চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২১

সর্বশেষ:

২৯ জুলাই, ২০২১ | ৯:৪৮ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

জেলা প্রশাসনের অভিযান: চট্টগ্রামে ১৪২ মামলায় ৫৮ হাজার টাকা জরিমানা

চলমান লকডাউনে বিধিনিষেধ অমান্য করায় ১৪২ মামলায় ৫৮ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) দিনব্যাপী নগরীর বিভিন্নস্থানে এই অভিযান পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসনের ১৮ জন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট, বিআরটিএ চট্টগ্রামের ২ জন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের একজন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেটসহ ২১ জন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট।

এ সময় লকাডাউনে ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় জনগণের মধ্যে ১২০০ প্যাকেট খাবার বিতরণ করেন ম্যাজিস্ট্রেটগণ।

চকবাজার, বাকলিয়া ও কর্ণফুলী এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট নাঈমা ইসলাম। আকবরশাহ, বায়েজিদ, হালিশহর ও পাহাড়তলী এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আতিকুর রহমান ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট জিসান বিন মাজেদ। খুলশী, চান্দগাঁও ও পাঁচলাইশ এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো. মাসুদ রানা ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট হুছাইন মুহাম্মদ। এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ ইনামুল হাছান ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো. আশরাফুল আলম হালিশহর, পাহাড়তলী এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন।

ফিরিঙ্গীবাজার সদরঘাট ও ডবলমুরিং এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট এহসান মুরাদ ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট সুজন চন্দ রায়। হালিশহর, বায়েজিদ ও আকবরশাহ এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট  সুরাইয়া ইয়াসমিন ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট রেজওয়ানা আফরিন। বন্দর, পতেঙ্গা ও ইপিজেড এলাকায় অভিযান পরিচালনায় করেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট হিমাদ্রি খীসা ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট পিযুষ কুমার চৌধুরী।

অন্যদিকে নতুনব্রিজ, মইজ্জারটেক এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন বিআরটিএ’র এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট শান্তনু কুমার দাশ ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট শাহারিয়ার মুক্তা। বাকলিয়া, চকবাজার, চান্দগাঁও, পাঁচলাইশ, হালিশহর, পাহাড়তলী, লালখানবাজার এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মারুফা বেগম নেলী। করোনার বিস্তার রোধে জেলা প্রশাসন চট্টগ্রামের এই অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট উমর ফারুক চৌধুরী।

পূর্বকোণ/আরআরক/এএইচ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 312 People

সম্পর্কিত পোস্ট