চট্টগ্রাম বুধবার, ০৬ জুলাই, ২০২২

সর্বশেষ:

২১ জুন, ২০২২ | ১১:০৬ পূর্বাহ্ণ

ইমাম হোসাইন রাজু

হঠাৎ কেন করোনা ঊর্ধ্বমুখী!

ফের করোনার দাপট শুরু হয়েছে চট্টগ্রামসহ দেশজুড়ে। গত এক সপ্তাহ ধরেই আচমকাই বেড়ে গেছে করোনা সংক্রমণ। সর্বশেষ গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ১১ শতাংশ ছাড়িয়েছে। যা এক সপ্তাহের ব্যবধানে ৮ গুণের বেশি রোগী পাওয়া গেছে। গত কয়েক মাসের পরিস্থিতি আর বর্তমান পরিসংখ্যান চোখ কপালে উঠার মতোই। তাহলে কী- নতুন করে করোনার সংক্রমণ বাড়ার সংকেত দিচ্ছে এমন পরিস্থিতি? নাকি করোনার নতুন কোন ধরন নীরবে ছড়িয়ে যাচ্ছে ?
সংক্রমণের হার বর্তমানে যা আছে, তা এখন পর্যন্ত খুব একটা বেশি নয়। স্বাস্থ্য বিভাগ মাস্ক এবং স্বাস্থ্যবিধি মানার ওপর জোর দিচ্ছেন। বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা প্রকাশ করে বলছেন, পরিস্থিতি যদি এভাবেই অব্যাহত থাকে, তাহলে সংক্রমণ হার আরও বাড়বে। তবে টিকা গ্রহণ করার প্রতি জোর দিতে হবে। তাহলে অন্তত সংক্রমণ বাড়লেও সেটি দুর্বল থাকবে বলেও মত চিকিৎসকদের।
স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্যে দেখা যায়, গেল ১৪ জুন সারাদেশের মোট সংক্রমণ হার ছিল ৩ দশমিক ৫৬ শতাংশ। যা প্রতিদিন বাড়তে বাড়তে সর্বশেষ গতকাল দাঁড়িয়েছে ১০ দশমিক ৮৭ শতাংশ। অর্থাৎ এই ক’দিনের ব্যবধানে সংক্রমণ হার তিনগুণের বেশি বেড়েছে। অন্যদিকে, চট্টগ্রামের পরিস্থিতি পর্যালোচনায় দেখা যায়, ১৩ জুন সংক্রমণ হার ছিল ১ দশমিক ৪৪ শতাংশ। তা আটগুণ বেড়ে গতকাল দাঁড়িয়েছে ১১ দশমিক ৫৬ শতাংশ।
চট্টগ্রাম বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. হাসান শাহরিয়ার কবীর বলেন, ‘সংক্রমণের হার দীর্ঘদিন ধরে এক শতাংশের নিচে থাকার পর গেল এক সপ্তাহ ধরে তা বেড়ে যাওয়াটা উদ্বেগজনক। সামনে হয়তো আরও বাড়তে পারে। তবে এক্ষেত্রে অবশ্যই সকলে স্বাস্থ্যবিধি মানা, মাস্ক পরা এবং টিকা গ্রহণ করতেই হবে। মাস্ক এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে না চললে হয়তো খেসারতও দিতে হতে পারে।’

টিকা নেয়ার পরও করোনা পজিটিভ !
ব্যাপকভাবে মানুষকে করোনাভাইরাসের টিকা দেয়ার পরও হঠাৎ সংক্রমণের সংখ্যা বেড়েছে গেল এক সপ্তাহ ধরে। তাই টিকার কার্যকারিতা নিয়ে কেউ কেউ প্রশ্ন তুলেছেন। যদিও বিশেষজ্ঞরা এ নিয়ে ইতিমধ্যে ব্যাখ্যা দিয়েছেন। তারা টিকা গ্রহণের জন্য উৎসাহিত করে যাচ্ছেন।
বুস্টার ডোজ গ্রহণের পরও কেন লোকজন কোভিডে আক্রান্ত হচ্ছেন, এমন প্রশ্নের জবাবে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. আব্দুর রব মাসুম বলেন, ‘এখন পর্যন্ত ভ্যাকসিন নিয়ে যত গবেষণা হয়েছে, তাতে বলাই হয়েছে, শতভাগ রক্ষা করবে না। তবে ভর্তি ও মৃত্যুর সংখ্যা কমে যাবে। সুতরাং বুস্টার ডোজ গ্রহণ করলেও কোভিড আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি থাকতেই পারে।’
একই মত দিয়েছেন চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-পরিচালক জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডা. বিদ্যুৎ বড়ুয়া। তিনি বলেন, ‘বুস্টার ডোজ দিলেই যে সংক্রমিত হবে না সেটি কিন্তু কোথাও কখনো বলা হয়নি। হয়তো নতুন কোন রূপে কোভিড এখন তার কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি করেছে, তাই বুস্টার ডোজের পরও মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন। তবে টিকা গ্রহণকারীরা অবশ্যই অন্যদের চেয়ে দ্রুত সময়ের মধ্যে সুস্থ হবেন। তাদের শারীরিক কোন ধরনের অবনতি হবে না। তাই যারা এখনও টিকা গ্রহণ করেনি, তাদের উচিত দ্রুত সময়ের মধ্যে টিকা গ্রহণ করা।’

নতুন করে সংক্রমণ বাড়বে ?
যেভাবে সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে, তাতে সামনের দিনগুলোতে সংক্রমণ বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের। তবে তাতে অতিরিক্ত ভয়ের কোন কারণ নেই বলেও আশ্বস্ত করেছেন তারা। অব্যশই কারণ হিসেবে টিকা গ্রহণের কার্যকারিতাকেও দেখছেন বিশেষজ্ঞরা।
সংক্রমণ বাড়ার বিষয়ে জানতে চাইলে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক (উপ-পরিচালক) ডা. সেখ ফজলে রাব্বি বলেন, ‘হঠাৎ করে যে সংক্রমণ বাড়ছে, তা সামনে আরও বাড়তে পারে। কিন্তু তাতে তেমন ক্ষতির কিছুই হবে না। হয়তো কিছুদিন অবস্থান করে তা চলে যাবে। এ নিয়ে আতংকের কিছু নেই। তবুও জ্বর হলেই বাসাতেই আইসোলেশন করাটা উচিত। অন্তত তাতে পরিবারের অন্য কেউ আক্রান্ত হবে না।’
জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডা. বিদ্যুৎ বড়ুয়া বলেন, নতুন কোন ঢেউ আসতে পারে কি-না, সেটি এখনও বলার সময় হয়নি। এলেও একটু মৃদু লক্ষণ নিয়েই আবার চলে যাবে। দীর্ঘদিন কোভিড পরিস্থিতি ভালো ছিল, হয়তো কোভিডের মিউটেশনের মধ্যে নতুন রূপের আবির্ভাব হয়েছে বলে ধারণা করা যায়। যার কারণে সংক্রমিত হচ্ছে মানুষ। এটি শুধু দেশেই নয়, বিশ্বের বিভিন্ন দেশেও হচ্ছে। তাই এ নিয়ে দুশ্চিন্তার কারণ নেই।’

 

মাস্ক এবং টিকার বিকল্প নেই

অধ্যাপক ডা. মো. সায়েদুর রহমান খসরু
চেয়ারম্যান, ফার্মাকোলজি বিভাগ
বিএসএমএমইউ

 

‘কোভিডের দীর্ঘমেয়াদি ক্ষতির প্রভাবের হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য সঠিক নিয়মে মাস্ক পরে শরীরে ভাইরাসের প্রবেশ ঠেকিয়ে রাখার কোন বিকল্প আপাতত নেই। যারা মাস্ক খুলে ফেলেছিলেন, দয়া করে আবার মাস্ক পরুন। যারা এখন পর্যন্ত টিকা গ্রহণ করেননি, তারা দ্রুত টিকা নিন। আর যাদের বুস্টার ডোজ নেয়ার কথা, বিশেষ করে বয়স্ক ও অসুস্থ সবাই বুস্টার ডোজটি নিয়ে ফেলুন। যথাসম্ভব ভিড় এড়িয়ে চলুন। নতুনভাবে সাবধানতা অবলম্বনের এখনই সময়।’

 

টিকা গ্রহণের দরকার নেই মনে করলে চরম ভুল হবে

ডা. হাসান শাহরিয়ার কবীর
পরিচালক (স্বাস্থ্য) চট্টগ্রাম বিভাগ

 

কেউ যদি মনে করে টিকা গ্রহণের দরকারই নেই, কারণ সবাই শেষ পর্যন্ত অসুস্থ হবেই। এমন ভাবনা হবে চরম ভুল। টিকা গ্রহণ করলেও সংক্রমিত হতে পারে, কিন্তু এ টিকাই সংক্রমণকে অপেক্ষাকৃত সরল রোগে পরিণত করতে সফল হচ্ছে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ঘরে বসেই চিকিৎসা করা সম্ভব হচ্ছে। হাসপাতালে যেতে হচ্ছে না। তাছাড়া এখন যেহেতু সংক্রমণ বাড়ছেই, তাতে অবশ্যই মাস্ক পড়ার উপর জোর দিতেই হবে।

পূর্বকোণ/এস

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট