চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২১

সর্বশেষ:

৪ আগস্ট, ২০২১ | ১১:৩০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

পটিয়ায় টিকাকাণ্ড : সেই রবিউল বরখাস্ত

পটিয়ায় রেজিস্ট্রেশনবিহীন টিকা প্রদানের ঘটনায় অবশেষে মেডিকেল টেকনোলজিস্ট (ইপিআই) মোহাম্মদ রবিউল হোসেনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। একই সাথে অভিযুক্ত রবিউল হোসেনের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করার কথাও ভাবছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। গতকাল মঙ্গলবার রাত ৯টা ৪০ মিনিটে পূর্বকোণকে বরখাস্তের বিষয়টি নিশ্চিত করেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি) অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম। এছাড়া ঘটনার সাথে অন্য কেউ জড়িত থাকলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছেন তিনি।
মহাপরিচালক বলেন, ‘আপাতত তাকে (রবিউল হোসেন) সাময়িক বরখাস্ত করে ক্লোজড করে দেয়া হয়েছে। তবে আইনি প্রক্রিয়াও করবো। এই ব্যাপারটা তো নতুন। এই অপরাধতো আগে আমরা দেখি নাই। এটা কোন আইনে, কিভাবে হবে, এটা কি এডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনালে হবে, নাকি ফৌজদারী আদালতে বিচার হবে বা মামলা হবে। এটা আমাদের ইনভেস্টিগেশন (তদন্ত প্রতিবেদন) রিপোর্ট পাওয়ার পরই আমাদের ল-ইয়ার কে (আইনজীবী) দেখানো হবে। তারপরে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা হবে।’
এক প্রশ্নের জবাবে ডা. খুরশীদ আলম বলেন, ‘ঘটনার সাথে যদি অন্য কেউ জড়িত থাকে, তদন্তপূর্বক তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এ বিষয়ে কোনো ছাড় দেয়া হবে না।’
এর আগে গত সোমবার রাতে পটিয়ার শোভনদণ্ডীতে রেজিস্ট্রেশনবিহীন টিকা প্রদানের ঘটনার তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয় স্বাস্থ্য বিভাগের গঠিত তদন্ত কমিটি। ৩ পৃষ্ঠার তদন্ত প্রতিবেদনের সঙ্গে সংযুক্তি হিসেবে ৩৫ পৃষ্ঠার বিভিন্ন নথি উপস্থাপন করে কমিটি। তবে গতকাল মঙ্গলবার রাতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি) অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলমের সাথে কলা বলা পর্যন্ত তিনি ‘তদন্ত প্রতিবেদনটি’ পাননি বলে জানিয়েছেন।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মকর্তা বলেন, রবিউল হোসেনের দেয়া ২ হাজার ৬শ’ রেজিস্ট্রেশন কার্ড উপস্থাপন করা হলেও সুরক্ষা এ্যাপে ২১৮টি কার্ডের বৈধতা খুঁজে পাওয়া যায়। অর্থাৎ বাকি সবগুলোই রেজিস্ট্রেশনবিহীন ছিল।
প্রসঙ্গত গত ৩০ ও ৩১ জুলাই সিনোফার্মের ভ্যাকসিন অন্যত্র নিয়ে ইউনিয়ন পর্যায়ে রেজিস্ট্রেশনবিহীন লোকদের প্রদান করেন মেডিকেল টেকনোলজিস্ট (ইপিআই) রবিউল হোসেন। পটিয়া উপজেলার নিজ ইউনিয়ন শোভনদণ্ডীতে আরফা করিম উচ্চ বিদ্যালয় ও শোভনদণ্ডী স্কুল এন্ড কলেজে আওয়ামী লীগের ব্যানারে প্রায় চার হাজার মানুষকে তিনি টিকা দেন বলে অভিযোগ পাওয়া যায়। যার কোনো অনুমতিই দেয়নি স্বাস্থ্য বিভাগ। তাছাড়া এ সংক্রান্ত বিষয়ে কোন কিছুই জানতেন না খোদ স্বাস্থ্য বিভাগও। মূলত নিজের কাছে রক্ষিত থাকায় অননুমোদিতভাবে টিকা ভাগিয়ে এমন কর্মকাণ্ড ঘটান রবিউল।

 

পূর্বকোণ/এসি

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 712 People

সম্পর্কিত পোস্ট