চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২১

সর্বশেষ:

৩১ জুলাই, ২০২১ | ১২:১৫ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

চট্টগ্রামের শীর্ষ ছিনতাইকারী যখন টিকটকার!

সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি টিকটকার হিসেবে পরিচিত। কিন্তু তিনি আসলে একজন নারী ছিনতাইকারী। তার বিরুদ্ধে রয়েছে ৮টি মামলা। টিকটকার এই ছিনতাইকারী চট্টগ্রামের প্রথম নারী ছিনতাইকারী হিসেবেও পরিচিত। শুক্রবার (৩০ জুলাই) গভীর রাতে ডবলমুরিংয়ের আগ্রাবাদ এলাকা থেকে ফারজানা বেগম নামের এমনই এক ছিনতাইকারীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, গ্রেপ্তার ফারজানার স্বামী রুবেল মাত্র ২ দিন আগে এলজি ও ছোরাসহ গ্রেপ্তার হয়েছিল। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ১১টি মামলা রয়েছে। তারা স্বামী-স্ত্রী মিলেই একটি ছিনতাই চক্র গড়ে তুলেছে।

ডবলমুরিং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন বলেন, ফারজানা টিকটক ও লাইকি করে। কিন্তু সে মূলত একজন দুর্ধর্ষ ছিনতাইকারী। কিশোরদের নিয়ে তার নিজস্ব একটি ছিনতাইকারী দলও আছে। সে ছেলে-মেয়েদের কাছ থেকে আলাদা কৌশলে ছিনতাই করে। সে একা চলাচলরত কোনো ছেলেকে প্রথমে টার্গেট করে। এরপর ঠিকানা জিজ্ঞেস করার নামে তাকে থামায়। ছেলে থামলেই ছোরা দেখিয়ে তার কাছে থাকা টাকা ও মোবাইল দিয়ে দিতে বলে নতুবা তার বিরুদ্ধে ‘ ইভটিজিং’ ও ‘যৌন হেনস্থার অভিযোগ আনার হুমকি দেয়। এতে ভয়ে সবকিছু দিয়ে দেয় ছেলেরা। আর মেয়েদেরও ঠিকানা জিজ্ঞেস করার ভান করে থামায়। এরপর ছোরার ভয় দেখিয়ে সব ছিনিয়ে নেয়।

ওসি মহসিন আরও বলেন, ফারজানার স্বামী রুবেল মাত্র ২ দিন আগে এলজি ও ছোরাসহ গ্রেপ্তার হয়েছিল। বর্তমানে রিমান্ডে আছে। ১১ মামলার আসামি রুবেল বর্বর প্রকৃতির ছিনতাইকারী। সে মেয়েদের গলার চেইন, কানের দুল ছিনতাই করে। এক্ষেত্রে অনেক সময়ই কান ছিড়ে যায়, গলা কেটে যায়।

পূর্বকোণ/এএইচ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 613 People

সম্পর্কিত পোস্ট