চট্টগ্রাম রবিবার, ২৯ জানুয়ারি, ২০২৩

সর্বশেষ:

৩০ জুলাই, ২০২২ | ৬:১৩ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

সীতাকুণ্ডে গণধর্ষণ : প্রধান আসামিসহ গ্রেপ্তার ২

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে অভিযান চালিয়ে গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামিসহ দুই জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তারা হলো- মো. সাদ্দাম হোসেন ও মো. জাহেদ ওরফে মোস্তফা জাহেদ।

শুক্রবার (২৯ জুলাই) রাতে বাড়ককুণ্ড মিজিপাড়া এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

আজ শনিবার (৩০ জুলাই) দুপুর ৩টায় সিপিসি-৩ চান্দগাঁও ক্যাম্পে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-৭ এর অধিনায়ক কর্নেল এম এ ইউসুফ এসব তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ধর্ষণের শিকার নারীর দুটো সন্তান রয়েছে। তিনি সীতাকুণ্ড থানার হাশেমনগরে একটি ভাড়া বাসায় থাকেন। কিছুদিন আগে তার স্বামী পুলিশের কাছে আটক হয়ে জেলে যায়। এ কারণে তিনি তার সন্তানদের নিয়ে তার বাবার বাড়ি উপজেলার মুরাদপুরে চলে যায়। গত ২৮ জুলাই সন্ধ্যায় তিনি খবর পান, তার বাসায় ঢুকে মালামাল বের করে নিয়ে যাচ্ছে দুর্বৃত্তরা। তিনি সেখানে গিয়ে দেখেন ঘরের দরজা খোলা এবং জিনিসপত্র সব ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে। পরে তিনি দেখেন দুর্বৃত্তরা তার ঘর থেকে দেড় লাখ টাকার মালামাল নিয়ে গেছে। এসব মালামাল আনতে তিনি তার ভাগিনা ও ফুফাতো ভাইয়ের ছেলেসহ রাত সোয়া ১২টায় ঘর থেকে বের হয়। পথে বাড়বকুণ্ড ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন রাস্তার ওপর দুর্বৃত্তরা তার ভাগিনা ও ভাইপোকে মারধর করে রেল লাইনের একটি ঝুপড়ি ঘরে আটকে রাখে তাকে ধর্ষণ করে। এসময় ধর্ষণের ছবি মোবাইলে ধারণ করে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে পালিয়ে যায়। যাওয়ার সময় তাদের কাছে থাকা নগদ ১০ হাজার টাকা ও তিনটি মোবাইল নিয়ে যায়। পরে ভিকটিমের বড় ভাই ঘটনাটি জেনে তাকে উদ্ধার করে সীতাকুন্ড উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন। এ ঘটনায় ভিকটিম বাদী হয়ে ৪ জনকে এজাহারনামীয় ও ১ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে মামলা দায়ের করেন।

এম এ ইউসুফ বলেন, মামলাটি স্পর্শকাতর হওয়ায় র‌্যাব অভিযান চালিয়ে গতকাল শুক্রবার রাতে বাড়ককুণ্ড এলাকা থেকে মামলার প্রধান আসামি ও ৩ নম্বর আসামিকে গ্রেপ্তার করে। তাদের বিরুদ্ধে সীতাকুণ্ড থানায় মাদক, অস্ত্র, ডাকাতি, ছিনতাইসহ মোট ৬ টি মামলা পাওয়া গেছে। গ্রেপ্তার আসামিদের সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

 

পূর্বকোণ/পিআর/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট