চট্টগ্রাম শনিবার, ৩১ জুলাই, ২০২১

সর্বশেষ:

১৪ জুন, ২০২১ | ১:০৯ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক 

কারসাজি করে চালে কৃত্রিম সংকট !

গত কয়েকদিনের মধ্যে পাইকারি বাজারে চাউলের দাম হঠাৎ বেড়ে গেছে। ব্যবসায়ীরা অভিযোগ করেছেন, ধান-চালের এই ভরা মৌসুমে দাম কমার কথা থাকলেও মিল মালিকরা কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে চাউলের দাম বাড়িয়েছে।

পাহাড়তলী বাজারের পাইকারি চাল ব্যবসায়ী এস এম নাজিম উদ্দিন পূর্বকোণকে জানান, কয়েকদিন ধরে চালের দাম ক্রমান্বয়ে বাড়ছে। প্রতি বস্তায় দু’শ থেকে তিনশ’ টাকা পর্যন্ত বেড়ে গেছে। জিরাশাইল এখন বস্তা বিক্রি হচ্ছে ২৮০০ টাকায়। তিন দিন আগেও ২৫৫০ থেকে ২৬০০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। মিনিকেট ২২০০ টাকা থেকে বেড়ে ২৪৫০ থেকে ২৫০০ টাকা। নাজিরশাইল ২৭০০ থেকে ৩০০০ টাকা, কাটারি আতপ ২৬০০ থেকে বেড়ে ২৮৫০ টাকা হয়েছে।

ব্যবসায়ীরা মিল মালিকদের অভিযুক্ত করে বলেন, সরকার মিল মালিকদের সাথে চালের জন্য চুক্তি করেছে। এখন মিল মালিকরা দেশিয় ধান স্টক করে কৃত্রিম সংকট তৈরি করেছে। যে সব কোম্পানি প্যাকেটজাত করে সারাবছর চাল বিক্রি করে তারাও এই সময়ে চাল সংগ্রহ করছে। অথচ তাদের মিল নেই। তারাও বাজারে চাহিদা বাড়িয়ে দিয়েছে। এ কারণে ধান চালের এই ভরা মৌসুমেও চালের দাম বেড়ে গেছে। অথচ এই সময়ে ধান-চালের দাম কমতো।

চাক্তাইয়ের চাল ব্যবসায়ী জামাল উদ্দিন পূর্বকোণকে বলেন, চালের দাম বৃদ্ধির জন্য উত্তরবঙ্গের চাল মিল মালিকদের সিন্ডিকেট দায়ী। এখন চালের বাজার পুরোটাই তাদের নিয়ন্ত্রণে। কাটারিভোগ চালের বস্তা ১২৯০ থেকে বেড়ে ১৩৮০ টাকা হয়ে গেছে। ভারতীয় নাজিরশাইলের কেজি ছিল ৫৩ টাকা। এখন ৬১ টাকায় উঠে গেছে। বেতি চালের বস্তা ২৯০০ টাকা থেকে ৩৬০০ টাকায় উঠে গেছে। প্রায় সব ধরনের চালের দাম কেজিতে কয়েক টাকা বেড়ে গেছে।

পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 191 People

সম্পর্কিত পোস্ট