চট্টগ্রাম রবিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২১

সর্বশেষ:

২ মার্চ, ২০২১ | ১২:৩৭ অপরাহ্ণ

মোহাম্মদ আলী 

৩৮ হাজার গ্রাহকের কাছে বকেয়া ১১৮ কোটি টাকা

চলতি মার্চ মাসে ১১৮ কোটি টাকা বকেয়া আদায়ে মাঠে নেমেছে চট্টগ্রাম ওয়াসা। যেসব গ্রাহক মার্চ মাসে বকেয়া পরিশোধ করবে তাদের জরিমানা মওকুফের ঘোষণা দিয়েছে সরকারি সেবা সংস্থাটি।

রাজস্ব বিভাগ সূত্র জানায়, প্রতিষ্ঠানের ৭৫ হাজার ২৬৭টি গ্রাহকের মধ্যে ৩৮ হাজার ৩৩৬ জনের কাছে ওয়াসার বকেয়া পাওনা ১১৭ কোটি ৮৬ লাখ ১২ হাজার ৭২২ টাকা। এর মধ্যে ৬৮৯টি সরকারি প্রতিষ্ঠানের কাছে ওয়াসার বকেয়া রয়েছে ২৪ কোটি ৯৭ লাখ ৫৬ হাজার ৯১৯ টাকা। বেসরকারি ১৪২টি  প্রতিষ্ঠান ও গ্রাহকের কাছে রয়েছে ৮৫ কোটি ৩০ লাখ ৮ হাজার ৬৫৮ টাকা। এছাড়াও সংযোগ বিচ্ছিন্ন থাকা গ্রাহকের কাছে ওয়াসার পাওনা রয়েছে ৭ কোটি ৫৮ লাখ ৪৭ হাজার ১৪৫ টাকা।

দীর্ঘদিন ধরে বিশাল অংকের বকেয়া পাওনার কারণে প্রতিষ্ঠানের নিয়মিত কার্যক্রম ব্যাঘাত সৃষ্টি হচ্ছে। এ অবস্থায় বকেয়া পাওনা আদায়ে চলতি মার্চ মাসকে সামনে রেখে এগুচ্ছে সেবা সংস্থাটি। ইতোমধ্যে প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে ঘোষণা দেওয়া হয়েছে যে, যেসব গ্রাহক মার্চ মাসে বকেয়া বিল পরিশোধ করবে তাদের কোনো জরিমানা দিতে হবে না। এতে কিস্তিতে বকেয়া পরিশোধেরও সুযোগ রয়েছে। যারা মার্চে বকেয়া পরিশোধ করবে সেখান থেকে ১০ জন গ্রাহককে সম্মাননা স্মারক প্রদান করবে ওয়াসা। এছাড়াও বিল আদায়ে সর্বোচ্চ অবদান রাখা ২টি ব্যাংকের শাখাকে সম্মানন স্মারক প্রদান করা হবে।

সূত্র আরো জানায়, বিপুল পরিমাণের বকেয়া নিয়ে টেনশনে রয়েছে ওয়াসার কর্মকর্তারা। এ নিয়ে গ্রাহকদের দফায় দফায় তাগাদা ও নোটিশ দিলে আশানুরূপ ফল মিলছে না। এর মধ্যে বৈশি^ক করোনা মহামারীর কারণে আরো সমস্যায় পড়ে সেবা সংস্থাটি। এ অবস্থায় বঙ্গবন্ধু’র জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে চলতি মার্চ মাসকে সেবা ঘোষণা করে ওয়াসা। তাই অন্যান্য সেবা কার্যক্রমের পাশাপাশি জরিমানা মওকুফ ও সম্মাননা স্মারক প্রদানের ঘোষণা দিয়ে মার্চের মধ্যে বকেয়া আদায়ে মাঠে নেমেছে সংস্থাটি।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ওয়াসার বাণিজ্যিক ব্যবস্থাপক আবু সাফায়েত মোহাম্মদ শাহে দুল ইসলাম দৈনিক পূর্বকোণকে বলেন, ‘বকেয়া পাওনা আদায়ের জন্য ওয়াসা সব রকমের প্রচেষ্ঠা চালিয়ে যাচ্ছে। যারা চলতি মার্চে বকেয়া পাওনা পরিশোধ করবে তাদের জরিমানা মওকুফ করা হয়েছে। এছাড়া কিস্তিতে জরিমানা মওকুফেরও সুযোগ রয়েছে।’

আবু সাফায়েত মোহাম্মদ শাহেদুল ইসলাম বলেন, ‘নিদির্ষ্ট সময়ে যেসব গ্রাহক বকেয়া পাওনা পরিশোধ করবে না তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে ওয়াসা।’

ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী এ কে এম ফজলুল্লাহ বলেন, ‘বকেয়া আদায়সহ নানামুখী কার্যক্রম পরিচালনার জন্য চলতি মার্চ মাসকে সেবা মাস হিসেবে ঘোষণা করেছে ওয়াসা। এ মাসে যারা বকেয়া পরিশোধ করবে তাদের জরিমানা মওকুফ করা হয়েছে। এমনকি যারা এ সুযোগ নিবে তাদের মধ্যে থেকে ১০জনকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হবে।’

পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 218 People

সম্পর্কিত পোস্ট