চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ১১ মে, ২০২১

সর্বশেষ:

২৩ এপ্রিল, ২০২১ | ১:১৫ অপরাহ্ণ

মো. দেলোয়ার হোসেন, চন্দনাইশ

চন্দনাইশে করোনা ছাপিয়ে ডায়রিয়ার প্রকোপ

করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির পাশাপাশি গত ১ সপ্তাহ ধরে ডায়রিয়া আক্রান্তের সংখ্যাও চন্দনাইশ আশংকাজনক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। গত ৫ দিনে চন্দনাইশ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৩৫ জন ও দোহাজারীতে ২১ জন ডায়রিয়া রোগী ভর্তি হয়েছে। চিকিৎসকদের মতে করোনোভাইরাসের ৫টি লক্ষণের মধ্যে ডায়রিয়া ১টি। রমজানে বাইরে ইফতার করা, হঠাৎ তাপমাত্রা বৃদ্ধি ও আবহাওয়া পরিবর্তনের কারণে ডায়রিয়ার প্রকোপ বৃদ্ধি পেয়েছে বলে জানান।

প্রতিদিন বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। গতকাল বৃহস্পতিবার দোহাজারীতে ১৫, চন্দনাইশে ৭; আগের দিন ২১ এপ্রিল চন্দনাইশে ১০; ২০ এপ্রিল ৬; ১৯ এপ্রিল ৮; ১৮ এপ্রিল ৪ জনসহ ৩৫ জন ডায়রিয়া রোগী ভর্তি হয়েছে। চন্দনাইশ ও দোহাজারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বেড খালি না থাকায় রোগীরা ঠাঁই নিয়েছেন হাসপাতালের মেঝেসহ আশপাশের বারান্দায়। করোনা পরিস্থিতির মধ্যে ডায়রিয়ার প্রকোপে বিপাকে পড়েছেন চিকিৎসকরা।

পুরুষ ও মহিলা ওয়ার্ডে সংকুলন না হওয়ায় বাধ্য হয়ে তাদের হাসপাতালের মেঝে, বারান্দায় শুয়ে চিকিৎসা নিতে হচ্ছে। চন্দনাইশ ও দোহাজারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, গত ১ সপ্তাহ ধরে হঠাৎ ডায়রিয়ার প্রকোপ বৃদ্ধি পেয়েছে। চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন প্রায় ২০ জন।

প্রতিদিন আউটডোরে চন্দনাইশ ও দোহাজারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অন্যান্য সময়ের তুলনায় ডায়রিয়া রোগী ৩ গুন, তথা ২’শ জনের মধ্যে ৬০ থেকে ৭০ জন ডায়রিয়া রোগী। এদের মধ্যে শিশুসহ সকল বয়সের ডায়রিয়া রোগী রয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য প.প.কর্মকর্তা ডা. শাহীন হোসাইন চৌধুরী। বর্তমানে চন্দনাইশ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি আছেন ১৫ জন, দোহাজারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১২ জন ডায়রিয়া রোগী ভর্তি রয়েছে।  গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে সরেজমিন চন্দনাইশ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে দেখা যায়, পুরুষ ও মহিলা ওয়ার্ডে ডায়রিয়া রোগীদের জন্য কোন আলাদা বেড না থাকলেও কর্নার রয়েছে। এ হাসপাতালে গত এক সপ্তাহে প্রায় ৩৫-৪০ জন ডায়রিয়া রোগী ভর্তি হয়। এছাড়া বহির্বিভাগে চিকিৎসা নিয়েছে আরো প্রায় ১০০-১২০ জন।

এছাড়া গত সপ্তাহে বহির্বিভাগে শতকরা ৮০ জন ডায়রিয়া রোগী চিকিৎসা নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. আবু তৈয়ব। প্রায় আড়াই লক্ষাধিক মানুষের চিকিৎসার ভরসাস্থল চন্দনাইশ ও দোহাজারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। গ্রামে বাড়ছে ডায়রিয়ার প্রকোপ, হাসপাতালে বাড়ছে রোগীর ¯্রােত।  এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ শাহীন হোসাইন চৌধুরী বলেন, গত এক সপ্তাহ ধরে এ দুই হাসপাতালে ডায়রিয়া রোগীর সংখ্যা দিনের পর দিন বেড়ে চলছে। এতে সাধারণ মানুষের ভীত হওয়ার কোন কারণ নেই। সবাই যদি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকে এবং  প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলে, তাহলে খুব তাড়াতাড়ি এ থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
  • 184
    Shares
The Post Viewed By: 221 People

সম্পর্কিত পোস্ট