চট্টগ্রাম শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

২১ জুলাই, ২০১৯ | ৯:৩২ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক, নাজিরহাট

মারা গেলেন স্বামীর হাতুড়িপেটায় আহত সেই রুবি

স্বামীর হাতুড়িপেটায় আহত ফটিকছড়ির রুবি আকতার ১৫ ঘন্টা পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। আজ রবিবার (২১ জুলাই) রবিবার ভোর ৫টায় নগরীর চমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুই সন্তানের জননী রুবি আকতার মারা যায়। শনিবার (২০ জুলাই) দুপুরে ফটিকছড়ি পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের আকবর হোসেনের কলোনিতে এ ঘটনাটি ঘটে। নিহত রুবি আকতার উপজেলার ভূজপুর থানাধীন মির্জারহাট এলাকার ইদিলপুর গ্রামের মৃত বজল আহমদের মেয়ে।

নিহত রুবির পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ১৩ বছর আগে পঞ্চগড় জেলার ভোদা উপজেলার ময়দান দিঘী হরিপুর ঢামুরা গ্রামের নুরুল ইসলাম ছেলে আনোয়ার হোসেনের সাথে রুবি আকতারের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে রুবির স্বামী ঘরজামাই হিসেবে বসসাস করত। পরে স্বামী-স্ত্রী চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি সড়কের আকবর হোসেন কলোনিতে ভাড়া বাসায় চলে যায়। তাদের সংসারে দুই ছেলে সন্তান রয়েছে। পারিবারিক কলহের জের ধরে নুরুল ইসলাম ঘুমন্ত অবস্থায় রুবিকে মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন অংশ হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করে পালিয়ে যায়। পরে তার চিৎকারে স্থানীয়রা রক্তাক্ত অবস্থায় রুবিকে উদ্ধার করে নাজিরহাটের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রুবি আকতার আজ রবিবার ভোর ৫টার দিকে মৃত্যুবরণ করেন।

স্থানীয় কাউন্সিলর মুহাম্মদ বেলাল জানান, আমার নির্বাচনী এলাকায় নিহত রুবি স্বামী নিয়ে ভাড়া বাসায় থাকত। পারিবারিক কলহের জের ধরে তার স্বামী হাতুড়ি দিয়ে তাকে মারাত্মকভাবে জখম করে। আজ ভোরে সে মারা যায়।

ফটিকছড়ি থানা জানায়, ঘটনা জানতে পেরে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। সেখানে কাউকে পাওয়া যায়নি। নিহত মহিলার স্বামী নির্দয়ভাবে তাকে মেরেছে। এ নিয়ে থানায় এখনো কোন মামলা হয়নি বলেও জানিয়েছেন তিনি।

 

 

 

 

 

পূর্বকোণ/মুন্না-রাশেদ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 374 People

সম্পর্কিত পোস্ট