চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

সর্বশেষ:

২৪ জুলাই, ২০১৯ | ১:০৯ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব সংবাদদাতা, কাউখালী

বিদ্যুতের দাবিতে বেতবুনিয়া নাগরিক সমাজের মানববন্ধন

নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ, গ্রাহক হয়রানি বন্ধসহ বিভিন্ন দাবিতে কাউখালীতে মানববন্ধন করেছে বেতবুনিয়ার ৫০ ঊর্ধ্বদের সংগঠন ‘অগ্রজ নাগরিক সমাজ’।
কাউখালী উপজেলা সদরে মানববন্ধন শেষে ২২ জুলাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করা হয় সংগঠনের পক্ষ থেকে। জাকির হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, অগ্রজ নাগরিক সমাজের সাধারণ সম্পাদক এমএ হামিদ, ডা. অংহলাপ্রু মারমা, ডা. রবি কুমার চাকমা, আব্দুল মান্নান লিডার, জহির আহাম্মদ চৌধুরী, লোকমান তালুকদার ও মাষ্টার ক্যাথোয়াইপ্রু মারমাসহ অন্যরা। মানববন্ধনে বক্তারা অভিযোগ করেন, আবাসিক প্রকৌশলীর চরম অবহেলা ও অদক্ষতায় কোন রকম আগাম নোটিশ ছাড়াই বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রেখে জনগণকে এক প্রকার জিম্মি করে রাখা হয়েছে। তারা বলেন, প্রচ- দাবদাহে বিদ্যুৎ বিহীন বেতবুনিয়ার মানুষ চরম ভোগান্তিতে পড়েছে। কাউখালীর সব জায়গায় বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক থাকলেও সামান্য বৃষ্টিতে বেতবুনিয়াতে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ থাকে দিনের পর দিন।
অগ্রজ নাগরিক সমাজের সভাপতি ও কাউখালী উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান অংচাপ্রু মারমা জানান, ভুতুড়ে বিলের যন্ত্রণায় বেতবুনিয়ার মানুষ অতিষ্ঠ। তিনি বলেন, বিদ্যুৎ বিভাগ কোন প্রকার মিটার পরিদর্শন ছাড়াই প্রতি মাসে এলাকা মানুষকে বিদ্যুৎ ব্যয়ের চেয়ে অধিক বিল দিয়ে অতিরিক্ত অর্থ পরিশোধ করতে বাধ্য করা হচ্ছে। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে অভিযোগ করলেও কম্পিউটার বিলের দোহাই দিয়ে গ্রাহকদের ঘাড়ে চাপিয়ে দেয়া হচ্ছে অতিরিক্ত বিল। অভিযোগের বিষয়ে বেতবুনিয়া বিদ্যুৎ সরবরাহে আবাসিক প্রকৌশলী এসএম তৈয়ব হাসান জানান, ঘাগড়া থেকে বেতবুনিয়া পর্যন্ত প্রায় ১০০ কি. মিটারের বিদ্যুৎ সংযোগ রয়েছে। বর্ষা মৌসুমে অতিবৃষ্টির কারণে বিভিন্ন স্থানে বৈদ্যুতিক খুঁটিসহ নানা ধরনের ত্রুটি দেখা দিতে পারে। গভীর জঙ্গলের ভেতর দিয়ে যাওয়া দীর্ঘ লাইনের ত্রুটি বিচ্যুতি বের করতে সময় দরকার হয়। তাছাড়া ভুতুড়ে বিল রোধে বিদ্যুৎ বিভাগ ও উপজেলা পরিষদের সমন্বয়ে যৌথভাবে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 217 People

সম্পর্কিত পোস্ট