চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

সর্বশেষ:

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ | ১:৩২ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

বিএনপি প্রার্থীর শূন্য ভোট: ১৬ কেন্দ্রের ১১টিতেই ২০ এর কম ভোট

পৌর ভোটে ভোটারের ব্যাপক উপস্থিতি থাকলেও সেই আগের মতো কঠিন অবস্থায় রয়েছে বিএনপি। চন্দনাইশ পৌর নির্বাচনে ১৬ কেন্দ্রের মধ্যে ১১টিতেই ২০ ভোটের কম ভোট পেয়েছেন বিএনপি প্রার্থী মাহাবুবুল আলম চৌধুরী। শূন্য ভোটও পেয়েছেন এক কেন্দ্রে।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি পটিয়া, চন্দনাইশ ও সাতকানিয়া পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। চন্দনাইশে কাগজের ব্যালটে ভোট হয়।

ফলাফল বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, চন্দনাইশে ভোটার সংখ্যা ২৮ হাজার ৯৯৭ ভোট। ভোট পড়েছে ২০ হাজার ৮৬৮টি। নষ্ট হয়েছে ৭৫২ ভোট। ভোটের হার ৭২ শতাংশ। সর্বোচ্চ ভোট পড়েছে ৯৩ দশমিক ৭৬ শতাংশ। কম ভোট পড়েছে ৬১ দশমিক ৭৫ শতাংশ। শাহে মদীনা তৈয়বিয়া ফোরকানিয়া মাদ্রাসা কেন্দ্রে বিএনপি প্রার্থী শূন্য ভোট পেয়েছেন। এই কেন্দ্রে ভোটার সংখ্যা ২৩০৬ জন। ভোট পড়েছে ১৮০৫টি। এরমধ্যে আওয়ামী লীগ প্রার্থী পেয়েছেন ১৬৩৮ ভোট। এলডিপি ও ইসলামী ফ্রন্ট প্রার্থী ১৪ ভোট করে পেয়েছেন। ভোটের হার ৭৮ দশমিক ২৭ শতাংশ। এই কেন্দ্রে ভোট দিয়েছেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী। বিএনপি প্রার্থী ভোট দিয়েছেন চন্দনাইশ আইডিয়াল স্কুলে। এই কেন্দ্রে ভোটার সংখ্যা ১৫০৯ জন। নিজের কেন্দ্রে ভোট পেয়েছেন ১৪১টি। নৌকা প্রার্থী ভোট পেয়েছেন ৭৭১টি। ভোটের হার প্রায় ৮৫ শতাংশ। ফলাফলে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মু. মাহাবুবুল আলম খোকা ১৫ হাজার ৯৫৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। বিএনপি প্রার্থী মাহাবুবুল আলম চৌধুরী পেয়েছেন ৪১৩ ভোট। চন্দনাইশকে কর্নেল অলির ঘাঁটি বলা হয়। কর্নেল অলিও নির্বাচনে ভোট দিয়েছেন। এলডিপির ঘাঁটিতে দলীয় প্রার্থী পেয়েছেন ১৯১৬ ভোট। 

ফলাফলে দেখা যায়, উত্তর গাছবাড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট পড়েছে ১১৪০টি। বিএনপি প্রার্থী পেয়েছেন মাত্র ২ ভোট। আওয়ামী লীগ প্রার্থী পেয়েছেন ১১শ ভোট। জোয়ারা বিশম্বর চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট পড়েছে ৮৯৭টি। বিএনপি প্রার্থী পেয়েছেন ৮টি। আওয়ামী লীগ প্রার্থী পেয়েছেন ৬৮৮ ভোট। দক্ষিণ জোয়ারা বি এল বড়ুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৭২৫ ভোট। বিএনপি প্রার্থী পেয়েছেন ৭ ভোট। পূর্ব চন্দনাইশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বিএনপি প্রার্থী পেয়েছেন ৯ ভোট। আরফাতুন চৌধুরী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে বিএনপি পেয়েছে ৭ ভোট। নৌকা প্রার্থী পেয়েছেন ১০৭৭ ভোট।

বিএনপি প্রার্থী মাহাবুবুল আলম চৌধুরী দাবি করেছেন, ‘বিভিন্ন কেন্দ্রে বিএনপির এজেন্টদের ঢুকতে দেয়নি। বের করে দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও সকাল থেকে মেয়র পদের ব্যালট পেপার ভোটারদের কাছে দেওয়া হয়নি। এসব কারণে ভোট কম পেয়েছেন তিনি।’

সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) চট্টগ্রামের সম্পাদক এডভোকেট আখতার কবির চৌধুরী বলেন, ‘অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন এখন সোনার হরিণ। ভোটের উপর মানুষের আস্থা শূন্যের কোটায়।’

পূর্বকোণ/পিআর

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 419 People

সম্পর্কিত পোস্ট