চট্টগ্রাম বুধবার, ২৩ অক্টোবর, ২০১৯

সর্বশেষ:

২২ জুন, ২০১৯ | ২:২০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

বিশ^বিদ্যালয়ে পড়ার স্বপ্ন পূরণ হলো না ইফতির

স্বপ্ন ছিল বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার। কিন্তু পূরণ হলো না আহেল চৌধুরী ইফতির (১৮) সেই স্বপ্ন। গতকাল শুক্রবার সকালে নগরীর আলকরণ মেমন হাসপাতালের পাশে নিজ বাসার সিলিং ফ্যানের সঙ্গে দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেন ইফতি। নিহত সরকারি সিটি কলেজে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে সদ্য এইচএসসি পরীক্ষা সম্পন্ন করেন।
ইফতির পরিবার জানায়, একা রুমে থাকতো ইফতি। সকালে পরিবারের লোকজন অনেক ডাকাডাকির পর না ওঠায় দরজা ভেঙে রুমে ঢুকে তাকে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায়। পরে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির নায়েক আবু হামিদ জানান, ‘গলায় ফাঁস দেওয়া ইফতি নামে এক কিশোরকে হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন’।
ইফতির চাচা মো. ফোরকান বলেন, ভর্তি পরীক্ষার প্রস্তুতি হিসেবে কোচিংয়ের জন্য শনিবার (আজ) সকালে ঢাকায় যাওয়ার কথা ছিল ইফতির। এজন্য সব প্রস্তুতিও নেয়া হয়েছিল। ঢাকায় থেকে কোচিং করে সে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করার কথাও পরিবারকে জানিয়েছিল সে।
এদিকে, গত বৃহস্পতিবার রাতে ইফতিকে তার বাবা-মা বকাঝকা করেছিলেন জানিয়ে সদরঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম ফজলুর রহমান ফারুকী পূর্বকোণকে বলেন, ‘আমরা খোঁজ নিয়ে জানতে পেরেছি ইফতি অধিক রাত পযন্ত মোবাইলে ফেসবুক ব্যবহার করতো। যার কারণে তার বাবা-মা তাকে বৃহস্পতিবার রাতে বকা-ঝকা করেছিল। প্রাথমিক ধারণা করা হচ্ছে, বকাঝকার কারণেই নিজেই আত্মহত্যা করেছে’।

The Post Viewed By: 269 People

সম্পর্কিত পোস্ট