চট্টগ্রাম রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

সর্বশেষ:

২০ জানুয়ারি, ২০২১ | ৫:১৫ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

ইসির নজরদারিতে আরও কয়েকজন ওসি

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনী প্রচারণায় ভয়ভীতি প্রদর্শন, হুমকি ও অভিযোগের তদন্তে হেলাফেলার অভিযোগে আরও দুই-তিনজন ওসির উপর নজরদারি করছে নির্বাচন কমিশন। বিশেষ করে নগরীর ১, ২ ও ৩ নম্বর ওয়ার্ডে আ. লীগ দলীয় ও বিদ্রোহী প্রার্থীদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। প্রকাশ্যে ভয়-ভীতি ও হুমকি প্রদর্শনের বিষয়ে কোনো ব্যবস্থা না নেওয়ায় ওসিকে নিয়ে বিব্রত নির্বাচন কমিশন।

 

নির্বাচন কমিশনের এক কর্মকর্তা বলেন, নগরীর ১ নম্বর দক্ষিণ পাহাড়তলী, ২ নম্বর জালালাবাদ ও ৩ নম্বর পাঁচলাইশ ওয়ার্ড নিয়ে টেনশনে রয়েছে নির্বাচন কমিশন। তিন ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী ও বিদ্রোহী প্রার্থীরা প্রচার-প্রচারণায় প্রকাশ্যে হুমকি-ধমকি ও পাল্টাপাল্টি কুৎসা রটাচ্ছেন।

 

এ নিয়ে বিব্রত অবস্থায় রয়েছে নির্বাচন কমিশন। প্রার্থীদের পরস্পরবিরোধী অভিযোগে সংঘাত-সহিংসতার আশঙ্কা করা হচ্ছে। অথচ নির্বাচন কমিশন সহিংসতামুক্ত নির্বাচন অনুষ্ঠানের সকল উদ্যোগ নিচ্ছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহায়তা ছাড়াও সহিংসতামুক্ত নির্বাচন সম্ভব নয়। নির্বাচনী পরিবেশ ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষার স্বার্থে ওই এলাকার ওসির প্রতি নজরদারি রাখছে নির্বাচন কমিশন।

 

গত সোমবার ৫ থানার ওসিসহ ৬ জনকে রদবদল করা হয়েছে। নির্বাচন কমিশনের চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে সিএমপি কমিশনার সালেহ্ মোহাম্মদ তানভীর বদলির আদেশ জারি করেছেন। প্রয়োজনে আরও কয়েকটি থানার ওসিকে পরিবর্তনের ইঙ্গিত দিয়েছে ইসি।

 

ইসি সূত্র জানায়, সহিংসতা ঘটনা বেড়ে যাওয়ার কারণে অস্বস্তিতে রয়েছে নির্বাচন কমিশন। সহিংসতা রুখতে সংশ্লিষ্ট ওসিদের বদলির জন্য চিঠি দিয়েছে ইসি।

 

রিটার্নিং অফিসার মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান বলেন, ‘সহিংসতারোধে এবার কঠোরভাবে মাঠে নামবে নির্বাচন কমিশন। নির্বাচন কমিশন, ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ প্রশাসন যে যার অবস্থানে থেকে দায়িত্ব পালন করবেন। এতে কাউকে আর ছাড় দেওয়া হবে না।’

 

পূর্বকোণ/পি-মামুন

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 804 People

সম্পর্কিত পোস্ট