চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ০৪ মার্চ, ২০২১

সর্বশেষ:

১৫ জানুয়ারি, ২০২১ | ৪:৩৮ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

রেজাউলের নির্বাচনী কার্যালয়ে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক

‘বিদ্রোহীদের পৃষ্ঠপোষকতাকার‌ীদের বিরুদ্ধেও সাংগঠনিক সিদ্ধান্ত আসতে পারে’

চসিক নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়রপ্রার্থী রেজাউল করিমের প্রধান নির্বাচনী কার্যালয়ে উপস্থিত নেতৃবৃন্দের সাথে নির্বাচন পরিস্থিতি নিয়ে বিশদ আলোচনা করেছেন দলের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন। শুক্রবার (১৫ জানুয়ারি) সকালে তিনি ভোটকেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি বাড়াতে ঘরে ঘরে গিয়ে উদ্ধুদ্ধ করতে দলের নেতাকর্মীদের আহ্বান জানান।

আহমদ হোসেন বলেন, যারা বিদ্রোহীদের পৃষ্ঠপোষকতা করছে তাদের ব্যাপারেও কঠোর সাংগঠনিক সিদ্ধান্ত আসতে পারে। আমরা যারা আওয়ামী লীগের রাজনীতি করি, আমরা দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে কাজ করতে পারিনা। তাছাড়া মনোনয়ন চেয়ে যারা আবেদন করেছিলেন প্রত্যেকেই দলীয় সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে দল সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থীদের পক্ষে কাজ করার অঙ্গীকার করেছেন। অন্যথায় দলীয় শৃঙ্খলাভঙ্গের কারণে স্বয়ংক্রিয়ভাবে দলীয় পদ হারাবেন বলে মুচলেখায় উল্লেখ ছিল। জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন অগ্রযাত্রার যুগপূর্তি, মুজিব শতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর আমরা নৌকার বিজয়ের মধ্য দিয়ে পালন করতে চাই। দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম নগরী হিসেবে চট্টগ্রামের মেয়র হিসেবে আমাদের প্রার্থীর বিজয় অত্যন্ত গুরুত্ব বহন করে।

নেতাকর্মীদের ঘরে ঘরে উন্নয়নের বার্তা নিয়ে গিয়ে নৌকার পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি করার আহ্বান জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠ ও স্বতঃস্ফূর্ত ভোটার উপস্থিতিতেই হবে। নির্বাচন কমিশন নির্বাচনের সুষ্ঠ পরিবেশ বজায় রাখতে স্বাধীনভাবে কাজ করছে।

আলোচনায় অংশ নিয়ে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা আওয়ামী লীগ ও শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এই দেশকে বাংলাদেশ কতদূর এগিয়েছে তা তুলে ধরতে পৃথক পৃথক কর্মসূচি নিয়ে পাড়া মহল্লায় গিয়ে কাজ করছে বলে জানিয়ে বলেন, ছোট ছোট গ্রুপে ভাগ হয়ে এই কার্যক্রমকে আরো গতিশীল করে ঘরে ঘরে উন্নয়নের বার্তা পৌঁছে দিয়ে নৌকায় ভোট চাইতে হবে।

মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, আমরা নির্বাচনে বিশ্বাসী, গণমানুষের রায়ে বিশ্বাসী। সুষ্ঠু, সুন্দর ও উৎসবমুখর পরিবেশে উন্নয়নের প্রতীক নৌকায় ভোট দিতে মানুষ ভোট কেন্দ্রে আসবে বরে আমি আশাবাদী। গণসংযোগে নৌকা ও আওয়ামী লীগের প্রতি স্বতঃস্ফূর্ত মানুষের অংশগ্রহণ দেখে বিএনপি নানা অজুহাত তুলে নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করে নির্বাচন থেকে সরে গিয়ে পরাজয়ের গ্লানি এড়াতে চাইছে।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সদস্য মো. বেলাল হোসেন, মিরসরাইয়ের সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুল হায়দার চৌধুরী রোটন। এ সময় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

পূর্বকোণ/আরপি

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 368 People

সম্পর্কিত পোস্ট