চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২১

সর্বশেষ:

৩ আগস্ট, ২০২১ | ২:৪১ অপরাহ্ণ

রাজীব রাহুল

খলিল শাহ সড়কের বেহাল দশা

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের ৩ নম্বর পাঁচলাইশ ওয়ার্ডের হযরত খলিল শাহ (রাহ.) সড়কের এখন বেহাল দশা। ভোগান্তিতে হাজার হাজার মানুষ। এয়ার আলী হাট (প্রকাশ নয়ার হাট) হয়ে বঙ্গবন্ধু এভিনিউর সাথে সম্পৃক্ত হওয়ায় সড়কটির গুরুত্ব ও ব্যস্ততা বহুগুণ বেড়েছে। সড়কটির প্রায় দেড় কিলোমিটার অংশ কার্পেটিং হলেও মাঝখানে কয়েকশ’ ফুটের কাজ বাকি রয়ে গেছে।

বর্ষায় এই অংশে বড় গর্ত সৃষ্টি হওয়ায় আটকে যাচ্ছে যানবাহন। সড়কটির ইসলামী ব্যাংক ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি গেট থেকে শুরু করে ভক্তপুর মদিনা গার্মেন্টসের দক্ষিণ পাশ পর্যন্ত ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে গেছে। রবিবার (১ আগস্ট) দুপুর দেড়টায় সরেজমিন পরিদর্শনকালে রহমান নামের একজন পথচারী জানান, সড়কটির নয়ার হাট ও কালারপুল অংশের ঠিক মাঝখানে বড় গর্ত সৃষ্টি হয়েছে । এই অংশটুকু সংস্কারে কোন উদ্যোগে দেখা যাচ্ছে না।

অথচ চৌধুরী হাট, বড়দিঘির লালিয়ার হাট, আমানবাজার, খন্দকিয়া হাট, বালুছড়া বটতলসহ বহু রুটের গাড়ি বিকল্প সড়ক হিসেবে এটিকে ব্যবহার করে থাকে। তিনি আরো বলেন, সিএনজি ট্যাক্সিতে করে আমি রোগী নিয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ফিরছিলাম। ট্যাক্সি গর্তে আটকে যাওয়ায় চালকসহ দুজনে অনেক চেষ্টা করেও তুলতে পারিনি। পরে আশপাশের লোকেরা এসে ট্যাক্সিটি উদ্ধার করে। স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এ সড়কের বেহাল দশার কারণে প্রায়ই এখানে গাড়ি আটকে যায় কিংবা উল্টে অচল হয়ে যায়।

জানতে চাইলে ৩ নম্বর পাঁচলাইশ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শফিকুল ইসলাম বলেন, চসিকের নির্বাহী প্রকৌশলী শাহীন উল ইসলাম চৌধুরী জানিয়েছেন সড়কটি সংস্কারের জন্য যে ঠিকাদার নিয়োগ করা হয়েছিল। তাদেরকে কিছু টাকা পরিশোধ করা হয়েছে। কিছু টাকা বাকি থাকায় সেই ঠিকাদার কাজ ফেলে চলে গেছেন ।

অপরদিকে চসিকের নির্বাহী প্রকৌশলী শাহীন-উল ইসলাম চৌধুরী জানিয়েছেন, বিষয়টি এমন নয়। সড়কটি সংস্কারের জন্য কোনো বাজেট  নেই। চসিক নিজ উদ্যোগে এটার কাজ করছে। করোনার কারণে লকডাউনে লোকজন বাড়িতে যাওয়ায় কাজ বন্ধ আছে। আশা করছি ১০/১৫ দিনের মধ্যে সড়কের কাজ পুনরায় শুরু হবে।

পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 300 People

সম্পর্কিত পোস্ট