চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ০৯ আগস্ট, ২০২২

সর্বশেষ:

৬ আগস্ট, ২০২২ | ১১:৪০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

চট্টগ্রামে ডিজেলচালিত গণপরিবহন বন্ধ

জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর সরকারি ঘোষণার পর ভাড়া সমন্বয়ের দাবিতে চট্টগ্রামে গণপরিবহন বন্ধের কোনো ঘোষণা দেননি পরিবহন মালিকরা। এরপরও শনিবার সকাল থেকে নগরীতে বন্ধ রয়েছে ডিজেলচালিত বাস। একইসঙ্গে সড়কে চলতে দেখা যায় গ্যাসচালিত বাসগুলো।

চট্টগ্রাম সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের যুগ্ম সম্পাদক মো. শাজাহান বলেন, ‘এভাবে হুট করে আবারও জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধিতে পরিবহন মালিক ও শ্রমিকরা ক্ষুব্ধ। যারা মনে করছে এই দামে তেল কিনে পোষাতে পারবে না, তারা গাড়ি চালাচ্ছে না, তবে চট্টগ্রামে গাড়ি বন্ধের আনুষ্ঠানিক কোনো ঘোষণা নেই।

‘সকাল থেকে কেউ কেউ আন্তজেলা পরিবহনগুলো বন্ধ রেখেছে, কেউ কেউ টিকিট বিক্রি করছে।’

তেলের দাম বৃদ্ধির পরও আপাতত আগের ভাড়ায় আন্তজেলা বাস চলাচল করছে বলে জানিয়েছেন আন্তজেলা বাস-মালিক সমিতির সভাপতি খোরশেদ আলম।

তিনি বলেন, ‘আমরা আপাতত আগের ভাড়ায় গাড়ি চালাচ্ছি। সকাল থেকে ইউনিক, সৌদিয়াসহ অনেকগুলো বাস চট্টগ্রাম থেকে বিভিন্ন জেলার উদ্দেশে ছেড়ে গেছে, তবে যে পরিস্থিতি দেখতেছি, আমরা ১২টায় সবাইকে নিয়ে বসব। আর সরকারের সঙ্গে ভাড়ার সমন্বয় নিয়ে আলোচনা হবে। আশা করি কোনো সমস্যা হবে না।’

মো. সবুজ চট্টগ্রামের টেকনিক্যাল এলাকায় একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কাজ করেন। শনিবার সকাল ৯টার দিকে চট্টগ্রামের ওয়াসা এলাকায় দাঁড়িয়ে ছিলেন ৮ নম্বর বাসের জন্য। কিন্তু ১৫ মিনিট দাঁড়িয়েও বাস পাননি তিনি।

তিনি বলেন, তেলের দাম বাড়ানোর ফলে রাস্তায় বাসের পরিমাণ কম। গ্যাস দিয়ে চলে এমন বাসই চলাচল করছে। ফলে ১৫ মিনিট দাঁড়িয়ে থেকেও টেকনিক্যাল মোড়ে যাওয়ার কোন বাস পাইনি।

ওয়াসা মোড়ে বাসের জন্য দাঁড়িয়ে থাকা কামাল নামে চাকরিজীবী বলেন, প্রায় ১৫ মিনিট ধরে দাঁড়িয়ে আছি। কিন্তু টেকনিক্যাল এলাকায় যাওয়ার কোনো বাস পাইনি। সঠিক সময়ে পৌঁছাতে না পারলে অফিসেও ঝামেলা করবে। যত সমস্যা আমাদের মতো সাধারণ মানুষের।

কাজির দেউড়ি এলাকায় কথা হয় ৩ নম্বর রোডের বাসের যাত্রী মো. সালামের সঙ্গে। তিনি বলেন, গ্যাসের গাড়িগুলো চালছে। এখনও বাড়তি ভাড়া নেয়নি। আমি আগের ভাড়া দিয়েই জিইসি মোড় থেকে কাজির দেউড়ি এলাম।

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পরিবহন মালিক গ্রুপের সভাপতি বেলায়েত হোসেন বেলাল বলেন, ‘আমাদের গাড়ি সারা দিন চলে, রাতে তেল নেয়, কিন্তু মধ্যরাতে তেলের দাম বৃদ্ধির ঘোষণার পর পাম্পে ভিড়ের কারণে চালকরা তেল নিতে পারেনি। তাই তেলের গাড়িগুলো চলতে পারতেছে না, তবে গ্যাসের গাড়িগুলো চলতেছে, চলবে।

পূর্বকোণ/এএইচ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট