চট্টগ্রাম রবিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২১

সর্বশেষ:

২ মার্চ, ২০২১ | ১২:১২ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক 

জাতীয় ভোটার দিবস আজ

স্মার্টকার্ড পাচ্ছেন ১১ লাখ ভোটার

দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর আজ থেকে শুরু হচ্ছে  কাঙ্ক্ষিত স্মার্টকার্ড  বিতরণ কার্যক্রম। ২০১৯ সালে ভোটার হওয়া নগরী ও জেলার প্রায় ১১ লাখ তরুণ ভোটারের হাতে স্মার্টকার্ড তুলে দেয়া হবে। এছাড়াও অন্যান্য ভোটাদের হাতেও পর্যায়ক্রমে স্মার্টকার্ড বিতরণ করা হবে।

তরুণদের হাতে স্মার্টকার্ড বিতরণের মধ্য দিয়ে আজ উদযাপিত হচ্ছে জাতীয় ভোটার দিবস। ‘বয়স যদি আঠারো হয় ভোটার হতে দেরী নয়।’ এই স্লোগান নিয়ে শুরু হচ্ছে ভোটার দিবস। দিবসটি উপলক্ষে নানা কর্মসূচির আয়োজন করেছে চট্টগ্রাম আঞ্চলিক নির্বাচন কার্যালয়। সকাল সাড়ে নয়টা আঞ্চলিক কার্যালয়ে কেক কাটা, ভার্চ্যুয়াল আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। এছাড়াও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়ে তাৎক্ষণিক ভোটার হওয়া, ভুল সংশোধন, ভোটার পরিবর্তনসহ নানা ধরনের সেবা প্রদান করা হবে।

চট্টগ্রাম আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান পূর্বকোণকে বলেন, ‘জাতীয় ভোটার দিবস উপলক্ষে আমাদের সব ধরনের সেবা আজ উন্মুক্ত থাকবে। নতুন ভোটারদের মধ্যে স্মার্টকার্ড বিতরণ, ভোটার হওয়া, ভোটার সংশোধনসহ সব সেবাই প্রদান করা হবে।’  নির্বাচন কার্যালয় জানায়, ২০১৯ সালে ভোটার হওয়া তরুণদের হাতে স্মার্টকার্ড বিতরণ করা হবে। নগরীর ও জেলায় এই সময়ে ভোটার হওয়া সকল তরুণ ভোটার স্মার্টকার্ড পাবেন। এছাড়াও বোয়ালখালী, রাঙ্গুনীয়া ও সাতকানিয়া উপজেলার সকল ভোটারদের মধ্যে স্মাটকার্ড বিতরণ করা হবে। আগামী ৩ মার্চ থেকে সাতকানিয়া, ৬ ও ৭ মার্চ রাঙ্গুনীয়া ও বোয়ালখালী উপজেলার ভোটারদের মধ্যে কার্ড বিতরণ করা হবে। পর্যায়ক্রমে অন্যান্য উপজেলায়ও কার্ড বিতরণ করা হবে।

চট্টগ্রাম সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আতাউর রহমান পূর্বকোণকে বলেন, ২০১৯ সালে ভোটার হওয়া তরুণদের হাতে স্মার্টকার্ড তুলে দেওয়া হবে। সাতকানিয়া, বোয়ালখালী, রাঙ্গুনীয়া উপজেলা থেকে শুরু করে পর্যায়ক্রমে সব উপজেলার ভোটাররা স্মার্টকার্ড পাবেন।

চট্টগ্রামে ২০১৭ সালের ১৩ মার্চ স্মার্টকার্ড বিতরণ কার্যক্রম শুরু হয়। প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা সার্কিট হাউসে এই কার্যক্রম উদ্বোধন করেছিলেন। কোতোয়ালী ও ডবলমুরিং থানার তিনটি ওয়ার্ডে কার্ড বিতরণ করা হয়েছিল। পর্যায়ক্রমে ৪১ ওয়ার্ডে কার্ড বিতরণ করা হয়েছিল। এখনো সকল ভোটারের হাতে কার্ড তুলে দিতে পারেনি নির্বাচন কমিশন। এছাড়াও বিতরণ করা কার্ডের মধ্যে রয়েছে ভুলের ছড়াছড়ি। এনিয়ে বিপাকে রয়েছেন শত শত ভোটার। সংশোধনে গলদঘর্ম অবস্থা এখন।

নির্বাচন অফিস জানায়, নগরীর ছয় থানা ও ১৫ উপজেলায় এই পর্যন্ত ৩২ লাখ ৭৫ হাজার ৫৪৪টি স্মার্টকার্ড এসেছে। এতিমধ্যেই নগরীর ৪১ ওয়ার্ড এবং জেলার হাটহাজারী ও আনোয়ারা উপজেলায় ১৬ লাখ ৪৫ হাজার ৭৮০টি কার্ড বিতরণ হয়েছে।

জাতীয় ভোটার দিবস উপলক্ষে যেসব এলাকায় কার্ড বিতরণ করা হবে তার মধ্যে বন্দরে ৮৮ হাজার ৬২৯ জন, মিরসরাইয়ে ১৮ হাজার ১৪২ জন, সীতাকুণ্ডে ১০ হাজার ৩ জন, সন্দ্বীপে ১৫ হাজার ২১৭ জন, ফটিকছড়িতে ২২ হাজার ৯০৩ জন, রাউজানে এক লাখ ৪৮ হাজার ৮১২ জন, রাঙ্গুনীয়ায় দুই লাখ ৪৮ হাজার ৮১২ জন, বোয়ালখালীতে এক লাখ ৭৯ হাজার ৪৩৩ জন, পটিয়ায় ১৭ হাজার ৯২৮ জন, কর্ণফুলীতে চার হাজার ৭১২ জন, চন্দনাইশে আট হাজার ৯৮৯ জন, সাতকানিয়ায় দুই লাখ ৮৮ হাজার ৬৯৩ জন, লোহাগাড়ায় নয় হাজার ৮৬৬ জন ও বাঁশখালীতে ১৮ হাজার ৬৪১ জন ভোটার স্মার্টকার্ড পাবেন। ২০১৯ সালে ভোটার হয়েছেন এমন তরুণ ভোটাররাই এসব কার্ড পাবেন।

পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 1199 People

সম্পর্কিত পোস্ট