চট্টগ্রাম রবিবার, ১৬ মে, ২০২১

২৮ আগস্ট, ২০২০ | ৫:৪৬ অপরাহ্ণ

উখিয়া প্রতিনিধি

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দুই সন্ত্রাসী গ্রুপের ব্যাপক গুলিবর্ষণ

কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ব্যাপক গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটেছে।  গতকাল বৃহস্পতিবার (২৭ আগস্ট) ও বুধবার (২৬ আগস্ট)  রাতে দুই রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী গ্রুপের মধ্যে  এ গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে।

কুতুপালং ক্যাম্পের রোহিঙ্গা নেতা মো. নুর জানান, দুই গ্রুপের মধ্যে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২ টায় মধুরছড়া লম্বাশিয়া ক্যাম্পে দুই গ্রুপের মধ্যে গুলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এ কারণে রোহিঙ্গা শিবির গুলোতে সাধারণ রোহিঙ্গাদের মাঝে আতংক বিরাজ করছে।

বুধবার রাতে ও কুতুপালং ক্যাম্পে বিবদমান দুই রোহিঙ্গা গ্রুপের মধ্যে ও গুলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। উক্ত ঘটনায় বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে এবং প্রতিপক্ষ এক রোহিঙ্গাকে অপহরণ করে নিয়ে গেছে।

ওয়েষ্ট ক্যাম্পের হেড মাঝি সিরাজুল মোস্তফা জানান, কাছাকাছি তিনটি ক্যাম্পে বিবদমান দুই  রোহিঙ্গা গ্রুপের মধ্যে এ ঘটনা ঘটে। সাধারণ রোহিঙ্গারা গোলাগুলির সময় ঘর থেকে বের না হওয়ায় তেমন হতাহতের খবর পাওয়া যায় নি। তবে কুতুপালং নিবন্ধিত রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পের আবুল কালাম নামের এক যুবককে সশস্ত্র একটি গ্রুপ অপহরণ করে নিয়ে গেছে বলে জানা যায়। উক্ত যুবক সম্প্রতি একটি মামলায় জেল থেকে জামিনে এসেছে বল রোহিঙ্গারা জানায়।

কুতুপালং নিবন্ধিত রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্প ব্যবস্হাপনা কমিটির সভাপতি হাফেজ জালাল আহাম্মদ বলেন, ক্যাম্প গুলোর নিয়ন্ত্রণ ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দিনে দিনে পরিস্থিতি উদ্বেগজনক মাত্রায় চলে যাচ্ছে। বুধবার রাতে পাশাপাশি তিনটি ক্যাম্পে থেমে থেমে গুলির শব্দে সাধারণ রোহিঙ্গাদের মাঝে চরম ভীতিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। এধরনের সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে দ্রুত কঠোর অবস্থান নেয়া না হলে পরিস্থিতি ক্রমান্বয়ে নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যেতে পারে বলে তিনি জানান।

কুতুপালং নিবন্ধিত রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পের এপিবিএন এর আইসি সালেহ আহমদ একজন রোহিঙ্গাকে তুলে নিয়ে যাওয়ার ঘটনায় বিবদমান একাধিক রোহিঙ্গা গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনার কথা জানান।

কুতুপালং ক্যাম্প ইনচার্জ মো. খলিলুর রহমান খান বলেন, বুধবার রাতে কিছু বিচ্ছিন্ন গুলির ঘটনা সম্পর্কে শুনেছি। কিন্তু এ ব্যাপারে পুলিশ বা রোহিঙ্গাদের কাছ থেকে কেউ এখনো জানায়নি।

উল্লেখ্য গত শুক্রবার দুপুরে জুমার নামাজের পর উনছিপ্রাং ২২ নং ক্যাম্পে একটি সশস্ত্র সন্ত্রাসী রোহিঙ্গা গ্রুপ প্রকাশ্যে সাধারণ রোহিঙ্গাদের ওপর এলোপাতাড়ি গুলি ছুঁড়তে থাকে। সোমবার আইন শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী ও প্রশাসনের যৌথ অভিযানে উক্ত ক্যাম্প থেকে বেশ কয়েকজন রোহিঙ্গাকে অস্ত্র ও গুলিসহ আটক করা হয়েছে।

এব্যাপারে জানতে চেয়ে উখিয়া থানার ওসি মর্জিনা আকতারকে ফোন দিলে ফোনটি রিসিভ করে কথা না বলে লাইন কেটে দেওয়ায় বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

পূর্বকোণ/কায়সার-এএ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 296 People

সম্পর্কিত পোস্ট