকতার হোসেন জানান, আমরা উভয়েই বোটে অবস্থান করছিলাম এবং একাধিক বার রুবায়েত ও তার সঙ্গীদের নিষেধ করেছি হ্রদের পানিতে না নামার জন্য। কিন্তু তিনি আমাদের কোনো কথাই শোনেননি।

এদিকে রাঙামাটি ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি নুরুল ইসলাম জানিয়েছেন, খবর পাওয়ার সাথে সাথেই ছয়জনের একটি উদ্ধারকারী দল ঘটনাস্থলে যাই। বেলা আড়াইটা থেকে সোয়া পাঁচটা পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে হ্রদের তলদেশ থেকে রুবায়েতের নিথর মরদেহ উদ্ধার করতে সক্ষম হই।

জানা গেছে, রুবায়েত রশিদরা মোট তিন ভাই। তার পিতা হারুনুর রশিদসহ সকলেই দুবাইয়ের প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী। গত ২০২১ সালের ডিসেম্বরে রুবায়েত দেশে আসে এবং পছন্দের পাত্রীকে বিয়ে করেছিলো। আবারো তিনি দুবাইয়ে চলে যাবেন তাই রাঙামাটির ঝুলন্ত ব্রিজ দেখতে বন্ধুর পরিবারের সাথে এখানে ঘুরতে এসেছিলেন।

সন্ধ্যা সোয়া সাতটা নাগাদ এই রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত সর্বশেষ জানা গেছে, ইতিমধ্যেই রুবায়েতের লাশ গ্রহণের জন্য তার মামা রাঙামাটির উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিয়েছেন।

 

পূর্বকোণ/মামুন/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট