চট্টগ্রাম বুধবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২১

সর্বশেষ:

৯ মার্চ, ২০২১ | ২:৫০ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

পূর্বকোণের সংবাদে টনক নড়ল: সীমানা গ্রিলের ফাঁক সংস্কার

নিরাপত্তা জোরদারে তৈরি করা সীমানা গ্রিলের লোহার দন্ড কেটে স্টেশনে প্রবেশ করছে অবাঞ্চিতরা। ঘটছে চুরি-ছিনতাই থেকে শুরু করে মাদক সেবনের ঘটনা। বাড়ছে বিনা টিকেটের যাত্রীর সংখ্যা। এতে বিঘ্ন হচ্ছে রেলের কার্যক্রম ও বাড়ছে নিরাপত্তার ঝুঁকি। চট্টগ্রাম রেল স্টেশনের কাটা সীমানা প্রাচীর দিয়ে অবাঞ্চিতদের প্রবেশ ও এর প্রভাব তুলে ধরে সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশ করে পূর্বকোণ। গত ২ ফেব্রুয়ারি ‘অরক্ষিত রেল স্টেশন’ শিরোনামে প্রকাশিত হয় প্রতিবেদনটি। যা নজরে আসে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের। সংস্কার করে বন্ধ করে দেয়া হয় কাটা গ্রিল দিয়ে স্টেশনে প্রবেশের পথ।

সংস্কারের বিষয়টি পূর্বকোণকে নিশ্চিত করেন রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের বিভাগীয় বাণিজ্যিক কর্মকর্তা মো. আনসার আলী।

সরেজমিনে দেখা যায়, কাটা গ্রিলের মাঝে নতুন করে তিনটি লোহার পাত যুক্ত করে দেয়া হয়। টেকসই বাড়াতে পেঁচিয়ে দেয়া হয় মোটা তার। এতে ওই কাটা অংশ দিয়ে বন্ধ হয়ে যায় স্টেশনে প্রবেশের পথ। তবে এতে খুব একটা সুফল মিলেনি। গ্রিলের উচ্চতা কম হওয়ায় তা টপকিয়ে স্টেশনে প্রবেশ করতে দেখা গেছে অনেককেই। এতে নিরাপত্তা ঝুঁকি থেকেই যাচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন যাত্রী ও নিরাপত্তা কর্মীরা।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্টেশনের এক নিরাপত্তা কর্মী পূর্বকোণকে বলেন, ‘সীমানা গ্রিলে সংস্কার করেও সুফল মিলছে না। আগে গ্রিলের কাটা অংশ দিয়ে স্টেশনে প্রবেশ করলেও এখন করছে গ্রিল ডিঙিয়ে। উচ্চতা কম হওয়ায় সহজেই স্টেশনে প্রবেশ করছে হিজড়া থেকে বহিরাগতরা। বিরক্ত হচ্ছে যাত্রীরা। বাড়ছে বিনা টিকেটে রেল ভ্রমণের সংখ্যা। তাই গ্রিলটি মেরামত করেও কোন সমাধান আসছে না। স্থায়ী সমাধানের জন্য সীমানা গ্রিলটির উচ্চতা বাড়ানোর পাশাপাশি কাঁটাতার বসাতে হবে। তা না হলে, স্টেশনে চুরি ও মাদকসেবীদের প্রবেশ ঠেকানো যাবে না’।

পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 254 People

সম্পর্কিত পোস্ট