চট্টগ্রাম সোমবার, ১৭ মে, ২০২১

সর্বশেষ:

২১ এপ্রিল, ২০২১ | ১১:৫০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

উচ্চ সংক্রমণশীল এলাকা: বাঁশ-ত্রিপল দিয়ে রাস্তা বন্ধ

নগরীর চিহ্নিত উচ্চ সংক্রমণশীল এলাকায় জনসচেতনার কাজ অব্যাহত রেখেছে পুলিশ প্রশাসন। গত সোমবার উচ্চ সংক্রমণশীল এলাকাগুলো চিহ্নিত করার পর থেকেই সচেতনা বৃদ্ধিতে কাজ করে যাচ্ছে সংশ্লিষ্টরা। তবে বেশ কিছু এলাকায় বাঁশ-ত্রিপল দিয়ে চলাচলের রাস্তা বন্ধ করায় ভোগান্তিতে পড়েছেন সাধারণ মানুষ।

সরেজমিনে দেখা যায়, নগরীর খুলশী থানাধীন ডেবারপাড়, হাইলেভেল রোড, মতিঝর্ণা, টাঙ্গি পাহাড়, সর্দার বাহাদুর নগর, ঝাউতলাসহ বেশ কিছু এলাকায় সড়কের মধ্যে বাঁশ দিয়ে যাতায়াত বন্ধ রাখা হয়েছে। একই চিত্র ছিল পাহাড়তলী থানাধীন মৌসুমী আবাসিক, নয়াবাজার, সরাইপাড়া পদ্ম পুকুর পাড়সহ এলাকাগুলোতে। যদিও ব্যতিক্রম চিত্র ছিল মৌসুমী আবাসিক এলাকায়। যেখানে ত্রিপল দিয়ে সড়ক বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। কিন্তু আবাসিকের ভেতরেই চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।

মৌসুমী আবাসিক এলাকার বাসিন্দা মিনহাজ তুহিন বলেন, সোমবার বিকেল থেকে এই এলাকাকে রেড জোন ঘোষণা করা হয়েছে বলে প্রচার করা হয়। আবাসিকের দুই প্রবেশ পথে ব্যারিকেট, রেড জোন বলতে এতটুকুই। মানুষের চলাফেরা, দোকানপাট, আড্ডা সবকিছুই স্বাভাবিকভাবে চলছে। পাহাড়তলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাসান ইমাম বলেন, পুলিশের পক্ষ থেকে শুধুমাত্র সচেতনার লক্ষ্যে প্রচারণা চালানো হচ্ছে। একই সাথে কয়েকটি স্থানে সচেতনতা বৃদ্ধিতে কিছু ব্যনার টাঙানো হয়েছে। খুলশী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিনুজ্জামান বলেন, ‘যেহেতু এসব এলাকায় সংক্রমণের মাত্রা বেশি। তাই উচ্চ সংক্রমণশীল এলাকা হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। এরজন্য এলাকাগুলোতে প্রচার প্রচারণা বিদ্যমান রয়েছে। যত্রতত্র  চলাফেলা বন্ধ, একসাথে একাধিক লোকজন যেন জড় না হয় তার জন্য এমন ব্যবস্থা’।

১৪ নম্বর লালখান বাজার ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবু হাসনাত বেলাল বলেন, থানা থেকে জানানো হয়েছে ওয়ার্ডের চারটি এলাকায় রোগীর সংখ্যা বেশি। তাই রেড জোন ঘোষণা করা হয়েছে। তারা এসেই বাঁশ দিয়ে চলাচল বন্ধ করেছেন। আমরা তাদের সহযোগিতা করেছি। তবে সেটি সন্ধ্যায় আবার সরিয়ে নেয়া হয়েছে’।

পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
  • 113
    Shares
The Post Viewed By: 447 People

সম্পর্কিত পোস্ট