চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ১৮ মে, ২০২১

সর্বশেষ:

২০ এপ্রিল, ২০২১ | ১২:২৫ অপরাহ্ণ

হারুনুর রশিদ ছিদ্দিকী, পটিয়া

জমির টপসয়েল কাটা চলছেই পটিয়ায়

সারাদেশে করোনা মহামারী রোধে সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক ১ সপ্তাহ লকডাউনের সুযোগে পটিয়ায় শুরু হয়েছে চাষাবাদের জমি থেকে টপসয়েল কাটার মহোৎসব।

স্থানীয়দের অভিযোগ, কয়েকটি সিন্ডিকেট প্রশাসনকে ম্যানেজ করে প্রতিদিন পাহাড় ও ফসলি জমির টপসয়েল কেটে নিচ্ছে। এতে পাহাড়ি বনভূমি যেমন ধ্বংস হচ্ছে, তেমনি কৃষিজমির পরিমাণ দিন দিন কমে যাচ্ছে। তাছাড়া ইটভাটা, বসতভিটা ও পুকুর ভরাট কাজে ব্যবহৃত হচ্ছে এসব মাটি।

ভূমি আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে এক শ্রেণির দালাল ফসলি জমির টপসয়েল কেটে উজাড় করছে। এ ব্যাপারে পটিয়ার এমপি সামশুল হক চৌধুরী প্রশাসনকে কঠোর নির্দেশ দিলে কিছুদিন বন্ধ থাকে টপসয়েল কাটা। তবে বর্তমানে লকডাউনের সুযোগে সেই সিন্ডিকেট ফসলি জমি ও পাহাড় থেকে টপসয়েল কেটে উজাড় করছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, উপজেলার কচুয়াই ও খরনা ইউনিয়নের পাহাড়ি এলাকা, লালরখীল, শহীদ শাহ আলম স্কুলের পাশে ও কাঞ্চননগর চা বাগান (পটিয়া অংশ) এলাকায় মাটি কাটা চলছে। পাঁচুরিয়া ব্রিক ফিল্ড এলাকায় বিভিন্ন এলাকা থেকে নৌকাযোগে টপসয়েল আনা হচ্ছে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই মাটি কাটার গভীরতার পরিমাণ ৫ থেকে ১০ ফুট পর্যন্ত ছাড়িয়ে যাচ্ছে। এতে কোথাও কোথাও অর্থনৈতিক ও অনৈতিক আগ্রাসনে পার্শ্ববর্তী মালিকের জমিও নষ্ট হচ্ছে।

মাটি কাটার এই সিন্ডিকেট ইতিপূর্বে হাইদগাঁও সাতগাউছিয়া মাজারের পূর্বে, হাইদগাঁও জিয়ারপাড়া, হাইদগাঁও দিঘির পাড় কালীবাড়ি এলাকা, গুচ্ছগ্রাম, কেলিশহর মডেল টাউন, খিল্লাপাড়া, ছত্তারপেটুয়া, নাগাটা বিল, মা ফাতেমা মাজারের পাশে, রতনপুর বড়–য়ার টেকের গোয়ালপাড়া, মৌলভী হাট হযরত আবদুল কাদের জিলানী (রা.) মাজারের পাশে, বরলিয়া, ধলঘাট প্রবাহ স্টোরসহ ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় এস্কেভেটর দিয়ে কৃষিজমি হতে মাটি কেটেছে বলে অভিযোগ আছে। মাটি কেটে ট্রাক, ড্রাম, মিনি পিকআপ ও ট্রলি ভর্তি করে এরা সরবরাহ করে বিভিন্ন স্থানে।

এ বিষয়ে পটিয়া থানার ওসি রেজাউল করিম মজুমদার জানান, যেখানে মাটি কাটার খবর পাচ্ছি সেখান থেকে গাড়ি আটক করছি। তবে বর্তমানে কোথায় মাটি কাটছে জানা নাই। সঠিক তথ্য পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 203 People

সম্পর্কিত পোস্ট