চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারি, ২০২১

সর্বশেষ:

১৪ জানুয়ারি, ২০২১ | ১২:২৫ পূর্বাহ্ণ

বাঁশখালী সংবাদদাতা

ভুল বোঝাবুঝির অবসানে ক্ষমা চাইলে বাশখালী পৌর মেয়র

নগরীর জামালখানে প্রেস ক্লাবে মুক্তিযোদ্ধাদের সঙ্গে সমাবেশে ভুল বোঝাবুঝির অবসানে ক্ষমা চাইলেন বাঁশখালী পৌরসভা মেয়র সেলিমুল হক চৌধুরী।

বুধবার (১৩ জানুয়ারি) দুপুরে বাঁশখালী মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে আয়োজিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় আগত অন্যান্য মুক্তিযোদ্ধাদের কাছে ক্ষমা চান তিনি।

মুক্তিযোদ্ধা সাংসদের বক্তব্য প্রসঙ্গে দক্ষিণ জেলার কমান্ডার অর্থ আবদুর রাজ্জাক বলেন, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে একত্রিত হতে গিয়ে কিছু সুবিধাবাদী ব্যক্তি (আমার সাথে থাকা) ভাড়াটে লোক দিয়ে মুক্তিযোদ্ধাদের উপর হামলা চালায়। এজন্য আমি ক্ষমা প্রার্থী।

 

মুক্তিযোদ্ধাদের উদ্দেশ্যে মেয়র বলেন, `আপনারা হয়তো মনে করছেন নির্বাচন আসছে বলে আপনাদের কাছে এসেছি। আমি ঘটনার পর থেকে রাজ্জাক ভাই, মানিক ভাইসহ অনেক মুক্তিযোদ্ধার সাথে যোগাযোগ করেছি। আমাকে ভুল না বুঝতে তাদেরকে অনুরোধ করেছিলাম। সেদিন কি হয়েছিল আপনারা বুঝতেই পারছেন। আমি যদি মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে সেদিন না থাকতাম, ১নং আসামি না হতাম কে কোথায় চলে যেতো আপনারা ভালো জানেন। আমার উপর মুক্তিযোদ্ধাদের রাগ আছে তা জানি। আমি ইচ্ছে করে কিছু করি নাই। আমি কারো নামও ধরবো না, বদনামও করবো না। সব আপনারাই বুঝে নেন। আমি মুক্তিযোদ্ধাদের উপর হামলা করতে জামালখান যাইনি। আমাকে সামনে রেখে অতি উৎসাহীরা ব্যানার ছিঁড়ে ঘটনা ঘটিয়েছে।  

বাঁশখালী উপজেলার ভারপ্রাপ্ত কমান্ডার আবুল হাসেম মানিকের সভাপতিত্বে স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে আলোচনা সভায় অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোমেনা আক্তার, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ দক্ষিণ জেলার কমান্ডার অর্থ আবদুর রাজ্জাক, মেয়র সেলিমুল হক চৌধুরী, বাঁশখালী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আবদুল গফুর, দপ্তর সম্পাদক শ্যামল দাশ, মুক্তিযোদ্ধার সরোয়ার হোসেন, মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ সোলাইমান, মুক্তিযোদ্ধা আজিমুল হক ভেদু।

পূর্বকোণ/মামুন

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 417 People

সম্পর্কিত পোস্ট