চট্টগ্রাম সোমবার, ২৫ জানুয়ারি, ২০২১

সর্বশেষ:

৩ জুন, ২০১৯ | ২:২৮ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব সংবাদদাতা , চন্দনাইশ

সড়ক ঘেঁষে গর্ত খননে পুনরায় ভেঙ্গে পড়ার আশঙ্কা

চন্দনাইশে চুড়ামণি সড়কের মাটি ভরাট ব্যয় ৩ কোটি টাকা

চন্দনাইশের জন-গুরুত্বপূর্ণ চুড়ামণি সড়কের দুই পাশে মাটি ভরাটের কাজ এগিয়ে চলেছে। ৩ কোটি টাকার অধিক ব্যয়ে সাড়ে ৫ কি.মি. মাটি ভরাটের কাজ পেয়েছে এমএএইচ কনস্ট্রাকশন নামক ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান।সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার চন্দনাইশ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে শুরু হয়ে বরকল ব্রিজ পর্যন্ত সাড়ে ৫ কি.মি. চুড়ামণি সড়ক এবং রওশন হাট থেকে শোভনদন্ডী পর্যন্ত ১১’শ মিটার সড়কের দু’পাশে মাটি ভরাটের কাজ এগিয়ে চলছে। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ ৩ কোটি টাকার অধিক ব্যয়ে এমএএইচ কনস্ট্রেকশনকে এ মাটি ভরাটের কাজ দিয়েছেন। ইতিমধ্যে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার চুড়ামণি সড়কের চন্দনাইশ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে কানাইমাদারী পর্যন্ত সড়কের দু’পাশে সড়ক ঘেঁষে স্কেভেটর দিয়ে মাটি তুলতে দেখা যায়। ফলে বর্ষা মৌসুমে বৃষ্টি হওয়ার সাথে সাথে সড়কের দু’পাশে দেয়া মাটি প¦ার্শবর্তী গর্তে পড়ে পুনরায় সড়ক ভেঙ্গে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞ মহল। জানা যায়, সড়কের দু’পাশে মাটি ভরাটের জন্য স্থানীয়ভাবে মাটি সংগ্রহের কথা থাকায় সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার সড়কের পাশে জমি গর্ত করে, প¦ার্শবর্তী পুকুর-ডোবা থেকে নরম কাদা-মাটি দিয়ে সড়কের মাটি ভরাটের কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। সড়কের মাটি ভরাটের কাজ ১জন জনপ্রতিনিধি করার কারণে স্থানীয় লোকজন প্রতিবাদ করতে সাহস পাচ্ছেনা বলে স্থানীয় সচেতন মহল জানিয়েছেন।
এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী বিল্লাল হোসেন বলেছেন, চুড়ামণি সড়কের প্রায় সাড়ে ৫ কি.মি. ও রওশন হাট থেকে শোভনদন্ডী পর্যন্ত ১১’শ মিটার সড়কের দু’পাশে মাটি ভরাটের জন্য সরকার কর্তৃক ৩ কোটি টাকার অধিক বরাদ্ধ দেয়া হয়েছে। মাটি স্থানীয়ভাবে সংগ্রহের কথা থাকায় প¦ার্শবর্তী জমি বা পুকুর থেকে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার মাটি সংগ্রহ করে ভরাট করছে। তবে সড়কের ক্ষতি না হয় মত দূরত্ব বজায় রেখে মাটি সংগ্রহের নিয়ম রয়েছে বলে জানান তিনি।

বিজ্ঞাপন

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 277 People

সম্পর্কিত পোস্ট