চট্টগ্রাম রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

৩১ জানুয়ারি, ২০২১ | ১০:৫৫ পূর্বাহ্ণ

­২৮ ফেব্রুয়ারির নির্বাচনে ­দুই দল প্রার্থী ­মনোনয়ন দিয়েছেন

চট্টগ্রামের ৪ পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ-বিএনপির প্রার্থীরা

চট্টগ্রাম জেলার ৪টি পৌসভার নির্বাচন আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে। এই নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি উভয়ে স্বীয় প্রার্থী মনোনয়ন দিয়েছেন।

আওয়ামী লীগ: রাউজান পৌরসভায় মো. জমির উদ্দিন (পারভেজ), রাঙ্গুনিয়া পৌরসভায় মো. শাহজাহান সিকদার, মীরসরাই পৌরসভায় গিয়াস উদ্দিন, বারৈয়ারহাট পৌরসভায় মোহাম্মদ রেজাউল করিম মেয়র পদে মনোনয়ন পেয়েছেন।

বিএনপি: রাউজানে মো. আবু জাফর চৌধুরী, রাঙ্গুনিয়ায় মো. হেলাল উদ্দিন শাহ, মিরসরাইয়ে নুর মোহাম্মাদ, বারইয়ারহাটে দিদারুল আলম মিয়াজী।

রাউজান পৌরসভা: নিজস্ব সংবাদদাতা জানান, আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য রাউজান পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোয়ন পেয়েছেন টানা চারবার নির্বাচিত কাউন্সিলর, বর্তমান প্যানেল মেয়র ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি জমির উদ্দীন পারভেজ। গতকাল (শনিবার) অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের সভায় তাঁর নৌকা প্রতীক পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়।

অন্যদিকে এ পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপির ধানের শীষ প্রতীক পেয়েছেন পৌরসভা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি, উত্তরজেলা বিএনপির সদস্য আবু জাফর চৌধুরী। গতকাল (শনিবার) বেলা ১২টায় অনুষ্ঠিত বিএনপির কেন্দ্রীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভায় এ মনোনয়ন নিশ্চিত করা হয় বলে জানান আবু জাফর চৌধুরী।

এদিকে পারভেজের মনোনয়ন নিশ্চিতের খবর ছড়িয়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে রাউজান পৌর এলাকায় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ছাত্রলীগসহ বিভিন্নস্তরের মানুষের মাঝে আনন্দ উসব শুরু হয়। সদরের মুন্সিরঘাটা এবং রাঙ্গামাটি সড়কে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা আনন্দ মিছিল করেছে। উৎসুক কর্মী, সমর্থকরা মিষ্টি বিতরণ ও আতশবাজি ফাটিয়েছে।

নৌকার মাঝি জমির উদ্দিন পারভেজ বলেন, ‘এ অর্জন রাউজানের সর্বস্তরের মানুষের অর্জন, ন্যায়ের পক্ষে, রাজনৈতিক ত্যাগের পক্ষে অর্জন। আমাকে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী করায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা, ধন্যবাদ জানাচ্ছি। তিনি মাঠের রাজনৈতিক কর্মীকে মূল্যায়ন করেছেন। সেই সাথে ধন্যবাদ জানাচ্ছি এ.বি.এম ফজলে করিম চৌধুরী, উপজেলা চেয়ারম্যান এহেছানুল হায়দার চৌধুরী বাবুলসহ যারা ইতিপূর্বে আমার জন্য কষ্ট করেছেন। ইনশল্লাহ বিজয় আমাদের হবে’।

বিএনপির মনোনয়ন পাওয়ার পর এক প্রতিক্রিয়ায় আবু জাফর চৌধুরী বলেন, ‘সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন হলে, সুন্দর পরিবেশ থাকলে আমি জিতবো। আমি প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর সাথে নির্বাচনে সহাবস্থানে থাকতে চাই’।

রাঙ্গুনিয়া পৌরসভা: নিজস্ব সংবাদদাতা জানান, নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান মেয়র মো. শাহজাহান সিকদার। বিএনপির মেয়র প্রার্থী হিসেবে হেলাল উদ্দিন শাহকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে।

গতকাল (শনিবার) দুপুরে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার শামসুল আলম তালুকদার বর্তমান মেয়র মো. শাহজাহান সিকদারের মনোনয়নের তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন। মো. শাহজাহান সিকদার চট্টগ্রাম উত্তরজেলা আ. লীগের সাবেক ধর্ম বিষয়ক সস্পাদক। বিগত রাঙ্গুনিয়া পৌরসভা নির্বাচনে আ. লীগের মনোনয়ন পেয়ে নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করে বিপুল ভোটে মেয়র নির্বাচিত হন।

দলীয় মনোনয়ন নিশ্চিত হওয়া বর্তমান মেয়র মো. শাহজাহান সিকদার বলেন, ‘তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এমপি মহোদয়ের ঐকান্তিক সহযোগিতায় পৌরভার উন্নয়নে ব্যাপক কাজ করেছি। উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষায় নির্বাচনে আমাকে রায় দেবেন আশা করছি। বিগত দিনে মানুষের জন্য কাজ করেছি ভবিষ্যতেও এলাকার মানুষের জন্য কাজ করে যাব’।

এদিকে আ.লীগ নেতা মো. শাহজাহান সিকদার দলীয় মনোনয়ন পাওয়ায় উপজেলা আ.লীগ ও অঙ্গ সংগঠন অভিনন্দন জানিয়েছেন।

এছাড়া বিএনপির মেয়র প্রার্থী হিসেবে হেলাল উদ্দিন শাহকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। শনিবার (গতকাল ) সন্ধ্যায় বিএনপির কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এই তথ্য জানানো হয়।

বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী হেলাল উদ্দিন শাহ বর্তমানে রাঙ্গুনিয়া পৌরসভা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটিতে সদস্য সচিবের দায়িত্ব পালন করছেন। ত্রিধাবিভক্ত রাঙ্গুনিয়া বিএনপিতে তিনি প্রয়াত বিএনপি নেতা সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী পরিবারের অনুসারী হিসেবে পরিচিত।

হেলাল উদ্দিন শাহ বলেন, ‘২০১৫ সালের পৌরসভা নির্বাচনেও আমি ধানের শীষ প্রতীকে বিএনপির প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলাম। কিন্তু সেই নির্বাচনে ভোটাররা ভোট দিতে পারেননি। এবারের নির্বাচন যেহেতু ইভিএমে হবে, আশা করছি মানুষ যদি লাইনে দাঁড়িয়ে ভোট দেয়ার সুযোগ পান তাহলে ধানের শীষের বিজয় কেউ ঠেকাতে পারবে না’।

এদিকে বিএনপি নেতা হেলাল উদ্দিন শাহ দলীয় মনোনয়ন পাওয়ায় উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অভিনন্দন জানিয়েছেন।

মিরসরাই ও বারৈয়ারহাট পৌরসভা: নিজস্ব সংবাদদাতা জানান, নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ ও জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি ত্যাগী ও পরীক্ষিতদের দলীয় মনোনয়ন দিয়েছে। এখানে পঞ্চম ধাপের পৌর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি।

মিরসরাই পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন পেয়েছেন, বর্তমান মেয়র মো. গিয়াস উদ্দিন, বিএনপির ধানের শীষ প্রতীক পেয়েছেন পৌর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক নূর মোহাম্মদ। বারৈয়ারহাট পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন পেয়েছেন স্থানীয় পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম খোকন ও বিএনপির ধানের শীষ প্রতীক পেয়েছেন পৌর বিএনপির আহ্বায়ক দিদারুল আলম মিয়াজী।

জানা গেছে, শনিবার (গতকাল) বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির স্থানীয় সরকার নির্বাচন মনোনয়ন বোর্ড মিরসরাই পৌরসভায় মো. গিয়াস উদ্দিনের নাম ও বারইয়াহাট পৌরসভায় মো. রেজাউল করিম খোকনের নাম ঘোষণা করেছে।

দীর্ঘদিন পরে হলেও বারৈয়ারহাট পৌরসভা নির্বাচনে পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম খোকন দলের মনোনয়ন পাওয়ায় স্থানীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে উদ্দীপনার অন্ত নেই।

দলের মনোনয়ন নিশ্চিত হওয়ার পর নিজের প্রতিক্রিয়ায় রেজাউল করিম খোকন বলেন, ‘আমি আমার নেতা ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এবং দলীয় সভাপতি জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে কৃতজ্ঞ। ইনশাল্লাহ আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি নির্বাচনে নৌকার জয় ছিনিয়ে এনে দলকে উপহার দিবো’।

অন্যদিকে মিরসরাই পৌরসভা নির্বাচনে বর্তমান মেয়র, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি গিয়াস উদ্দিন মনোনয়ন পাওয়ায় দলের নেতাকর্মী ও সমর্থকেরা বেশ খুশি। তারা মনে করছেন গত ৫ বছরে গিয়াস উদ্দিন ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকা- বাস্তবায়ন করতে পেরেছেন। আগামীদিনে বাকি উন্নয়ন কাজ শেষ করতে পারলে মিরসরাই পৌরসভা নগরায়নের সঠিক পথে অগ্রসর হবে।

নিজের মনোনয়ন প্রাপ্তিতে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় মো. গিয়াস উদ্দিন বলেন, ‘দল এবং আমার নেতা ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন আমাকে সুযোগ করে দিয়েছেন। ইনশাল্লাহ্ আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের বিজয় সুনিশ্চিত করে দলকে বিজয় উপহার দিবো।’

একইদিন সন্ধ্যায় বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির মনোনয়ন বোর্ড মিরসরাই পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে নূর মোহাম্মদ ও বারৈয়ারহাট পৌরসভায় দিদারুল আলম মিয়াজির নাম ঘোষণা করে।

শনিবার রাতে বারৈয়ারহাট পৌরসভা নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী দিদারুল আলম মিয়াজি পূর্বকোণকে বলেন, ‘দীর্ঘদিন রাজনীতি করেছি। এ প্রথম পৌরসভা নির্বাচনে দলের মনোনয়ন পেয়েছি। এটি আমার কাছে বড় প্রাপ্তি। সুষ্ঠু ভোট হলে ইনশাল্লাহ্ ধানের শীষ প্রতীকের জয় কেউ ঠেকাতে পারবে না’।

বক্তব্য নিতে মিরসরাই পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী নূর মোহাম্মদকে টেলিফোন করলেও সংযোগ স্থাপন করা যায়নি।

পূর্বকোণ/পি-আরপি

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 551 People

সম্পর্কিত পোস্ট