চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ০৯ মার্চ, ২০২১

সর্বশেষ:

১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ | ১২:৫০ অপরাহ্ণ

ইফতেখারুল ইসলাম 

অনিয়ম নিয়ে সতর্ক করলেন মেয়র

চসিক’র নবনির্বাচিত মেয়র এম রেজাউল করিম চৌধুরী দায়িত্ব গ্রহণের প্রথম দিন ভারপ্রাপ্ত প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তাকে একচোট নিলেন। পরিচ্ছন্ন বিভাগ নিয়ে সবচেয়ে বেশি অভিযোগ আছে উল্লেখ করে তিনি পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তাকে উদ্দেশ্য করে বলেন, অনিয়ম বিন্দুমাত্র সহ্য করা হবে না। যেকোন উপায়ে এই বিভাগের অনিয়ম দূর করা হবে।

প্রথমদিন চেয়ারে বসে কোন ফাইলে স্বাক্ষর করেননি মেয়র। তবে ব্যাংক হিসাবসমূহের নাম পরিবর্তনের জন্য ব্যাংকের ফরমে স্বাক্ষর করেন। এরপর পরিচয়পর্বশেষে চসিক রাজস্ব অফিসার্স ফোরাম এবং কর্মকর্তাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে তাঁকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানোর পর তিনি অফিস ত্যাগ করেন।

বিকাল ৩টায় মেয়র টাইগারপাস মিঠা পাহাড় সংলগ্ন চসিকের অস্থায়ী কার্যালয়ে প্রবেশ করেন। সংস্থাটির বিভিন্ন বিভাগ এবং স্তরের ৬০ জন কর্মকর্তার সাথে পরিচয় পর্ব সারেন। এরপর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মোজাম্মেল হক প্রজেক্টরের মাধ্যমে চসিকের বর্তমান চিত্র তুলে ধরেন। তিনি সেখানে দেখান চসিকের দেনা রয়েছে ৮৭৫ কোটি ২৫ লাখ ১২৪০৫ টাকা। এরমধ্যে ৩৩৬ জন অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা-কর্মচারীর পাওনা ৫৭ কোটি টাকা, বিদ্যুত বিল ২৯ কোটি টাকা, প্রফিডেন্ট ফান্ডে ৪৩ কোটি টাকা দেনা রয়েছে। শহরে মোট হোল্ডিং রয়েছে এক লাখ ৯৭ হাজার ৩৮৩টি। এরমধ্যে সরকারি হোল্ডিং ১৫১৬টি। বাকিগুলো বেসরকারি। চলতি অর্থবছরে এখাতে চসিকের পাওনা বা দাবি রয়েছে ৩৪৮ কোটি ৪০ লাখ ৭৫০ টাকা। গতকাল পর্যন্ত আদায় হয়েছে ১০৭ কোটি ১৭ লাখ ৮৫৬৬ টাকা। করোনাকালেও যা চসিকের ইতিহাসে রেকর্ড পরিমাণ আদায়।

তিনি চসিকের জনবলের কথা তুলে ধরে বলেন, এখানে মোট জনবল রয়েছে ৯২৮৯ জন। এরমধ্যে স্থায়ী ২৯৬১ জন, অস্থায়ী ৬৩২৮ জন। ভর্তুকির কথা উল্লেখ করে বলেন, শিক্ষাখাতে বছরে ভর্তুকি ৩৩ কোটি ২৮ লাখ ৫৬ হাজার টাকা। স্বাস্থ্যখাতে ভর্তুকি ১৪ কোটি ৫৯ লাখ ৬৫ হাজার ৩৭০ টাকা।

চসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মেয়রের সামনে পাঁচটি চ্যালেঞ্জের কথাও তুলে ধরেন। চ্যালেঞ্জসমূহ হল আর্থিক সক্ষমতার অভাব, নগরে সেবা প্রদানকারী সংস্থাসমুহের সাথে সমন্বয়হীনতা, প্রকল্প বাস্তবায়নে ম্যাচিং ফান্ড, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের চাকরিতে স্থায়ীকরণ সংক্রান্ত জটিলতা, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য বিভাগের ভর্তুকির পরিমাণ হ্রাস।

পরিচয়পর্বে নিজ নিজ বিভাগের সমস্যা এবং সমাধানের উপায় তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মফিদুল আলম, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সেলিম আকতার চৌধুরী, প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্নেল সোহেল আহমদ, প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা সুমন বড়–য়া।

প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এক পর্যায়ে প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তাকে খোঁজেন। এসময় মেয়র প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তাকে উদ্দেশ্য করে সতর্কবাণী উল্লেখ করেন।

পূর্বকোণ/‌এএ

শেয়ার করুন
  • 125
    Shares
The Post Viewed By: 311 People

সম্পর্কিত পোস্ট