চট্টগ্রাম শুক্রবার, ১২ আগস্ট, ২০২২

সর্বশেষ:

৫ আগস্ট, ২০২২ | ১১:৩৬ পূর্বাহ্ণ

সারোয়ার আহমদ

১৬৪ টাকার ১০টি পেন্সিল ব্যাটারি ১৮ বার নিলামে!

১৮০ গ্রাম ওজনের ১০ পিস পেন্সিল ব্যাটারি। চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসের নিলামে যার সংরক্ষিত মূল্য ধরা হয়েছে ১৬৪ টাকা ৬ পয়সা। এই ১০ পিস পেন্সিল ব্যাটারি বিক্রির জন্য গত দুই বছর চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউস মোট ১৭ বার নিলামে তুলেছে। তাও বিক্রি হয়নি। আগামী ১০ আগস্ট অনুষ্ঠেয় চট্টগ্রাম কাস্টমসের ২৮ নম্বর নিলামের ৪ নম্বর মেগালটে আবারও সেই ১০ পিস পেন্সিল ব্যাটারি অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এবারসহ ওই ব্যাটারি মোট ১৮ বার নিলামে তোলা হল। যার মধ্যে ২০২১ সালে মোট ১১ বার এবং চলতি বছরে মোট ৭ বার নিলামে রাখা হয়। তাও পেন্সিল ব্যাটারিগুলোর ভাগ্য খোলেনি।

১৮ বার নিলামে তোলা আরেকটি পণ্য হলো মেটাল ফ্রেম। যা দেখতে অনেকটা পিস্টনের মতো। দুই কার্টনে এই পণ্যটি আছে ৩ কেজি। যার সংরক্ষিত মূল্য ৮২৪ টাকা ৬৩ পয়সা। আগামী নিলামের ৪ নম্বর মেগা লটে এই পণ্যটি অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

এছাড়া এবারের অনুষ্ঠেয় নিলামের ক্যাটালগের ৮ নম্বর লটে আছে ১ কেজি ওজনের প্লাস্টিকের খেলনা। সেই পণ্যের চালানে পাঁচটি কার্টন থাকলেও যার চারটি কার্টনই খালি পায় কাস্টমস। বাকি একটি কার্টনে আছে ১ কেজি ওজনের প্লাস্টিকের খেলনা, যার সংরক্ষিত মূল্য ধরা হয়েছে ৫৭৪ টাকা ২১ পয়সা। এই খেলনাগুলো গত দুই বছরে মোট পাঁচবার নিলামে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

অন্যদিকে ছয় লটে আছে ব্যবহার অনুপযোগী পুরাতন, মরিচাধরা ও ভাঙাচোরা হওয়ায় স্ক্র্যাপ হিসেবে ব্যবহার করা যেতে পারে এমন ছয়টি চেয়ার। বন্দরের নিলাম গোল ‘কে’ এর রেজিস্টার অনুযায়ী সেখানে ১৬টি চেয়ার থাকার কথা থাকলেও কাস্টমসের ইনভেন্ট্রিতে পাওয়া গেছে ছয়টি চেয়ার। সিট বা চেয়ারের গদিসহ চেয়ারগুলোর ওজন ২৪ কেজি। যার সংরক্ষিত মূল্য ধরা হয়েছে ১৪ হাজার ৫৪৮ টাকা। এই চেয়ারগুলোও ৬ বার নিলামে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

 

নিলামে আরো আছে, হাইড্রোক্লোরিক এসিড, ওয়াশিং কেমিক্যাল, কনক্রিট ব্লক, নষ্ট মোবাইল কেসিং, ফেব্রিক, সেভিং রেজার, প্লাস্টিক হ্যাঙ্গার, ১৭৫ পিস বিভিন্ন সাইজের এলইডি টিভি, পাম তেল, থিনার, ব্যবহৃত এক্সকেভেটর, নুডলস, কফি, চিপস ইত্যাদি।
কাস্টমসের তথ্য অনুযায়ী গতকাল থেকে শুরু হয়েছে নিলামের ক্যাটালগ ও দরপত্র বিক্রি। পাওয়া যাবে আগামী ১০ আগস্ট পর্যন্ত। অফিস চলাকালীন সময়ে ক্যাটালগ ও দরপত্র সংগ্রহ করা যাবে নগরীর মাঝিরঘাটের ৩০৬ স্ট্র্যান্ড রোডের কে এম কর্পোরেশন কার্যালয়ে, বন্দর পোর্ট কলোনির স্টেডিয়াম সম্মুখে কাস্টমস অকশন শেডে ও ঢাকার ৮০ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা ঠিকানা থেকে।

 

ক্যাটালগে তালিকাভুক্ত সকল পণ্য আগামী ৭ ও ৮ আগস্ট সকাল ৯টা থেকে দুপুর ৩টা পর্যন্ত প্রদর্শন করা যাবে। পূরণকৃত দরপত্রসমূহ আগামী ১০ ও ১১ আগস্ট সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত কাস্টম হাউসের রাজস্ব কর্মকর্তা (প্রশাসন), চট্টগ্রাম ও জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সহকারী/ডেপুটি কমিশনার (নিলাম) এবং ঢাকার কাকরাইলে অবস্থিত আইডিইবি ভবনের শুল্ক, আবগারি ও ভ্যাট কমিশনারেটের (ঢাকা দক্ষিণ) যুগ্ম কমিশনার (সদর) কার্যালয়ের রক্ষিত টেন্ডার বাক্সে দাখিল করা যাবে।

 

ঢাকায় দাখিল করা দরপত্র চট্টগ্রামে আসার পর আগামী ১৪ আগস্ট দুপুর দেড়টায় চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসের ডেপুটি কমিশনার (নিলাম) কার্যালয় দরপত্র খোলা হবে।

 

পূর্বকোণ/আর

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট