চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ০২ মার্চ, ২০২১

৩০ জানুয়ারি, ২০২১ | ৩:২১ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক 

চট্টগ্রামে টিকা আসছে রবিবার

আগামীকাল রবিবার ভোরে সাড়ে ৪ লাখ ডোজ টিকা (ভ্যাকসিন) আসছে চট্টগ্রামে। একইসঙ্গে এদিন তিন পার্বত্য জেলা ও কক্সবাজার জেলায়ও করোনার টিকা এসে পৌঁছাবে। বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. হাসান শাহরিয়ার কবির এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, চট্টগ্রামে আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি (রবিবার) থেকে শুরু হবে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন প্রদান কার্যক্রম। আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধনের পর এ দিনে চারটি বুথে একশজনের শরীরে প্রয়োগ করা হবে করোনার প্রথম ডোজ। আগামীকাল রবিবার ভোরে ৪ লাখ ৫৬ হাজার ডোজ টিকা আসছে চট্টগ্রামে। সিভিল সার্জন কার্যালয়ের কোল্ড স্টোরে এ টিকা রাখতে প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে।

শুধু চট্টগ্রামেই নয়, একই দিন তিন পার্বত্য জেলা বান্দরবান, রাঙামাটি ও খাগড়াছড়ি এবং কক্সবাজার জেলাতেও যাবে করোনাভাইরাস থেকে সুরক্ষার টিকা। একযোগে চট্টগ্রামসহ এ পাঁচ জেলায় টিকা ঢাকার টঙ্গীর সেন্ট্রাল ওয়অরহাউস থেকে আসবে বলে জানা গেছে। রবিবার ভোর থেকে ৫ লাখ ৭৬ হাজার ডোজের ৪৮ কার্টুন বা ৫৭ হাজার ৬শ’ ভায়ালের গাড়িবহর চট্টগ্রামে এসে পৌঁছাবে। এরপর থেকেই যাবে তিন পার্বত্য জেলা ও কক্সবাজার জেলায়। সংশ্লিষ্ট সিভিল সার্জন ও চট্টগ্রাম বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক দপ্তরের তথ্যে এমনটি জানা যায়।

এদিকে, কাল রবিবার চট্টগ্রামে ভ্যাকসিন পৌঁছালেও আজ শনিবার থেকেই শুরু হচ্ছে জেলা পর্যায়ের টিকাদানের সাথে সংশ্লিষ্টদের প্রশিক্ষণ। যারা পরবর্তীতে উপজেলা পর্যায়ে গিয়ে অন্যদের প্রশিক্ষণ প্রদান করবেন। জেলা পর্যায়ের এ প্রশিক্ষণে ১৪ উপজেলা থেকে ৭৫ জন স্বাস্থ্যকর্মী অংশগ্রহণ করবেন বলে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন।  চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি বলেন, ‘রবিবার (কাল) সকালে টিকা বহনকারী গাড়ি চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন কার্যালয়ের কোল্ড স্টোরে এসে পৌঁছাবে। এখান থেকে পরবর্তীতে তা সিটি কর্পোরেশন ও উপজেলা পর্যায়ে বিতরণ করা হবে। ইতোমধ্যে এসব টিকা প্রদানে সংশ্লিষ্টদের শনিবার থেকে প্রশিক্ষণ কার্যক্রম শুরু হবে।’

সিভিল সার্জন সূত্রে জানা যায়, রাজধানী থেকে আসা ৪৮ কার্টুনের ৫৭ হাজার ৬শ ভায়াল বা ৫ লাখ ৭৬ হাজার ডোজের ভ্যাকসিন বহনকারী গাড়ি ভোরেই পৌঁছাবে চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন কার্যালয়ে। সেখানে ১২শ’ ভায়াল ভর্তি ৩৮ কার্টুন ভ্যাকসিন কোল্ড স্টোরে হস্তান্তর করা হবে। প্রতিটি ভায়ালে ১০ ডোজ করে টিকা থাকবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। ভ্যাকসিনবহনকারী গাড়ি চট্টগ্রামে টিকা হস্তান্তরের পর তা রাঙামাটি হয়ে খাগড়াছড়িতে যাবে। এরমধ্যে রাঙামাটিতে ১ কার্টুন ও খাগড়াছড়িতে ১ কার্টুন তথা দুই জেলায় ২৪ হাজার ডোজ ভ্যাকসিন দেয়া হবে। রাঙামাটি জেলা সিভিল সার্জন নুপুর কান্তি দাস ও খাগড়াছড়ি সিভিল সার্জন ডা. বিপাশ খীসা এমন তথ্য জানিয়েছেন। এছাড়া একই দিন বান্দরবান জেলাতেও পৃথকভাবে ১ কার্টুন তথা ১২ হাজার ডোজ ভ্যাকসিন যাবে বলে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন ডা. অংসুইপ্রু মারমা। বান্দরবানের পর সব শেষ ৭ কার্টুন তথা ৮৪ হাজার ডোজ ভ্যাকসিন যাবে কক্সবাজার জেলায়। চট্টগ্রাম বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. হাসান শাহরিয়ার কবির এমন তথ্য জানিয়েছেন।

৭ ফেব্রুয়ারি উদ্বোধন চমেক হাসপাতালে : চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি (রবিবার) হতে আনুষ্ঠানিকভাবে টিকাদান শুরু হবে। এ দিনে প্রাথমিক পর্যায়ে একশ’ জনের শরীরে টিকা প্রদান করার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছেন নগর ভ্যাকসিন কার্যক্রম কমিটি। উদ্বোধন অনুষ্ঠানে শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলকে প্রধান অতিথি হিসেবে থাকার কথাও জানিয়েছেন চসিক করোনা ভ্যাকসিন প্রদান কমিটির সদস্য সচিব ও চসিকের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সেলিম আকতার চৌধুরী। তিনি বলেন,  নির্ধারিত সময়ে উদ্বোধন করতে ইতোমধ্যে আমাদের প্রস্তুতিও নেয়া হয়েছে। একই সাথে নগরের অন্য কেন্দ্রগুলোতে ধাপে ধাপে ভ্যাকসিন প্রদান করা হবে। যারা টিকাদানের সাথে সংশ্লিষ্ট, তাদের প্রশিক্ষণও শীঘ্রই শুরু হবে। যার জন্য সংশ্লিষ্টদের ইতোমধ্যে তালিকা দিতে বলা হয়েছে।

জানা যায়, চমেক হাসপাতালে চারটি বুথে ২৫ জন করে মোট একশ’ জনের শরীরে প্রথম দিন টিকা প্রদানের জন্য তালিকা চাওয়া হয়েছে। প্রথম দিনে সম্মুখসারির যোদ্ধাদের নামের তালিকাও প্রস্তুত করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি।

পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
  • 41
    Shares
The Post Viewed By: 496 People

সম্পর্কিত পোস্ট