চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ১৫ এপ্রিল, ২০২১

সর্বশেষ:

৩ জানুয়ারি, ২০২১ | ১২:০৮ অপরাহ্ণ

ইমাম হোসাইন রাজু

চসিক মিলনায়তনে আজ নীতি-নির্ধারণী বৈঠক

যেভাবে চট্টগ্রামে করোনার টিকাদান

সফলভাবে করোনার টিকাদান কার্যক্রম সম্পন্ন করার সার্বিক উদ্যোগ গ্রহণ করেছে সরকার। ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে কমিটিও। গঠন করা হয়েছে চট্টগ্রামেও সুষ্ঠুভাবে কোভিড-১৯ এর ভ্যাকসিন প্রদানের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এরমধ্যে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন এলাকায় কিভাবে কোভিড-১৯ এর এ টিকা প্রদান করা হবে তা নিয়ে কাজ শুরু করেছেন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। টিকাদান কার্যক্রমের প্রস্তুতি ও বাস্তবায়ন পরিকল্পনা নিয়ে চট্টগ্রামে আজ রবিবার প্রথমবারের মতো বৈঠকে বসছেন স্বাস্থ্য সংশ্লিষ্টরা।

নগরীর টাইগারপাসে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের নগর ভবন মিলনায়তনে আয়োজিত সভায় বিভাগীয় কমিশনার, জেলা প্রশাসক, নগর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রধান, চসিক কর্তৃপক্ষ, সমাজসেবা, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য বিভাগের সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত থাকবেন।

সিটি কর্পোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সেলিম আকতার চৌধুরী আজ সকাল ১১টায় নগর ভবন মিলনায়তনে প্রশাসকের সভাপতিত্বে সভা অনুষ্ঠিত হবে উল্লেখ করে বলেন, প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের নির্দেশনা মোতাবেক গঠিত কমিটির এটি হবে প্রথম সভা। এতে সিটি কর্পোরেশন এলাকায় করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন প্রদান কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পাদন বিষয়ে আলোচনা করা হবে।

এদিকে চট্টগ্রাম বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. হাসান শাহরিয়ার কবির জানিয়েছেন, সিটি কর্পোরেশন এলাকার বাইরে গ্রাম ও উপজেলা পর্যায়ে কোভিডের টিকা কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতেও প্রস্তুতি গ্রহণ করছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

এর আগে গত ১৩ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের পরিচালক-৩ মুহাম্মদ শাহীন ইমরান স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে টিকাদান কমিটির সদস্য কারা হবেন তা জানিয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে চিঠি ইস্যু করেন। এরপ্রেক্ষিতে গঠিত কমিটি আজ রবিবার প্রথম বৈঠকে বসবেন। যাতে উপস্থিত থাকবেন বিভাগীয় কমিশনার এ বি এম আজাদ, বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. হাসান শাহরিয়ার কবির, পুলিশ কমিশনার সালেহ মোহাম্মদ তানভীর, চসিকের প্রশাসক আলহাজ্ব মো. খোরশেদ আলম সুজন ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মোজাম্মেল হক, বিভাগীয় সমাজ সেবা অধিদপ্তর পরিচালক নুসরাত সুলতানা, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) গোলাম মাওলা, সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি, ও চসিকের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সেলিম আকতার চৌধুরী।

স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে জানানো হয়, করোনার টিকাদান কর্মসূচি সফল করতে ব্যবহার করা হবে সব ধরণের স্বাস্থ্য অবকাঠামো। কাজ করবেন টিকা কর্মসূচিতে যুক্ত দক্ষ কর্মীরা। স্বাস্থ্য অবকাঠামোর বাইরে ইউনিয়ন পরিষদ, উপজেলা পরিষদ, বেসরকারি স্বায়ত্তশাসিত চিকিৎসা কেন্দ্রগুলোতেও খোলা হবে করোনা ভ্যাকসিনেশন সেন্টার।

অন্যদিকে দেশে ফেব্রুয়ারির শুরুতে টিকা আসলে মধ্য ফেব্রুয়ারিতেই চট্টগ্রামে এ টিকা পাওয়া যাবে। এমন আশার কথাও জানিয়েছে চট্টগ্রামের স্বাস্থ্য বিভাগ। গত ডিসেম্বর মাসে চট্টগ্রামের জন্য প্রায় সাড়ে পাঁচ লাখ টিকার জন্য কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য বিভাগের কাছে চাহিদা পাঠায় স্থানীয় স্বাস্থ্য বিভাগ। যাতে ২ লাখ ৭১ হাজার ৭৮৮ জনের শরীরে প্রয়োগের জন্য দুই ডোজ করে ভ্যাকসিন চাওয়া হয়।

চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি জানান, প্রাথমিক পর্যায়ে সম্মুখযোদ্ধা যারা তাদের দেয়া হবে এ টিকা। পর্যায়ক্রমে অন্যদেরও টিকার আওতায় আনা হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

 

পূর্বকোণ/পি-মামুন

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 553 People

সম্পর্কিত পোস্ট