চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২১ জানুয়ারি, ২০২১

১১ জানুয়ারি, ২০২১ | ৫:২৪ অপরাহ্ণ

নিজস্ব সংবাদদাতা, চকরিয়া

সাফারি পার্কে বন্যহাতির দল

কক্সবাজারের চকরিয়ার ডুলাহাজারাস্থ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে আবারো ঢুকে পড়েছে একদল বন্যহাতি। বনবিভাগের সংরক্ষিত ও রক্ষিত বৃক্ষরাজি সাবাড়ের কারণে পাহাড়ে খাদ্য সংকট এবং অতি পুরনো হাতি চলাচলের রাস্তায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়। এতে বন্য হাতির খাদ্য ও বিচরণ সমস্যার কারণে প্রায়শই পাহাড়ের নিকটবর্তী লোকালয়ে ও ক্ষেত-খামারে ঢুকে পড়ে হাতি। গাছ-গাছালিতে পরিপূর্ণ সাফারি পার্কে বন্য প্রাণীদের পর্যাপ্ত খাবার থাকায় প্রতি শীতেই পার্কের ঘেরাওয়ের অরক্ষিত স্থান দিয়ে বন্য হাতি প্রবেশ করে। এবারও শাবকসহ অন্তত ২৩ টি বন্য হাতি আসে। তন্মধ্যে ৫টি শাবকসহ ১০টি হাতি পার্কের ভেতর প্রবেশ করে এক সপ্তাহ ধরে অবস্থার করছে পার্কের চারণভূমি ও বগাচত্তর মৌজার ওড়ি আম গাছের বাগানে।

অপর ১৩টি হাতি পার্কের বাইরে অবস্থান করছে। হাতিগুলো পার্কের গাছ-গাছালি নষ্ট করছে, বন্য হাতি প্রবেশ করায় দর্শণার্থীরাও পুরো পার্ক ঘুরছেন না আতংকে।  এদিকে পার্কের ভেতরে জেব্রা ও ওয়াইল্ডবিস্টের খাবার যোগাতে পার্ক কর্তৃপক্ষ শাক-সবজি রোপণ করে চারণভূমি তৈরি করেন। প্রবেশ করে হাতির দল ওই চারণভূমির রোপিত খাবারসহ ওই স্থানের পানিও নষ্ট করেছে,  এর নিকটবর্তী বগাচত্তর মৌজায় ২০১৯-২০ অর্থবছরে ৫০ হেক্টর জমিতে রোপণ করা ওড়ি আম গাছ ভেঙ্গে ফেলেছে।

বিজ্ঞাপন

উপরোক্ত তথ্য নিশ্চিত করা ছাড়াও পার্কের ভারপ্রাপ্ত তত্ত্বাবধায়ক ও বন্যপ্রাণী বিশেষজ্ঞ মো. মাজহারুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, ‘গেল বছরের ডিসেম্বর মাসে দুইদফায় বন্য হাতি পার্কের অভ্যন্তরে ঢুকে পড়ে। ওইসময় হাতিগুলো অন্তত ১০ দিন অবস্থান করে পার্কের ভেতরে তা-ব চালায়।

তিনি আরো বলেন, গত বছরের শীতের ন্যয় এবারও একদল বন্যহাতি পার্ক সীমান্তে এসে দু’ভাগে ভাগ হয়। হাতিগুলোর মধ্যে ১৩টি বাইরে অবস্থান করলেও শাবকসহ ১০ টি পার্কের ভেতরে ঢুকে জেব্রা ও ওয়াইল্ডবিস্টের খাবার সাবাড় করেছে, ঘোলা করে দিয়েছে লেকের পানীয়জল। দর্শনার্থীদের নিরাপত্তা ও আতংকমুক্ত রাখতে পার্ক কর্মচারীদের সার্বক্ষণিক সতর্কবস্থানে রাখা হয়েছে। চেষ্টা চলছে বন্য হাতিগুলো পার্ক থেকে বের করে জঙ্গলে তাড়িয়ে দিতে।

পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 179 People

মন্তব্য দিন :

সম্পর্কিত পোস্ট