চট্টগ্রাম সোমবার, ১৭ মে, ২০২১

সর্বশেষ:

২১ এপ্রিল, ২০২১ | ১১:৩২ পূর্বাহ্ণ

রাজীব রাহুল

গাড়ির সঙ্গে থেমে গেছে জীবিকার চাকাও

লকডাউনের কারণে গণপরিবহন চলাচল বন্ধের পর বাস চালক নুর হোসেন ভ্যান নিয়ে সবজি বিক্রিতে নামেন। পুলিশের পিটুনি খেয়ে সেটাও বন্ধ হয়ে গেছে তার। সংসার চালাতে দেনা করেন মুদি দোকানে। রবিবার মুদি দোকানিও বাকিতে চাল-ডাল দিতে অপারগতার কথা জানান তাকে।

পরিবারের ৫ সদস্যের মুখে ইফতার ও সেহরিতে খাবার কীভাবে তুলে দেবেন- সেই দুশ্চিন্তায় নগরীর দেওয়ান বাজার এলাকার ওই মুদি দোকানের সামনেই হতাশা নিয়ে দাঁড়িয়েছিলেন নুর হোসেন। সেখানেই গাড়ির সঙ্গে তার জীবিকার চাকা বন্ধের গল্প শোনান দৈনিক পূর্বকোণকে। শুধু বাস চালক নুর হোসেন নন, লকডাউনের কারণে গণপরিবহন বন্ধ থাকায় জীবিকা নিয়ে বিপাকে পড়েছেন চট্টগ্রামের বিভিন্ন এলাকার প্রায় ৫০ হাজার গণপরিবহন শ্রমিক। গত বছর করোনা পরিস্থিতিতে ব্যাপক হারে ত্রাণ বিতরণ করা হলেও এবার সেটাও না থাকায় মানবেতর জীবন যাপন করছেন তারা।

চট্টগ্রাম জেলা সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের অতিরিক্ত মহাসচিব মো. ইউনুচ জানান, করোনার চলতি বছরে চট্টগ্রামের পরিবহন শ্রমিকরা এখন পর্যন্ত সরকারি বা বেসরকারি কোনো সহযোগিতা পাননি। চট্টগ্রাম উত্তর, দক্ষিণ, মহানগর ও আন্তঃজেলায় মোট ৫০ হাজারের বেশি পরিবহন শ্রমিক আছে। তারা সবাই মানবেতর জীবন যাপন করছে। চট্টগ্রাম অটো রিকশা-টেম্পো শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম খোকন বলেন, করোনা ঠেকাতে গণপরিবহন বন্ধ থাকতে হবে ঠিক আছে। কিন্ত গণপরিবহন শ্রমিকরা চলবে কী করে, তারও বিকল্প থাকা দরকার। তাদেরও পরিবার আছে। আমরা তো বলছি না, নির্দেশনা মানবো না। আমাদের পাশে সরকারকে দাঁড়ােেত হবে।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমান বলেন, করোনাকালে যেসব শ্রমজীবী মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছেন বা কষ্টে আছেন তাদের প্রত্যেকের হাতে ত্রাণ পৌঁছে দিতে প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন। প্রত্যেককে পর্যায়ক্রমে ত্রাণের আওতায় আনা হবে।

পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 189 People

সম্পর্কিত পোস্ট