চট্টগ্রাম বুধবার, ২০ জানুয়ারি, ২০২১

সর্বশেষ:

৫ জানুয়ারি, ২০২১ | ১০:৫৬ পূর্বাহ্ণ

নাজিম মুহাম্মদ 

ছেলের সঙ্গে কথা কাটাকাটির জেরে বাবার দোকানে তাণ্ডব

কিশোর গ্যাং লিডার ইভানের অনুসারী আটক

ছেলের কথা কাটাকাটির জের ধরে বাবার দোকানে তাণ্ডব চালিয়েছে কিশোর গ্যাং। তাও দিনে দুপুরে। গত রবিবার বিকেল সাড়ে পাঁচটায় নগরীর চকবাজার আল ফারুক অপটিক্যাল নামে একটি চশমার দোকানে এ ঘটনা ঘটেছে। হামলাকারীরা সবাই তালিকাভুক্ত কিশোর গ্যাং লিডার সাদ্দাম হোসেন ইভানের অনুসারী।

এখানেই শেষ নয় বন্ধুর ষাটোর্ধ বাবাকেও পিটিয়েছে তারা। তাদের কারো বয়স ১৮ আবার কারো বয়স ২০। কিশোর দলের এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে থানা পুলিশ রীতিমতো গলদঘর্ম । এ ব্যাপারে ঘটনার শিকার মঈন ফারুকী বাদি হয়ে রবিবার রাতেই চকবাজার থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলার এজাহারে সাতজনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে যাদের বয়স ১৮ থেকে ২১ বছরের মধ্যে।

এলাকার আইন শৃঙ্খলার অন্য জরুরি কাজ বাদ দিয়ে গতকাল সোমবার (৪ জানুয়ারি) দিনভর ঘটনায় অভিযুক্ত কিশোরের পেছনে ছুটতে হয়েছে থানা পুলিশকে। আটক করা হয়েছে হাবিবুর রহমান পাটোয়ারী নামে ষোল বছরের এক কিশোরকে। হাবিব চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ থানার পূর্ব সবিদপুর ইউনিয়নের দিকদইর গ্রামের আলী হোসেনের পাটোয়ারীর ছেলে। নগরীর দেবপাহাড় বৌদ্ধ মন্দিরের সামনে আফসার কামাল লেনের সেলিশ ভিলার চতুর্থ তলায় পরিবারের সাথে থাকে।

চকবাজার থানার পরিদর্শক (ওসি) রুহুল আমিন জানান, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দোকানে ভাঙচুর করা হয়েছে। এ ব্যাপারে ক্ষতিগ্রস্ত দোকানদার থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। আমরা ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে মামলার এজাহারভুক্ত হাবিবুর রহমান পাটোয়ারী নামে একজনক গ্রেপ্তার করেছি। বাকিদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে ।

এজাহারে বলা হয়েছে, রবিবার বিকেল সাড়ে পাঁচটায় ছেলে আবু বক্কর সিদ্দিককে নিয়ে চশমার দোকানে বসে ছিলেন মঈন উদ্দিন ফারুকী। হঠাৎ পাঁচ-ছয়জন ছেলে হাতে লোহার রড ও স্টিলের পাইপ নিয়ে দোকানে প্রবেশ করে, ছেলেকে গালিগালাজ করতে করতে দোকানের গ্লাস ভাঙচুর করতে থাকে। তাদের প্রতিহত করতে চেষ্টা করলে হামিম আল রশিদ আবীরের নেতৃত্বে ৬/৭ জন কিশোর ফারুকীর ছেলে আবু বক্করকে মারতে থাকে। ইভানের অনুসারী কিশোরদের হাতে বাবা ছেলে দু’জনেই আহত হয়েছেন।

ক্ষতিগ্রস্ত দোকানদারের এক নিকটাত্মীয় জানান, যারা ঘটনা করেছে তারা সবাই বক্করের পূর্ব পরিচিত। এক সঙ্গে আড্ডা দেয়, এক সঙ্গে খায়। ওরা ইভানের আর বক্কর অন্তুু বড়ুয়ার অনুসারী। দুই একদিন আগে বক্করের সাথে কথা কাটাকাটির জের ধরে ওরা প্রকাশ্যে হামলা চালিয়েছে। লাঠির আঘাতে মাথা ফেটে যাওয়ায় ফারুকীর মাথায় কয়েকটি সেলাই দিতে হয়েছে। তিনি আপাতাত বিশ্রামে আছেন। ছেলের বন্ধুদের কাণ্ড দেখে ষাটোর্ধ ফারুকী হতভম্ব হয়ে যান।

 

 

পূর্বকোণ/পি-আরপি

 

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 1210 People

মন্তব্য দিন :

সম্পর্কিত পোস্ট