চট্টগ্রাম শনিবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০২১

১৩ জানুয়ারি, ২০২১ | ১১:২৮ পূর্বাহ্ণ

মুহাম্মদ নাজিম উদ্দিন

বিধি লঙ্ঘন বাড়লেও নিষ্ক্রিয় ম্যাজিস্ট্রেট

ম্যাজিস্ট্রেটের ভূমিকায় ‘বিব্রত’ ইসি

সিটি করপোরেশন নির্বাচন ঘনিয়ে আসতেই বাড়ছে সংঘাত-সংঘর্ষ ও সহিংসতা। আর প্রচারে আচরণবিধি মানছেন না প্রধান দুই দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মেয়র প্রার্থীরা। নির্ধারিত সময়ের বাইরে মাইক বাজানো, প্রচারে মিছিল-শোভাযাত্রাসহ আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ চলে আসছে। কিন্তু আচরণবিধি দেখভালের দায়িত্বে মাঠে থাকা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা দেখছে না বিধি লঙ্ঘনের ঘটনা।

রিটার্নিং কার্যালয় সূত্র জানায়, বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগগুলো সংশ্লিষ্ট নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও থানা পুলিশের কাছে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদনের পর আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

গত ৮ জানুয়ারি নির্বাচনী আচরণবিধি প্রতিপালন ও দেখভালের জন্য জেলা প্রশাসনের ১৪ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ দেওয়া হয়। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোছাম্মৎ সুমনী আক্তার মোবাইল কোর্ট পরিচালনা, আইনশৃঙ্খলা রক্ষার জন্য ম্যাজিস্ট্রেটদের নিয়োগ করেন। গতকাল তিনি পূর্বকোণকে বলেন, ‘ম্যাজিস্ট্রেটরা মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করছে। আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে এখনো জরিমানা বা শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। সাবধান করা হয়েছে।’

রিটার্নিং অফিসার কার্যালয় সূত্র জানায়, প্রচারণা শুরু থেকে এ পর্যন্ত নয়টি অভিযোগ জমা পড়েছে। তবে আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরীর বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙ্ঘনের দুটি অভিযোগ দায়ের করেছেন বিএনপি মনোনীত প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন। শাহাদাতের পক্ষে চট্টগ্রাম নাগরিক ঐক্য পরিষদ এই অভিযোগ দায়ের করেন। ডা. শাহাদাতের বিরুদ্ধেও পাল্টা অভিযোগ দায়ের করেছেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরী। তার পক্ষে নগর আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক হাসান মাহমুদ শমসের এই অভিযোগ দায়ের করেন। এছাড়াও কাউন্সিলর প্রার্থীদের প্রচারণায় হামলা, ভয়-ভীতি প্রদর্শন ও পোস্টার ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ রয়েছে।

অভিযোগে দেখা হয়েছে, ১০ জানুয়ারি আওয়ামী লীগ প্রার্থী রেজাউল করিমের বিরুদ্ধে নির্বাচনী বিধি লঙ্ঘন করে প্রচারণার অভিযোগ করা হয়েছে। এতে দাবি করা হয়েছে, বিশাল গাড়ি বহর নিয়ে প্রচারণা চালানো হয়েছে। গতকালও একই অভিযোগ করেছেন। বিভিন্ন গণমাধ্যমেও আচরণ বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ তুলে সচিত্র সংবাদ পরিবেশন করে আসছে। গত ১১ জানুয়ারি আওয়ামী লীগ প্রার্থী রেজাউল করিমও বিএনপি প্রার্থীর বিরুদ্ধে পাল্টা অভিযোগ করেন। কাজীর দেউড়ি ও নাসিমন ভবন এলাকায় পোস্টার ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ করা হয়েছে।

২৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী আবদুল কাদের আওয়ামী লীগ প্রার্থী নজরুল ইসলাম বাহাদুরের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন। নির্বাচনী পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা, গণসংযোগে বাধা ও হামলা চালানোর অভিযোগ করেছেন তিনি। বিকেল অভিযোগ দেওয়ার পর সন্ধ্যায় দুই পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। দুই পক্ষের গোলাগুলিতে গুলিবিদ্ধ একজন নিহত হয়। ২৩ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রাথী মোহাম্মদ মহসীন পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা ও কর্মীদের মারধরের অভিযোগ করেছেন। ১৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী মোহাম্মদ শোয়েব খালেদ প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী শহীদুল আলমের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন। এতে দাবি করা হয়েছে, নির্বাচনী পোস্টারে দলীয় প্রধানের ছবি ছাপানো হয়েছে।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে রিটার্নিং অফিসার মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান পূর্বকোণকে বলেন, ‘অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট থানায় পাঠানো হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’ এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘অভিযোগের বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্বাহী এলাকার ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে পাঠানো হয়েছে। দেখি, তাঁরা কী ব্যবস্থা নেন।’

মিছিল-শোভাযাত্রা গতকাল আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরী সকালে পশ্চিম ষোলশহর, শুলকবহর ও চকবাজার ওয়ার্ডে গণসংযোগ করেন। বিশাল গাড়িবহর ও কয়েকশ নেতাকর্মী নিয়ে প্রচারণা চালান তিনি। সিটি করপোরেশন নির্বাচন আচরণ বিধিমালা ১৩নং ধারায় বলা হয়েছে, ‘কোন ট্রাক, বাস, মোটরসাইকেল, নৌযান, ট্রেন কিংবা অন্য কোন যান্ত্রিক যানবাহন সহকারে মিছিল বা মশাল মিছিল বা অন্য কোন প্রকারের মিছিল বাহির করতে পারিবে না কিংবা কোনরূপ শোডাউন করিতে পারিবে না।’

বিএনপি প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন সকালে সকালে পাহাড়তলী ও বিকেলে লালখান বাজার এলাকায় গণসংযোগ করেন। তাঁর সঙ্গেও শত শত নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। গণসংযোগ ও পথসভায় বিপুল সংখ্যক মানুষের উপস্থিতিতে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ রয়েছে।

দুই মেয়র প্রার্থী ছাড়াও বিভিন্ন ওয়ার্ডে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরাও সদলবলে শোডাউন করে প্রচারণা চালাচ্ছেন। উচ্চ স্বরে স্লোগান দিচ্ছেন। সাউন্ড বক্সে উচ্চ শব্দে নানা রঙের গান বাজিয়ে ভোট প্রার্থনা করছেন। ছোট ছোট পিকআপ ভ্যানে চড়ে গণসংযোগ করেন।

পূর্বকোণ/পি-আরপি

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 655 People

সম্পর্কিত পোস্ট