চট্টগ্রাম সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২১

সর্বশেষ:

২৪ জুলাই, ২০২১ | ১১:৫৩ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

দ্বিতীয় দিনে ১৮৪ মামলায় ৫২ হাজার টাকা জরিমানা

কঠোর লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে ১৮৪ মামলায় ৫২ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। শনিবার ( ২৪ জুলাই) দিনব্যাপী জেলা প্রশাসনের ১৮ জন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ও বিআরটিএ’র ২ জন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেটসহ মোট ২১ জন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মহানগরীর বিভিন্ন স্থানে এই মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন ।

নগরীর ডবলমুরিং, সদরঘাট এলাকায় অভিযান পরিচালনায় করে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মাসুমা জান্নাত ১৪ মামলায় মোট ৩২৫০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন। পতেঙ্গা, ইপিজেড ও বন্দর এলাকায় এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট  মোহাম্মদ আতিকুর রহমান ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট রেজওয়ানা আফরিন ৩১ মামলায় ৮৮৪০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করা করেন। পাশাপাশি হালিশহর ও পাহাড়তলি এলাকায় এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট  আশরাফুল হাসান ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট সুজন চন্দ্র রায় ১০ মামলায় মোট ১০৫০০টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন। বায়েজিদ ও আকবরশাহ এলাকায় এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোজাম্মেল হক চৌধুরী ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট  গালিব চৌধুরী ২২ মামলায় ৪৬০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন ।

এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট নাঈমা ইসলাম ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মামনুন আহমেদ অনিক চকবাজার, বাকলিয়া ও কর্ণফুলী এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন ১৮ টি মামলায় ৪১০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করা হয়। চান্দগাঁও, পাঁচলাইশ ও খুলশী এলাকায় এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো. জিল্লুর রহমান ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট প্লাবন কুমার বিশ্বাস ২৪ মামলায় ৪০০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন। এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো. রাজিব হোসেন বন্দর ও ইপিজেড এলাকায় ১০ মামলায় ১৯০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন। অন্যদিকে পতেঙ্গা, ইপিজেড, বন্দর ডবলমুরিং, সদরঘাট, খুলশী, বায়েজিদ, আকবরশাহ এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট উমর ফারুক ৬ মামলায় ২৪০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন।

বাকলিয়া, চকবাজার, চান্দগাঁও, পাঁচলাইশ, হালিশহর, পাহাড়তলি, কর্ণফুলী এলাকায় এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট হুছাইন মুহাম্মদ, আব্দুল্লাহ আল মামুন ও প্রতীক দত্ত ৩৪ মামলায় মোট ১০২০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন। এছাড়া বিআরটিএ, চট্টগ্রামের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট শাহারিয়ার মুক্তার ও শান্তনু কুমার দাস নিউমার্কেট, নতুনব্রীজ এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ১৯ টি মামলায় মোট ৮৮০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন।

পূর্বকোণ/আরআর/পারভেজ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 290 People

সম্পর্কিত পোস্ট