চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ০২ মার্চ, ২০২১

২৫ জুলাই, ২০১৯ | ১:৫৪ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

চাক্তাই খালে দ্বিতীয় দিনের অভিযানে ২৫টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

দুই কিলোমিটার জায়গা উদ্ধার

নগরীর চাক্তাই খালে দ্বিতীয় দিনের উচ্ছেদ অভিযানে ২৫টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। বাকলিয়ার মাস্টারপুল এলাকা থেকে শুরু হয়ে চাক্তাই-খাতুনগঞ্জ পর্যন্ত এ উচ্ছেদ অভিযান চলে। গতকাল বুধবার বেলা সাড়ে এগারোটা থেকে শুরু হয়ে বিকেল সাড়ে তিনটায় উচ্ছেদ অভিযান শেষ হয়। অভিযানে প্রায় দুই কিলোমিটার জায়গা দখলমুক্ত করা হয়েছে। উচ্ছেদ অভিযানে সিডিএকে সহযোগিতা করে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৩৪ ইঞ্জিনিয়ার কন্সট্রাকশন ব্রিগেড। এ সম্পর্কে সিডিএ’র প্রকল্প পরিচালক আহমদ মঈনুদ্দিন জানান, দ্বিতীয় দিনের মত চাক্তাই খালে উচ্ছেদ অভিযানে ২৫টির মত অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। এরমধ্যে পাঁচটি তিনতলা ভবন ছিল। শ্রমিকরা অবৈধ স্থাপনাগুলো ভাঙা শুরু করলে, পরবর্তীতে অবৈধ দখলদাররা নিজেরাই অবৈধ অংশ ভাঙতে শুরু করে। গতকালের অভিযানে প্রায় দুই কিলোমিটার জায়গা উদ্ধার করা হয়েছে। মাস্টারপুল থেকে অভিযান শুরু হয়ে মিয়াখান নগর হয়ে চাক্তাই-খাতুনগঞ্জ গিয়ে অভিযান শেষ হয়। উচ্ছেদ অভিযানে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর প্রকল্পের পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. শাহ্ আলী, সিডিএ’র প্রকল্প পরিচালক আহমদ মঈনুদ্দিন, সিডিএ’র স্পেশাল মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মো. সাইফুল আলম চৌধুরীসহ সিডিএ ও সেনাবাহিনীর

কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, একটি ছয়তলা ভবনসহ ছোটবড় মিলে নগরীর এ গুরুত্বপূর্ণ খালে ১৮০টি অবৈধ স্থাপনা ছিল বলে জানান সিডিএ। এরমধ্যে একতলা থেকে বহুতল ভবন ৫৬টি, ৫৩টি টিনশেড স্থাপনা, ৪০টি কাঁচা ঘর ও ৩১টি সেমিপাকা ঘর ছিল বলে জানায় সিডিএ। চাক্তাই খালে প্রথম দিনে গত সোমবার প্রায় ৬০টি মত অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। জলাবদ্ধতা নিরসনে ‘মেগা প্রকল্পের’ অংশ হিসেবে খালের উপর থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ শুরু করেছে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (সিডিএ)। চলতি মাসের দুই তারিখ রাজাখালী (১) খালের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের মাধ্যমে উচ্ছেদ অভিযান শুরু করে সিডিএ।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 289 People

সম্পর্কিত পোস্ট