চট্টগ্রাম সোমবার, ২৯ নভেম্বর, ২০২১

সর্বশেষ:

১৫ জুলাই, ২০১৯ | ২:২৬ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

শাহীন স্কুল এন্ড কলেজ বাসে ছাত্র ছুরিকাহত

বিএফ শাহীন স্কুল এন্ড কলেজে সিনিয়র-জুনিয়রের ঝগড়ার বিরোধে তানজিল তুহিন (১৭) নামে এক শিক্ষার্থী ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হয়েছে। এ ঘটনায় আরও দুইজন আহত হয়েছে। গতকাল রবিবার দুপুরে নগরীর ডবলমুরিং থানাধীন আগ্রাবাদ মোড় এলাকায় কলেজ বাসে এ ঘটনা ঘটে। আহত তানজিল তুহিন পাঁচলাইশ থানাধীন ২নম্বর গেট মেয়র গলির মো. আবু সাঈদের ছেলে। সে বিএফ শাহীন স্কুল এন্ড কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। বর্তমানে তুহিন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের ক্যাজুয়ালিটি

ওয়ার্ডের চিকিৎসাধীন রয়েছে। জানা যায়, বিএফ শাহীন কলেজের শিক্ষার্থীদের একটি বাস নগরীর আগ্রাবাদ মোড় এলাকায় পৌঁছালে একই স্কুলের শিক্ষার্থীসহ ১০/১২ জন যুবক বাস থামিয়ে প্রথমে বাসে ভাংচুর করে। পরে বাসে থাকা তিন শিক্ষার্থীকে মারধর করে। একপর্যায়ে তানজিল তুহিন নামে ওই শিক্ষার্থীকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায় তারা। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে পাঠায়।
হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ জহিরুল হক ভূঁইয়া বলেন, দুপুরে ছুরিকাঘাত অবস্থায় এক শিক্ষার্থীকে জরুরি বিভাগে নিয়ে আসে ওবায়েদ নামে তার অপর এক বন্ধু। বর্তমানে তানজিল তুহিন চিকিৎসাধীন রয়েছে।
তানজিল তুহিনের মামা মো. শাহাদাৎ হোসেন পূর্বকোণকে বলেন, গত বুধবারে বাসের মধ্যে কলেজের সিনিয়র-জুনিয়রদের মধ্যে কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এর জেরেই জুনিয়র কিছু শিক্ষার্থীরা বহিরাগত যুবকদের নিয়ে বাসে হামলা করে এবং আমার ভাগিনাকে ছুরিকাঘাত করে। ওই দিনে (বুধবার) তুহিন কলেজে যায়নি। শুধু ওই দিনই নয়, গত এক সপ্তাহ ধরে তার কলেজে যাওয়া হয়নি। তবুও তার উপর হামলা চালানো হয়েছে। বিএফ শাহীন কলেজের মত একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বাসে যদি শিক্ষার্থীরা নিরাপত্তাহীনতায় থাকতে হয়, তাহলে ভবিষতে কি করে অভিভাবকরা তাদের ছেলেদের ভর্তি করাবে।
তিনি বলেন, কলেজ কর্তৃপক্ষও আগের ঘটনাগুলো জানতো। তবুও এ বিষয়ে তারা কোন পদক্ষেপ না নেওয়ায় আজ এ ঘটনা ঘটেছে।
এদিকে, দিনে-দুপুরে নগরীর ব্যস্ততম এলাকায় প্রকাশ্যে এমন ঘটনা ঘটলেও এ ঘটনার বিষয় জানা নেই বলে জানিয়েছেন ডবলমুরিং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সদীপ কুমার। রাত নয়টার দিকে এই বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি পূর্বকোণকে বলেন, ‘এমনিতে শুনেছি, তবে এ বিষয়ে কেউ আমাদের অভিযোগ করেনি। আর ঘটনা কী নিয়ে হয়েছে, তাও জানা নেই আমার’।
তবে আহত শিক্ষার্থীর মামা শাহাদাৎ হোসেন জানিয়েছেন সন্ধ্যার দিকেই এই বিষয়ে তাঁরা থানায় অভিযোগ করেছেন।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 654 People

সম্পর্কিত পোস্ট