চট্টগ্রাম বুধবার, ২৩ জুন, ২০২১

৭ মে, ২০২১ | ১২:০৯ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

চমেকে ভর্তি ভারতফেরত ১০ রোগী, হাসপাতাল এলাকায় আতঙ্ক

ভারত থেকে চিকিৎসা নিয়ে ফিরে আসা ১০ জন রোগী চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। শুক্রবার (৭ মে) ভোরে তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বতর্মানে তারা হাসপাতালের ২৯ নম্বর ওয়ার্ড ও ১৬ নম্বর ওয়ার্ডে রাখা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই শিলব্রত বড়ুয়া বলেন, চিকিৎসা শেষে গত ৪ মে ভারত থেকে বেশ কয়েকজন রোগী বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে আসেন। এদের সবাইকে সরকার যার যার জেলা হাসপাতালে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে নির্দেশনা দেন। তারই ধারাবাহিকতায় চট্টগ্রামের ১০ জন চমেক হাসপাতালে কোয়ারেন্টাইন পালন করতে আসেন। এদের মধ্যে সাতজনকে ২৯ নম্বর ওয়ার্ডে ও তিনজনকে ১৬ নম্বর মেডিসিন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, অসুস্থ হয়ে ১৬ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তিকৃত রোগীরা হলেন- চন্দানাইশের ইলিয়াছের ছেলে জাকারিয়া (৩৪), ফটিকছড়ির ইউসুফের মেয়ে রহিমা বেগম (৪৬) ও কর্ণফুলীর ইকবাল আহমেদের স্ত্রী পারভিন আক্তার (৪১)।

একই সময়ে হাসপাতালের ২৯ নম্বর ওয়ার্ডে কোয়ারেন্টাইনে ভর্তি হওয়া রোগীরা হলেন- পটিয়ার ফজল করিমের ছেলে রেজাউল করিম রাজু (২৪), চন্দনাইশের ইউসুফের মেয়ে হাসমত আরা বেগম (৫২) ও ফজল কাদেরের মেয়ে আয়শা সুলতানা (২৪), ফটিকছড়ির ইউসুফের ছেলে ইকবাল হোসেন (২৪), একই উপজেলার জহুরের ছেলে রমজান আলী (২১), কর্ণফুলীর মৃত রশিদ আলীর ছেলে আনিছুর রহমান ও একই উপজেলার ইকবাল আহমেদের মেয়ে ফাহমিদা ইয়াসমিন (১৯)।

এদিকে ভারতফেরত এসব রোগী ভর্তি হওয়ায় পুরো হাসপাতাল এলাকায় একধরনের আতঙ্ক তৈরি হয়েছে।

জানা গেছে, কয়েকদিন আগে চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ইউনিভার্সিটি (সিভাসু) উপাচার্যের নেতৃত্বে একদল শিক্ষক চট্টগ্রামের করোনার ধরন নিয়ে পরীক্ষা করেন। এসব পরীক্ষায় যুক্তরাজ্য, দক্ষিণ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে ভারতের করোনার ধরন মিলছে। কিন্তু ভারতীয় কোনো ধরন নমুনা পরীক্ষায় পাওয়া যায় নি। এ নিয়ে চট্টগ্রামবাসী একটু স্বস্তিও পেয়েছিল। তবে এবার ভারতীয় ধরন ছড়ানোর ভয় চট্টগ্রামবাসীর মধ্যে কাজ করছে।

পূর্বকোণ/এএইচ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 3931 People

সম্পর্কিত পোস্ট