চট্টগ্রাম সোমবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০২২

২৯ নভেম্বর, ২০২১ | ১০:৪৫ অপরাহ্ণ

লামা সংবাদদাতা

লামায় চাঁদা না দেয়ায় দুই শ্রমিককে মারধরের অভিযোগ

বান্দরবানের লামায় লাখ টাকা চাঁদা না দেয়ায় দুই কাঠ শ্রমিককে হাত পা বেঁধে পাহাড়ি সন্ত্রাসীদের অমানবিক নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

সোমবার (২৯ নভেম্বর) দুপুর ১টায় লামা উপজেলার সদর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ড দুর্গম ঘিলাচন্দ্র পাড়ায় এই ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন- লামা পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের লামামুখ এলাকার মৃত আব্দুল কাদেরের ছেলে হারুণ অর রশিদ (৪৮) ও লামা সদর ইউনিয়নের মেরাখোলা ল্যাংগা ঘোনা এলাকার মৃত আকবর হোসেনের ছেলে মো. আজিজ (২০)।

লামা হাসপাতালে জরুরি বিভাগের সহকারী মেডিকেল অফিসার ডা. বিবি ফাতেমা বলেন, সারা শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তাদের চিকিৎসার জন্য আন্তঃবিভাগে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত গাছ শ্রমিক হারুণ অর রশিদ বলেন, দুপুরে পাহাড়ে কাঠ কেটে আমরা কয়েকজন শ্রমিক ঘিলাচন্দ্র পাড়ায় একটি দোকানে বসেছিলাম। তখন ৮/১০ জনের অস্ত্রধারী একটি পাহাড়ি সন্ত্রাসী গ্রুপ দোকানে এসে আমাদের ঘিরে ফেলে। তারা বলে তাদের সাথে যোগাযোগ না করে আমরা কেন গাছ কাটতে এসেছি। আমি বলেছি, আমরা শ্রমিক। আমরা লামা পৌরসভার কলিঙ্গাবিল এলাকার গাছ ব্যবসায়ী মো. মজনুর বাগানে কাঠ কাটতে এসেছি। তাদের ১ লাখ টাকা চাঁদা না দিয়ে কেন গাছ কাটতে এসেছি, সে জন্য সন্ত্রাসীরা আমাদের দুইজনকে চোখ ও হাত-পা বেঁধে অমানবিকভাবে মারধর করে। ঘিলাচন্দ্র পাড়ার কারবারী চিকওয়া ত্রিপুরা ও সাবেক মেম্বার মারাং ত্রিপুরা তাদের জিম্মায় নিয়ে আমাদের সন্ত্রাসীদের হাত থেকে রক্ষা করে। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় আামদের রাত ৮টার দিকে লামা হাপাতালে নিয়ে আসে।

এই বিষয়ে গাছ ব্যবসায়ী মো. মজনু বলেন, আমি ঘিলাচন্দ্র পাড়ার এক ত্রিপুরা লোকের নিজস্ব মালিকানার গাছের বাগান ক্রয় করি। ক্রয়কৃত বাগানের গাছ কাটতে লেবার পাঠালে, চাঁদা না দেয়ায় সোমবার দুপুরে তারা শ্রমিকদের মারধর করে। সন্ত্রাসীরা মুঠোফোনে আমার কাছে এক লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেছিল।

এই ঘটনায় লামা সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মিন্টু কুমার সেন বলেন, দুর্গমে বাঙ্গালিদের কোন নিরাপত্তা নেই। ঘটনাটি মর্মান্তিক।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে লামা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, পাহাড়ি সন্ত্রাসী কর্তৃক দুই গাছ শ্রমিককে মারধরের ঘটনা শুনেছি। এই বিষয়ে কেউ থানায় এখনো অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

পূর্বকোণ/রফিক/মামুন/পারভেজ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 246 People

সম্পর্কিত পোস্ট