চট্টগ্রাম রবিবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২১

সর্বশেষ:

২৫ নভেম্বর, ২০২১ | ২:২৯ অপরাহ্ণ

মুহাম্মদ নাজিম উদ্দিন 

পুরোনোতেই আস্থা আ. লীগের 

চলমান ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের চতুর্থ ধাপেও পুরোনোদের উপর আস্থা রেখেছে আওয়ামী লীগ। জেলার ২৭ ইউনিয়নের মধ্যে ১৯টিতে বর্তমান চেয়ারম্যান ও পুরোনো প্রার্থীরা দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন। আর আট ইউনিয়নে নতুন মুখ আ. লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন। 

গত মঙ্গলবার রাতে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশ করে। দলের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত তালিকা পর্যালোচনা করে দেখা যায় বেশির ভাগ ইউনিয়নে পুরোনোদের উপর আস্থা রেখেছে আওয়ামী লীগ।  আগামী ২৬ ডিসেম্বর চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আজ বৃহস্পতিবার

মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষদিন। এ ধাপে জেলার পটিয়া, কর্ণফুলী ও লোহাগাড়া উপজেলার ২৭ ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এরমধ্যে পটিয়ায় ১৭ ইউপি, কণফুলীতে চার ও লোহাগাড়ায় ছয় ইউপিতে ভোট গ্রহণ করা হবে। পটিয়া উপজেলার ১৭ ইউনিয়নের মধ্যে তিনটিতে নতুন মুখ দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন। একজন গতবার দলীয় প্রার্থী ছিলেন।

নতুন প্রার্থীদের মধ্যে ছনহরা ইউনিয়নে নৌকা প্রতীক পেয়েছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. সামশুল আলম। এ ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান হচ্ছেন বিএনপির আবদুর রশিদ দৌলদী। হাইদগাঁও ইউনিয়নে নৌকা প্রতীক পেয়েছেন ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক মুহাম্মদ আবুল হাসনাত ফয়সাল।

এ ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান বিএনপির মো. ইউনুছ মিয়া। জিরি ইউনিয়নে আ. লীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খান টিপু। এই ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান আবুল কালাম ভোলা। দলীয় মনোনয়ন-প্রত্যাশী ছিলেন তিনি। হাবিলাসদ্বীপ ইউনিয়নে মনোনয়ন পেয়েছেন গতবারের প্রার্থী ফৌজুল কবির। বর্তমান চেয়ারম্যান ও বিএনপি প্রার্থী শফিকুল ইসলামের কাছে পরাজিত হন তিনি।

১৭ ইউনিয়নে প্রার্থী রদবদল করা হয়নি। আওয়ামী লীগের বর্তমান চেয়ারম্যানরা এবারও দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন। তারা হলেন, ভাটিখাইন ইউনিয়নে মো. বখতিয়ার, বড়লিয়ায় শাহীনুর ইসলাম সানু, কেলিশহরে সরোজ কান্তি সেন, দক্ষিণভূর্ষিতে মোহাম্মদ সেলিম চেয়ারম্যান, কচুয়াই এসএম ইনজামুল হক, শোভনদ-ীতে এহছানুল হক, ধলঘাটে রনবীর ঘোষ, খরনায় মো. মাহবুবুর রহমান, কুসুমপুরায় মুহাম্মদ ইব্রাহীম, কাশিয়াইশে আবুল কাসেম, আশিয়ায় মোহাম্মদ হাশেম, জঙ্গলখাইনে মো. গাজী ইদ্রিছ ও কোলাগাঁও ইউনিয়নে আহমদ নূর।

কর্ণফুলী উপজেলায় চার ইউনিয়নের মধ্যে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন একজন চেয়ারম্যান। দলীয় মনোনয়ন পাননি বর্তমানের তিন চেয়ারম্যান। শিকলবাহা ইউনিয়নে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন আবদুল করিম ফোরকান। বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগের জাহাঙ্গীর আলম। গত নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীকে পরাজিত করে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। চরলক্ষ্যায় দলীয় প্রতীক পান মোহাম্মদ সোলায়মান তালুকদার। বর্তমান চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী গতবার নৌকা প্রতীক নিয়ে জয়ী হয়েছিলেন। এবার মনোনয়ন পাননি তিনি। বড় উঠানে মনোনয়ন পান বর্তমান চেয়ারম্যান মোহাম্মদ দিদারুল আলম। জুলধায় দলীয় মনোনয়ন পান গতবারের দলীয় প্রার্থী হাজি মুহাম্মদ নুরুল হক। গত নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থী রফিক আহমদের কাছে পরাজিত হন তিনি।

লোহাগাড়া উপজেলায় ছয় ইউনিয়নের মধ্যে তিনটিতে নতুন মুখ দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন। তারা হলেন, বড়হাতিয়া ইউনিয়নে জেলা আ. লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক ও সাবেক ছাত্রনেতা বিজয় কুমার বড়–য়া। এখানে বর্তমান চেয়ারম্যান জামায়াত ঘরনার এমডি জুনাইদ চৌধুরী। পুটিবিলা ইউনিয়নে মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম। বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগের হাজি মোহাম্মদ ইউনুছ। পদুয়া ইউনিয়নে মোহাম্মদ হারুনুর রশিদ। বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগের মো. তৌহিদ উদ্দিন। গত নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীকে পরাজিত করে বিজয়ী হয়েছিলেন। কলাউজানে গতবারের প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান আবদুল ওয়াহেদ।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 135 People

সম্পর্কিত পোস্ট