চট্টগ্রাম সোমবার, ০৮ মার্চ, ২০২১

২৭ জুলাই, ২০১৯ | ১:৪৮ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

শিল্পকলায় উত্তরাধিকারের নাটক ফুলকুমারী মঞ্চস্থ

গরীব কাজেম পাটনীর একমাত্র কন্যা ফুলকুমারী । নদীর ঘাটে ফুলকুমারীও জমিদার পুত্র সোনা মিয়ার প্রথম দেখা হয়। সেখান থেকেই ফুলকুমারী ও জমিদার পুত্রের মধ্যে ভালোবাসার সম্পর্ক গড়ে ওঠে। কিন্তু বাধা হয়ে দাঁড়ায় সোনা মিয়ার মা। তার মা তাকে বিয়ে দিতে চায় ভাটির দেশের জমিদার কন্যা রোশনার সাথে। সোনামিয়া মায়ের এ সিদ্ধান্ত মানতে পারে না। বিষয়টি জেনে সোনামিয়ার পিতা কৌশলে ফুলকুমারী ও তার মা বাবাকে গ্রাম থেকে তাড়িয়ে দেয়। তাই মনের দুঃখে সোনামিয়া ঘর ছেড়ে চলে যায় ফুলকুমারীর খোঁজে। খুঁজতে খুঁজতে অবশেষে ফুলকুমারীর সাথে বিরাণ ভূমিতে দেখা হয়ে যায় সোনামিয়ার। কিন্তু তাদের এই সাক্ষাতের পর সেখানে তারা মারা যায়। নদী মাতৃক এ দেশে নদীর সরল রৈখিক গতির সঙ্গে মানুষের জীবনের টানাপড়েনে ঘটেছে নানান গীত, কথা, সুর ও তালের সংমিশ্রণে গল্প ও কাহিনী। তেমনি টাঙ্গাইল জেলার একটি গীতি কাহিনী ‘ফুলকুমারী’। একসময় স্রােতস্বীনি বংশাই নদীর উপকুলবর্তী নর-নারীর প্রেম কাহিনী নিয়ে তৈরি এ কাহিনী। নাটকটির মাধ্যমে ফুটে উঠে ধনী আর এক গরীবের প্রেম কাহিনী। অর্থের কাছে ভালোবাসার মৃত্যু। গতকাল সন্ধ্যা সাতটায় জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে মঞ্চস্থ হয় নাটক ‘ফুলকুমারী’। উত্তরাধিকার প্রযোজিত নাটকটি রচনা করেন আমিনুর রহমান মুকুল ও নির্দেশনা করেন মোসলেম উদ্দীন সিকদার। নাটকে অভিনয় করেন পরিতোষ দাশ বিমল, সুনয়ন দেবনাথ, জাহিদুল ইসলাম সবুজ, রাজিউল হাসান, শেখ নিয়াজ বাবু, ইসরাত নুর মৌ, মাহমুদ রাসেল, মঈনউদ্দীন কোহেল, গৌতম চৌধুরী, বিটু ভৌমিক, রহিমা খাতুন লুনা, গৌরি নন্দিতা, তমা রাউত, রোকন উদ্দীন ও গুলশান আরা বহ্নি।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 350 People

সম্পর্কিত পোস্ট