চট্টগ্রাম বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২১

৩ আগস্ট, ২০২১ | ১০:২০ অপরাহ্ণ

বাঁশখালী সংবাদদাতা

সাগরে জাল বসানোকে কেন্দ্র করে হামলায় নিহত ১, নিখোঁজ ২ জেলে

বঙ্গোপসাগরে জাল বসানোর স্থান সীমানা (ফাঁর) নিয়ে দুই এলাকার জেলেদের মধ্যে হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ সময় বাঁশখালীর একটি ফিশিং ট্রলার বোট পানিতে ডুবে যায়। এতে ফিশিং বোটে থাকা নাসির উদ্দিন (২৮) নামের এক জেলে নিহত হয়েছে বলে দাবি করেন খানখানাবাদ ইউনিয়নের কদমরসুল বেড়িবাঁধের উপর কূলে ফিরে আসা জেলেরা। এ ঘটনায় নিখোঁজ রয়েছেন কদমরসুল গ্রামের ইসলাম মিয়ার ছেলে ফোরকান (৪০) ও প্রেমাশিয়া গ্রামের সাইফুল ইসলাম (২৮) নামের জেলে।

মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) দুপুর ১ টায় গভীর বঙ্গোপসাগর এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে। স্থানীয় জনগণ নিখোঁজ জেলেদের সন্ধানে কদমরসুল বেড়িবাঁধের উপর অবস্থান করছেন। রাত ৯টা পর্যন্ত নিখোঁজ জেলেদের সন্ধান পাওয়া যায়নি।

উপকুলে ফিরে আসা জেলে জসিম উদ্দিন, মোক্তার আহমদ, মো. ইকবাল বলেন, মঙ্গলবার সকালে খানখানাবাদ ইউনিয়নে মো. এনাম ও আবুল বশরের মালিকানাধীন এফ.ভি. বড় মৌলানা-১ মাঝিমাল্লাসহ ২২ জন জেলে নিয়ে মাছ ধরার উদ্দেশ্যে ফিশিং বোট নিয়ে গভীর সাগরে বাঁশখালীর সীমান্ত এলাকায় জাল বসানোর চেষ্টা করা হয়। দুপুর ১ টার দিকে সাগরের জাল বসানোর স্থানটি আনোয়ারা গহিরার জেলেরা তাদের স্থান (ফাঁর) দাবি করে তর্ক বিতর্ক ও মাছ ধরার ফিশিং বোটের উপর হামলা করে। এ সময় জেলে মাঝিমাল্লাসহ মাছ ধরার বোটটি ডুবে যায়। মাঝি নাসির উদ্দিন সাতার কেটে উঠার চেষ্টা করলে তার উপর হামলা চলে। এসময় সে জালে আটকে গিয়ে ডুবে যায়।

পশ্চিম বাঁশখালী উপকুলীয় মৎস্য সমবায় সমিতির সভাপতি তারেকুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মো. শোয়াইব বলেন, নাসির উদ্দিনকে বোটে থাকা জেলেরা উদ্ধার করার চেষ্টা করলে তার উপর আবার হামলা করা হয়। তার নিশ্চিত মৃত্যু হয়েছে। তার মরদেহের খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না।

খানখানাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. বদরুদ্দিন চৌধুরী বলেন, সকালে খানখানাবাদ থেকে জেলেরা সাগরে মাছ ধরতে গেলে আনোয়ারা গহিরা জেলেরা জাল বসাতে বাঁধা দিয়ে হামলা করে। এতে নাসির উদ্দিন নামের এক জেলের মৃত্যু হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। দীর্ঘ ৬ ঘণ্টা খোঁজ করার পরেও তার সন্ধান পাওয়া যায়নি।

বাঁশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ শফিউল কবির বলেন, সাগরে মাছ ধরার জন্য জাল বসানো নিয়ে বিরোধের জের ধরে ১ জেলে নিখোঁজ রয়েছে বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে রয়েছে।

কোস্ট গার্ড সূত্রে জানা যায়, কোস্ট গার্ডের চট্টগ্রাম পূর্বাঞ্চলের সিও রুহুল আমিনসহ ১টি টিম ঘটনাস্থলে গেছেন।

পূর্বকোণ/অনুপম/মামুন

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 317 People

সম্পর্কিত পোস্ট