চট্টগ্রাম শনিবার, ১৩ আগস্ট, ২০২২

সর্বশেষ:

২৬ মে, ২০২২ | ৫:০৮ অপরাহ্ণ

বান্দরবান সংবাদদাতা

বান্দরবানে মাইক্রোবাস খাদে, নিহত বেড়ে ৩

বান্দরবানের থানচিতে পর্যটকবাহী মাইক্রোবাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ার ঘটনায় নিহত বেড়ে ৩ জনে দাঁড়িয়েছে। এছাড়া এ ঘটনায় আহত হয়েছেন ৬ জন। আজ বৃহস্পতিবার (২৬ মে) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- ময়মনসিংহের মো. মঞ্জুরুল ইসলাম (৪০),ফরিদপুরের মো. জয়নাল আবেদীন (৩২) ও ঢাকার লালবাগের জামেতুল্লাহর ছেলে মো. হামিদুল ইসলাম (৪১)।

আহতরা হলেন- মাগুড়া জেলার গুলবাহারের ছেলে ওয়াহিদুজ্জামান (৪০), ঢাকার নবীনগরের মৃত আব্দুল আলিমের ছেলে মো. ফারুক (৪০), ঢাকার নিউমার্কেট এলাকার আলীমন এলাকার মো. মিলন (৩০), মানিকগঞ্জের নাসির উদ্দীনের ছেলে মো. রাজীব মিয়া (৩০), ঢাকার গুলবক্সের ছেলে মো. ফয়সাল (৩৫) ও গাইবান্ধা জেলার মজিবুর রহমানের ছেলে মো. আব্দুল মালেক (৫২)। হতাহতরা সবাই ঢাকার স্টেট এন্ড লিগ্যাল অফিসের সিনিয়র সিকিউরিটি গার্ড এর সদস্য। তারা বুয়েটের নিরাপত্তা শাখায় কর্মরত ছিলেন।

থানচি পুলিশ জানায়, ঢাকা থেকে ৯ জনের একটি দল মাইক্রোবাস (এক্স নোহা) নিয়ে বান্দরবানে আসে। সকালে বান্দরবান শহর থেকে তারা থানচি যাবার পথে জীবননগর নামক স্থানে গাড়িটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে প্রায় ৩’শ ফুট গভীর খাদে পড়ে যায়। এসময় ঘটনাস্থলে মোহাম্মদ মঞ্জুরুল ইসলাম নিহত হন। পরে হাসপাতালে নিয়ে আসার পথে অপর ২ জন মারা যায়।

দুর্ঘটনায় বেঁচে যাওয়া আব্দুল মালেক জানান, আমি গাড়ির পিছনের সিটে বসেছিলাম। গাড়িটি পাহাড়ের ঢালু পথে নিচে নামার সময় দ্রুত গতিতে হঠাৎ উল্টে গভীর খাদে পড়ে যায়। এরপর আর কিছু বলতে পারি না। আল্লাহই আমাকে বাঁচিয়েছেন। তা না হলে এরকম জায়গায় দুর্ঘটনায় বেঁচে থাকা অসম্ভব ।

বান্দরবানের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অশোক কুমার পাল জানিয়েছেন, ঘটনার খবর পেয়ে সেখানে বলিপাড়া থেকে বিজিবি সদস্য, থানচি থেকে পুলিশ, দমকল বাহিনীর সদস্য এবং স্থানীয়রা উদ্ধার অভিযানে নামে। গাড়িটি গভীর খাদে পড়ে যাওয়ায় উদ্ধার অভিযান চালাতে বেগ পেতে হয়। আহতদের বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পূর্বকোণ/পিআর

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট