চট্টগ্রাম শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩

২২ জুলাই, ২০২২ | ৮:৩৫ অপরাহ্ণ

লামা সংবাদদাতা

বীর বাহাদুর গোল্ডকাপ টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন ‘হরিণঝিরি লাল সবুজ’

বান্দরবানের লামায় সবচেয়ে বড় ফুটবল আসর বীর বাহাদুর গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (২২ জুলাই) বিকেলে লামা পৌরসভার চাম্পাতলী ৩২ আনসার ব্যাটেলিয়ন মাঠে ফাইনাল খেলাটি অনুষ্ঠিত হয়। খেলায় প্রায় ২০ হাজার দর্শক উপস্থিত হয়েছে বলে জানিয়েছে আয়োজক কমিটি।

বর্ণাঢ্য আয়োজন ও হাইভোল্টেজ এই খেলায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি। গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলায় ২-১ গোলে জয়লাভ করেছেন লামা পৌরসভার ‘হরিণঝিরি লাল সবুজ স্পোটিং ক্লাব একাদশ’। খেলায় প্রতিদ্বন্ধীতা করেন লামা জোত মালিক সমিতি একাদশ।

নির্ধারিত ৮০ মিনিটের খেলায় রেফারির শেষ বাঁশি বাজার আগ পর্যন্ত ২-১ গোল এগিয়ে থেকে মাঠ ছাড়েন হরিণঝিরি লাল সবুজ স্পোটিং ক্লাব একাদশ। খেলা প্রথম আর্ধে দুই গোলের দেখা পায় হরিণঝিরি লাল সবুজ স্পোটিং ক্লাব একাদশ। দলের পক্ষে দুইটি গোলই করেন ১১ নাম্বার জার্সি পরিহিত খেলোয়াড় মো. বোরহান। আয়োজক কমিটি কর্তৃক বিচারক মন্ডলী তাকে ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ ও ম্যান অফ দ্যা টুর্নামেন্ট ঘোষণা করেন।

দ্বিতীয় আর্ধের শেষ মুহুর্তে ৪ মিনিটের অতিরিক্ত সময়ের ১ গোলের দেখা পায় লামা জোত মালিক সমিতি একাদশ। খেলায় সেরা গোলরক্ষকের পুরষ্কার পায় হরিণঝিরি লাল সবুজ স্পোটিং ক্লাব একাদশের গোলরক্ষক জিসান। খেলার শুরু থেকে উভয় দল দর্শকদের সুন্দর খেলা উপহার দেন।

খেলায় বিজয়ী দল হরিণঝিরি লাল সবুজ স্পোটিং ক্লাব একাদশকে টুর্নামেন্ট পরিচালনা কমিটির পক্ষ থেকে ১ লাখ টাকা প্রাইজমানি, পার্বত্য মন্ত্রীর পক্ষ থেকে ১৫ হাজার টাকা, বিজয়ী ট্রফি ও মেডেল প্রদান করা হয়। রানার্সআপ দল লামা জোত মালিক সমিতি একাদশকে টুর্নামেন্ট পরিচালনা কমিটির পক্ষ থেকে ৫০ হাজার টাকা প্রাইজমানি, পার্বত্যমন্ত্রীর পক্ষ থেকে ১০ হাজার টাকা, রানার্সআপ ট্রফি ও মেডেল প্রদান করা হয়।

গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা উপভোগ করতে লামা উপজেলাসহ বান্দরবান ও কক্সবাজার জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে প্রায় ২০ হাজার ফুটবলপ্রেমি দর্শক মাঠে উপস্থিত হয়।

টুর্নামেন্ট পরিচালনা কমিটির আহবায়ক ডা. অমর চৌধুরীর সভাপতিত্বে খেলায় বিশেষ অতিথি ছিলেন বান্দরবান জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অশোক কুমার পাল, ৩২ আনসার ব্যাটেলিয়নের অধিনায়ক মো. আনোয়ারুল আজিম, লামা উপজেলা চেয়ারম্যান মোস্তফা জামাল, লামা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মোস্তফা জাবেদ কায়সার, লামা পৌরসভার মেয়র মো. জহিরুল ইসলাম, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য মোজাম্মেল হক বাহাদুর, তিং তিং, ফাতেমা পারুল, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড বান্দরবানের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. ইয়াছিন আরাফাত, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বাথোয়াইচিং মার্মা প্রমূখ।

 

পূর্বকোণ/রফিক/মামুন/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট