চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই, ২০২২

সর্বশেষ:

২৮ মে, ২০২২ | ৮:৪২ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

‘সবার বিপদের বন্ধু ছিলেন ডা. গোলাম মূর্তাজা হারুন’

ডক্টরস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ড্যাব) কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. হারুন আল রশিদ বলেছেন, চট্টগ্রামে চিকিৎসকদের কাছে বিপদের বন্ধু নামে সুপরিচিত ছিলেন ডা. গোলাম মূর্তাজা হারুন। যেকোন সংকটে সবার আগে তিনিই এগিয়ে এসেছেন। যার কারণে ডা. গোলাম মুর্তাজা হারুনকে সমস্যার সমাধানকারী হিসেবে মনে জায়গা করে দিয়েছেন চিকিৎসক সমাজ। শুধু চিকিৎসকেরাই নয়, সাধারণ মানুষও আজ তার অবদানের কথা স্বীকার করতে বাধ্য। কারণ তার হাত ধরেই চট্টগ্রামে চিকিৎসা ল্যাবরেটরি আজ এতোটা উন্নত ।

শুক্রবার (২৭ মে) রাতে নগরীর পাচলাইশের একটি কমিউনিটি সেন্টারে বিএমএ চট্টগ্রাম শাখার সাবেক সভাপতি ও ড্যাব চট্টগ্রাম জেলার সাবেক সভাপতি ডা. গোলাম মূর্তাজা হারুনের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকীতে ডক্টরস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব) চট্টগ্রাম শাখা আয়োজিত স্মরণসভা, আলোচনা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ডা. হারুন আল রশিদ বলেন, মানুষের বিপদে যে মানুষটি সবার আগে এগিয়ে আসতেন তিনি হলেন ডা. গোলাম মুর্তাজা হারুন। তিনি ছিলেন একজন মহৎ মানুষ। তার বিরুদ্ধে কেউ কোনদিন অভিযোগ করেননি। তিনি শুধু একজন চিকিৎসক ছিলেন না, তিনি ছিলেন চট্টগ্রামের অন্যতম একজন অভিভাবক। কারণ চট্টগ্রামের অনেক ক্রান্তিকালে তিনি সবার আগে এগিয়ে এসেছেন। তার ভাল গুণগুলোকে যদি আমরা আমাদের জীবনে কাজে লাগাতে পারি তাহলে ডা. গোলাম মূর্তাজা হারুনের জীবন হবে সার্থক। তার আত্মা পাবে শান্তি।

অনুষ্ঠানের প্রধান বক্তা চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক ও ড্যাব চট্টগ্রামের প্রধান উপদেষ্টা ডা. শাহাদাত হোসেন বলেন, ১৯৯১ সাল থেকে ড্যাব চট্টগ্রাম জেলা শাখার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ছিলেন ডা. গোলাম মূর্তাজা হারুন। সেই থেকে ডাক্তারদের যে কোন প্রয়োজনে, চট্টগ্রাম ও চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের যে কোন প্রয়োজনে তিনি এগিয়ে এসেছেন সবার আগে। ৩০টি বছর সভাপতির দায়িত্ব পালন করার মধ্যে কেউ কখনও অন্য কাউকে সভাপতি করার প্রয়োজনও মনে করেনি। কারণ সবার হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছিলেন ডা. গোলাম মুর্তাজা হারুন।

তিনি বলেন, বর্ণাঢ্য কর্মময় জীবনে ডা. গোলাম মূর্তাজা হারুন দক্ষ সংগঠক ও সফল উদ্যোক্তা ছিলেন। তিনি ১৯৮৪ সালে চট্টগ্রামে প্রথম বেসরকারি ডায়াগনস্টিক সেন্টার শেভরন প্রতিষ্ঠা করেন। ডা. গোলাম মূর্তাজা হারুন শুধু চট্টগ্রামের সমস্যায় নয়, তিনি জাতীয় ক্রাইসিসের সময়েও নিজের বলিষ্ঠ ভূমিকা রেখেছেন। আর আজকে চট্টগ্রামের মেডিকেল ল্যাবরেটরির যে উন্নয়ন, যে উন্নত ব্যবস্থা আমরা পাচ্ছি, আধুনিক চিকিৎসার সব সেবা পাচ্ছি তার পথিকৃৎ এই ডা. গোলাম মুর্তাজা হারুন।

 

পূর্বকোণ/মামুন/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট