চট্টগ্রাম শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

সর্বশেষ:

২৯ জুলাই, ২০১৯ | ১:১১ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব সংবাদদাতা, সন্দ্বীপ

সন্দ্বীপ রুটে ফেরিঘাটে ভাড়া নৈরাজ্য

সন্দ্বীপের কাছিয়াপাড় হতে সীতাকু-ের বাঁশবাড়িয়া ফেরিঘাটে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের নৈরাজ্য চলছে। বৈরী আবহাওয়ায় সন্দ্বীপের অন্য ফেরিঘাটগুলোতে যাত্রীবাহী নৌযান চলাচল বন্ধ থাকার সময় অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করে যাত্রী পারাপার করছে জেলা পরিষদের নিয়ন্ত্রণাধীন ইজারাদার রাজা কাশেম।
সন্দ্বীপ থেকে চট্টগ্রামের মূল ভূখ-ের সাথে যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম নৌপথ। বর্ষায় বৈরী আবহাওয়াতে সন্দ্বীপের ফেরিঘাটগুলোতে যাত্রী পারাপার বন্ধ থাকে। এ সময় কাছিয়াপাড় টু বাঁশবাড়িয়া রুটে নদীর দৈর্ঘ্য তুলনামূলক কম হওয়ার অজুহাত দেখিয়ে অন্য ঘাটে বোট চলাচল বন্ধ থাকলেও এই ঘাটে যাত্রীবাহী স্পিডবোট চালু থাকে। এককভাবে যাত্রী পারাপারের সুযোগ নিয়ে যাত্রীদের থেকে ইচ্ছেমতো ভাড়া আদায় করছে ইজারাদার। গত শনিবার সকাল ৮টায় কুমিরা গুপ্তছড়া ঘাটে দুটি সার্ভিস বোটে যাত্রী পারাপার করে। আবহাওয়া ক্রমশ খারাপ হতে থাকলে ঘাট ইজারাদার বোট চলাচল বন্ধ করে দেয়। একইভাবে গাছুয়া ঘাটেও যাত্রী পারাপার বন্ধ থাকে। মামলার কারণে ইজারা না থাকায় ছোয়াখালী ঘাট বন্ধ রয়েছে। এই সুযোগকে পুঁজি করে রোগী ও জরুরি কাজে চলাচল করা যাত্রীদের কাছে আড়াইশ টাকার টিকিট পাঁচশ টাকা করে বিক্রি করতে দেখা যায়।
কাছিয়াপাড় ফেরিঘাট দিয়ে চট্টগ্রাম আসা যাত্রী মো. সেলিম অভিযোগ করে বলেন, অসুস্থ বাবাকে দেখতে ছুটি নিয়ে সন্দ্বীপ এসেছিলাম। রবিবার অফিস খোলা। তাই বাধ্য হয়ে আড়াইশ টাকার টিকিট পাঁচশ টাকায় কিনেছি। ভাড়া বেশি আদায়ের বিষয়ে কথা বলতে চাইলে কাছিয়াপাড় ঘাটে দায়িত্বে থাকা টিকিট বিক্রেতা মো. রুবেল জানান, আবহাওয়া খারাপ। তাই ২৪ জনের বোটে ১৬ জন করে যাত্রী নিচ্ছি। এজন্য ভাড়া একটু বেশি। অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের বিষয়ে তরুণ সমাজসেবক সাহেদ সারোয়ার শামীম বলেন, এই ঘাটের ইজারাদার রাজা কাশেমের বিরুদ্ধে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের অভিযোগ অনেক আগে থেকে রয়েছে। যাত্রী থেকে নির্ধারিত ভাড়ার অতিরিক্ত টাকা আদায় করা অন্যায়।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 238 People

সম্পর্কিত পোস্ট