চট্টগ্রাম সোমবার, ১০ মে, ২০২১

২৩ এপ্রিল, ২০২১ | ৯:৪৫ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

স্বাস্থ্যবিধি অমান্য : ৪৫ মামলায় ১৯ হাজার টাকা জরিমানা

করোনার সংক্রামণ ঠেকাতে চলমান লকডাউনে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে নগরের ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ৪৫ মামলায় ১৯ হাজার ১৯০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।  শুক্রবার ( ২৩ এপ্রিল) চট্টগ্রাম জেলা প্রসাশনের ১২ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নগরীর বিভিন্ন স্থানে দিনব্যাপী অভিযান চালিয়ে এই জরিমানা করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সোহেল রানা নগরীর পাহাড়তলী হালিশহর ও আকবরশাহ এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করার সময় ৬ টি মামলায় ১ হাজার ৭০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন। এ সময় অধিকাংশ সাধারণ মানুষ কে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে দেখেন এবং সচেতনতার লক্ষ্যে জেলা প্রশাসনের পক্ষে মাস্ক বিতরণ করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এহসান মুরাদ পতেঙ্গা ইপিজেড ও বন্দর এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনাকালে ৫ টি মামলায় ৪শ ৪০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন। সচেতনতার পাশাপাশি সাধারণ মানুষের মাঝে মাস্ক বিতরণ করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ ইনামুল হাছান পাহাড়তলী হালিশহর ও আকবরশাহ এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করার সময় ১ টি মামলায় ৫শ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন। এছাড়াও সর্বাত্মক লকডাউন মেনে চলার ব্যাপারে জনসাধারণকে সচেতন করেন এবং জেলা প্রশাসনের পক্ষে মাস্ক বিতরণ করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জনাব মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরী নগরীর পাঁচলাইশ বাকলিয়া ও চকবাজার এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করার সময় ১০ টি মামলায় ৭ হাজার ৫০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন এবং লকডাউন ও স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার ব্যাপারে জনসাধারণকে সচেতন করেন। এছাড়াও সাধারণ মানুষের মাঝে মাস্ক বিতরণ করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট গালিব চৌধুরী নগরীর পতেঙ্গা ইপিজেড ও বন্দর এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করার সময় ৪ টি মামলা দায়ের করে ১ হাজার ৬০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন। এছাড়াও সাধারণ মানুষের মাঝে মাস্ক বিতরণ করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রেজওয়ানা আফরিন শহরের কোতোয়ালি সদরঘাট ও ডবলমুরিং এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করার সময় ৪ টি মামলায় ৩ হাজার টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন। অধিকাংশ সাধারণ মানুষকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে দেখেন এবং জেলা প্রশাসন, চট্টগ্রামের পক্ষ হতে মাস্ক বিতরণ করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফাহমিদা আফরোজ নগরীর খুলশী বায়েজিদ ও চান্দগাও এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করার সময়  ৬ টি মামলায় ২ হাজার ৩০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন এবং সচেতনতার পাশাপাশি মাস্ক বিতরণ করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুরাইয়া ইয়াসমিন নগরীর কোতোয়ালি সদরঘাট ও ডবলমুরিং এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ২ টি মামলায় ১ হাজার টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন। এ সময় অধিকাংশ সাধারণ মানুষকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে দেখা যায় এবং মাস্ক বিতরণ করা হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হুছাইন মুহাম্মদ নগরীর পাঁচলাইশ বাকলিয়া ও চকবাজার এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করার সময় ৩ টি মামলায় ৩০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন এবং মাস্ক বিতরণ করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সোনিয়া হক নগরীর খুলশী বায়েজিদ ও চান্দগাও এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ৪ টি মামলায় ৮৫০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন। এছাড়াও লকডাউন সফল করার লক্ষ্যে সন্ধ্যার পর থেকে আরও দুইজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মিজানুর রহমান ও আব্দুল্লাহ আল মামুনের নেতৃত্বে চট্টগ্রাম মহানগরীর বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে।

পূর্বকোণ / আরআর/পারভেজ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 199 People

সম্পর্কিত পোস্ট