চট্টগ্রাম রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

২৬ জুলাই, ২০১৯ | ৮:২৩ অপরাহ্ণ

রাঙ্গুনিয়া সংবাদদাতা

রাঙ্গুনিয়ায় আ.লীগের সম্মেলনকে ঘিরে আলোচনায় সিরাজুল-শামসুল

দীর্ঘ ৬ বছর পর রাঙ্গুনিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে কাল শনিবার। সম্মেলনের তারিখ ঘোষণার পর থেকে নেতাকর্মীদের মাঝে প্রাণচাঞ্চল্যতা দেখা দিয়েছে। সম্মেলনকে ঘিরে নেতাকর্মীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তাঁদের পছন্দের প্রার্থীদের সমর্থন জানিয়ে বিভিন্ন প্রচারণা চালাচ্ছেন। সম্মেলনের প্রচারে পুরো রাঙ্গুনিয়ায় ফেস্টুন, ব্যানারে ছেয়ে গেছে। এখনো পর্যন্ত উপজেলার আ.লীগের কাউন্সিলে সভাপতি পদে উপজেলা আ.লীগের সহ-সভাপতি সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক পদে ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার শামসুল আলম তালুকদার ঘুরেফিরে আলোচনায় সরব রয়েছেন কাউন্সিলর ও ডেলিগেটদের কাছে।

আগামীকাল শনিবার (২৭ জুলাই) বিকেল ৩টায় উপজেলা সদরের নুরজাহান কমিউনিটি সেন্টার মাঠে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।
সম্মেলনে প্রধান অতিথি থাকবেন রাঙ্গুনিয়া আসনের সাংসদ ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। উদ্বোধক হিসেবে চট্টগ্রাম উত্তরজেলা আ.লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও রেলপথ মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত্র সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি, বিশেষ অতিথি হিসেবে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উত্তর জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এম এ সালাম এর উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে। এতে সভাপতিত্ব করবেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব খলিলুর রহমান চৌধুরী।
দলীয় সূত্র জানায়, সর্বশেষ ২০১৩ সালের শেষের দিকে দুই বছরের জন্য উপজেলা  আ. লীগের কমিটি গঠিত হয়েছিল। সেসময় প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা ও বর্তমান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান চৌধুরীকে সভাপতি এবং কাজী মোহাম্মদ জসিমকে সাধারণ সম্পাদক করে ৭১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি পূর্নগঠিত হয়েছিল। এর আগের কমিটিতেও তারা দুজন সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক ছিলেন। ২০১৪ সালের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে দলীয় পদ থেকে ছিটকে পড়েন কাজী মোহাম্মদ জসিম। এরপর থেকে ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করে আসছেন ১নং যুগ্ম সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার শামসুল আলম তালুকদার।
এবারের সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করার পর থেকে রাঙ্গুনিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকের পদে প্রার্থী কারা হচ্ছেন তা নিয়ে তৃণমূলের নেতাকর্মীদের মাঝে নানা জল্পনা কল্পনা চলছে। এক্ষেত্রে সভাপতি পদে বর্তমান সিনিয়র সহসভাপতি সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী ও ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক এবং রাজানগর ইউপি চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার শামসুল আলম তালুকদারের নাম ঘুরেফিরে আলোচনায় উঠে আসছে। উপজেলা জুড়ে ব্যানার ফেস্টুনেও তাদের প্রচারণায় সরব সমর্থকরা। প্রচারণায় নীরব হলেও সম্মেলনের দিন এদের বাইরেও যে আর কেউ নিজেদেরকে সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক পদে নিজেকে প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করবেননা তা এখনো বলা যাচ্ছেনা।
সম্মেলনের আহবায়ক ও উপজেলা আ.লীগ সভাপতি খলিলুর রহমান চৌধুরী বলেন, ‘দলে অনুপ্রবেশকারী ঠেকাতে এবার কমিটিতে নতুনত্ব আসবে। শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে নতুন কমিটি যুগান্তকারী ভূমিকা রাখবে। সর্বোপরি দলের কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ’র সিদ্ধান্তই আমাদের কাছে চুড়ান্ত। ’
সভাপতি প্রার্থী ও উপজেলা আ.লীগের সহ-সভাপতি সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, ‘ছাত্র জীবন থেকে আওয়ামী রাজনীতির সঙ্গে জড়িত থেকেছি। দুঃসময়ে দলের সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছি। শেষ বয়সে এসে সভাপতি পদে প্রার্থী হয়েছি। দলের কাউন্সিলররা যদি মূল্যায়ন করেন তাহলে দলের জন্য আমৃত্যু কাজ করে যাব।’
সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার শামসুল আলম তালুকদার বলেন, ‘প্রায় সাড়ে পাঁচ বছর ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক হিসেবে দলের তৃণমূলকে সুসংগঠিত করতে কাজ করেছি। সবসময় দলের নেতাদের পাশে থেকেছি। দলীয় বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে সবার সাথে সমন্বয় করে কাজ করার চেষ্ঠা করেছি। দল আমাকে অবশ্যই মূল্যায়ন করবে আশা করছি।’

পূর্বকোণ/আল-আমিন

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 676 People

সম্পর্কিত পোস্ট