চট্টগ্রাম বুধবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২১

সর্বশেষ:

৭ এপ্রিল, ২০২১ | ১০:০০ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

গোপনে কলেজছাত্রীর ভিডিও ধারণের অভিযোগে ২ শিক্ষার্থী গ্রেপ্তার

চট্টগ্রাম নগরীর পাঁচলাইশ থানায় কলেজ ছাত্রীর গোপনে ধারণ করা ভিডিও ছড়ানোর অভিযোগে দুই শিক্ষার্থীকে গ্রেপ্তার করেছে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট। বুধবার (৭ এপ্রিল) সকালে নগরীর পাঁচলাইশ থানার প্রবর্তক সংঘের পাহাড়ে ও নন্দনকানন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন নগর পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার আসিফ মহিউদ্দীন।

গ্রেপ্তারকৃতরা হল:  অভিষেক সেন শর্মা (১৯) ও আদিত্য বড়ুয়া (১৮)।  অভিষেক চট্টগ্রাম ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটির বিবিএ ও আদিত্য সেন্টপ্লাসিড স্কুল অ্যান্ড কলেজের এইচএসসির শিক্ষার্থী।

অতিরিক্ত উপ-কমিশনার আসিফ মহিউদ্দীন জানান, বুধবার নগরীর পাঁচলাইশ থানায় দায়ের করা মামলায় কলেজ ছাত্রী অভিযোগ করেছেন, গত ২৯ মার্চ রাতে তার ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে এবং হোয়াটস অ্যাপে বাসায় পোশাক পাল্টানোর ভিডিও পাঠায় অভিষেক। ছাত্রী এবং তার মা অভিষেকের সঙ্গে যোগাযোগ করলে সে জানায়, এ ধরনের আরও ভিডিও সে বিভিন্নজনের ম্যাসেঞ্জারে পাঠিয়েছে। সেগুলো পর্ণসাইটে আপলোডের হুমকি দিয়ে সে নয় হাজার টাকা দাবি করে। এজন্য একটি ‘নগদ’ অ্যাকাউন্টের নম্বরও অভিষেক পাঠায়।

কিন্তু তারা টাকা পাঠানোর সময় দেখেন সেটা ‘বিকাশ’ অ্যাকাউন্টের নম্বর। তখন টাকা পাঠানো থেকে বিরত থাকেন তারা। কিন্তু টাকা না পাঠানোয় অভিষেক ক্ষিপ্ত হয়ে ওই ছাত্রীকে তার মায়েরও একই ধরনের কয়েকটি ভিডিও ফেসবুক এবং হোয়াটস অ্যাপে পাঠায়। এরপর মা-মেয়ে বিষয়টি কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট এবং পাঁচলাইশ থানাকে জানায়। পরে প্রবর্তক সংঘের পাহাড়ে অভিষেকের নানার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়।

অভিষেককে জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে , প্রবর্তক সংঘের পাহাড়ের প্রহরীর ছেলে এই ভিডিও করে অভিষেককে দিয়েছে। অভিষেক সেটি আদিত্যকে দিয়েছে। আদিত্য ভিন্ন নামে একটি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলে সেগুলো কয়েকজন বন্ধুর ম্যাসেঞ্জারে দেয় এবং পর্ণসাইটে দেওয়ার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে। এরপর নন্দনকানন এক নম্বর গলি থেকে আদিত্যকে আটক করা হয়। আর ভিডিও ধারণ করা  প্রহরীর ছেলেকে আটকের চেষ্টা চলছে।

পূর্বকোণ / আরআর/পারভেজ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 685 People

সম্পর্কিত পোস্ট