চট্টগ্রাম শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

সর্বশেষ:

২৩ জুলাই, ২০১৯ | ৪:৪২ অপরাহ্ণ

নিজস্ব সংবাদদাতা, কক্সবাজার

মা হওয়ার আগেই মরতে হলো কিশোরী বধুকে

কক্সবাজারের পেকুয়ায় পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা জেনুয়ারা বেগম (১৯) নামের এক গৃহবধুর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

নিহত গৃহবধু উজানটিয়া ইউনিয়নের করিয়ারদিয়া বাইন্যা পাড়া এলাকার আবুল কালামের মেয়ে ও একই এলাকার মো. রিদুয়ানের স্ত্রী।

আজ মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) সকাল ১০টায় পেকুয়া থানার এসআই সুমন সরকার গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করে। নিহতের মা সাদিয়া বেগমের দাবী যৌতুকের জন্য তার মেয়েকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে স্বামী ও শ্বাশুড়ি।

সাদিয়া বেগম বলেন, আমার মেয়ের বিয়ে হয়েছিল আমিরাত প্রবাসী মো. রিদুয়ানের সাথে। বিয়ের কিছু দিনের মধ্যে স্বামী প্রবাসে চলে যায়। স্বামীর অবর্তমানে শ্বাশুড়ি আমার মেয়েকে মারধর করত। মারধরের ঘটনা বাড়তে থাকলে স্বামী বিদেশ থেকে চলে আসে। এরই মাঝে মেয়ে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে।

তিনি আরো বলেন, গত ১৫ দিন আগে স্বামী রিদুয়ান যৌতুকের জন্য মারধর করে আমার মেয়েকে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। ২০ হাজার টাকা আনতে না পারায় সেদিন মেয়েকে ব্যাপক মারধর করা হয়। এ ঘটনার পর থেকে আমরা মেয়ের কোন খবর পায়নি। সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে স্বামী খবর দেন মেয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

নিহত জেনুয়ারা আত্মহত্যা করেনি তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি মা সাদিয়া বেগমের।

পেকুয়া থানার এসআই সুমন সরকার পূর্বকোণ অনলাইনকে বলেন, গৃহবধুর লাশটি আমরা গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় উদ্ধার করি মঙ্গলবার সকালে। গৃহবধুর পিতা ও মায়ের অভিযোগ থাকায় স্বামী মো. রিদুয়ান ও শ্বাশুড়ি ছকিনা বেগমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।

পেকুয়া থানার ওসি জাকির হোসেন ভূঁইয়া বলেন, গৃহবধুর লাশটি উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় স্বামী ও শ্বাশুড়ি থানার হেফাজতে রয়েছে। লাশটি ময়নাতদন্তনের জন্য সদর হাসসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। পরিবারের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ দিলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পূর্বকোণ/ময়মী

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 288 People

সম্পর্কিত পোস্ট