চট্টগ্রাম রবিবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০২১

সর্বশেষ:


Notice: Undefined property: stdClass::$container_aria_label in /home/dainikpurbokone/public_html/wp-includes/nav-menu-template.php on line 190

২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০ | ২:০০ অপরাহ্ণ

আল-আমিন সিকদার

সিট নেই তবুও হাজার টিকিট বিক্রি!

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমির আল্লামা শাহ আমহদ শফীর নামাজে জানাজা গতকাল শনিবার দুপুর ২টায় অনুষ্ঠিত হয়। স্মরণকালের সর্ববৃহৎ এ জানাজায় অংশগ্রহণ করতে বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা থেকে লাখ লাখ আল্লামা শফীর ভক্ত ও অনুসারী সকাল থেকেই হাটহাজারী মাদরাসা প্রাঙ্গনে ভিড় করেছে। জানাযা শেষে এসব মানুষরা নিজ গন্তব্যের উদ্দেশ্যে যাত্রা করতে ভিড় করেন রেলওয়ে স্টেশনে। তবে হজারো মানুষকে টিকিট দিতে রেলের হিমশিম খাওয়ার কথা থাকলেও অতিরিক্ত টিকিট বিক্রি করে তাদের অনেকটা বিপদের মুখে ফেলে দেয় রেল।
রাত সাড়ে ১০ টায় চট্টগ্রাম থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায় মেইল ট্রেন। যাত্রী ধারণ ক্ষমতার ৫ গুনেরও বেশি টিকিট বিক্রি করা হয় কাউন্টার থেকে। যে কারণে আসনের পাশাপাশি কোচের যাত্রীদের সাথে অনেকটা গাদাগাদি করে যাত্রা করে যাত্রীরা। শুধুমাত্র মেইলেই নয়, মেইল ট্রেনের টিকিট নিয়ে শেষ পর্যন্ত তূর্ণা-নিশিতায় উঠতে হয় এসব যাত্রীদের।
সরেজমিনে দেখা যায়, সন্ধ্যার পর থেকেই স্টেশনে ভিড় জমাতে থাকে নামাজে জানাজায় অংশগ্রহণ করা যাত্রীরা। স্টেশনে এসেই কাউন্টারের সামনে দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে পড়েন তারা। উদ্দেশ্যে ঢাকা মেইলের টিকিট সংগ্রহ আর গন্তব্যে পৌঁছা। যাত্রীদের অবস্থানের সুযোগ নেয় কাউন্টারে টিকিট বিক্রি করা মানুষগুলো। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে আসনের অতিরিক্ত টিকিট বিক্রিতে সরকার নিষেধাজ্ঞা জারি করলেও তা আমলে নেয়া হয়নি। বিক্রি কার হয়েছে হাজারো টিকিট। টিকিট নিয়ে স্টেশনে আসলেও মেইলে যাত্রা করতে পারেনি অনেক যাত্রী। ট্রেনে উঠতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করলেও বর্থ্য হয়েছেন অনেকে। যাদের বাধ্য হয়ে উঠতে হয়েছে তূর্ণা-নিশিতা ট্রেনে।
এদিকে অতিরিক্ত টিকিট বিক্রির কারণে যাত্রী সামলাতে হিমশিম খেতে রেলওয়ে পুলিশ ও রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যের। এ বিষয়ে রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজ ভূঁইয়া। তিনি পূর্বকোণকে বলেন, ‘অতিরিক্ত টিকিট বিক্রির কারণে অতিরিক্ত যাত্রী সামলাতে আমাদের হিমশিম খেতে হয়েছে। যাত্রী এতই বেশি ছিল ছাদেও যাত্রা করতে চেয়েছিল প্রায় শতাধিক যাত্রী। যাদের মাইকিং করে নামানো হয়। আর এসবের মূল কারণ ছিল মেইল ট্রেনে আসনের তুলনায় অধিক টিকিট বিক্রি। পরবর্তীতে মেইলের টিকিট সংগ্রহ করা যাত্রীদের তূর্ণায় তুলে দেয়া হয়।’
অতিরিক্ত টিকিট বিক্রির বিষয়ে জানতে চাইলে চট্টগ্রাম স্টেশন ম্যানেজার রতন পূর্বকোণকে বলেন, ‘স্টেশনে হঠাৎ যাত্রীদের ভিড় শুরু হয়। মেইলে আসনের হিসাব না থাকায় এবং অতিরিক্ত যাত্রীদের ভিড় সামলাতে গিয়ে বাড়তি টিকিট বিক্রি করা হয়। তবে কি পরিমাণ টিকিট বেশি বিক্রি হয়েছে তা এখনো হিসেব করা হয়নি।

পূর্বকোণ/এএ

বিজ্ঞাপন

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 115 People

সম্পর্কিত পোস্ট